আজ দিল্লি যাচ্ছে আওয়ামী লীগের প্রতিনিধি দল

  আজ দিল্লি যাচ্ছে আওয়ামী লীগের প্রতিনিধি দল

স্টাফ রিপোর্টার, ঢাকা অফিস: ভারতীয় জনতা পার্টির (বিজেপি) আমন্ত্রণে আজ রোববার দিল্লি সফরে যাচ্ছে ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগের ১৯ সদস্যের প্রতিনিধি দল। ২২ থেকে ২৪ এপ্রিল পর্যন্ত তিন দিনের এ সফরে নেতৃত্ব দিবেন দলটির সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের। প্রতিনিধি দলের নেতাদের নয়াদিল্লিতে ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী, লোকসভার স্পিকার সুমিত্রা মহাজন এবং বিজেপির শীর্ষ নেতৃবৃন্দের সাথে বৈঠক করার কথা রয়েছে। এছাড়া তারা মহাত্মা গান্ধী মেমোরিয়ালে শ্রদ্ধা নিবেদন করবেন।

সফরে যাওয়ার আগের দিন শনিবার বিকেলে আওয়ামী লীগ সভাপতির ধানমন্ডির রাজনৈতিক কার্যালয়ে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে এ তথ্য জানান ওবায়দুল কাদের। এসময় সাংবাদিকদের এক প্রশ্নর জবাবে তিনি বলেন, আমাদের ক্ষমতার উৎস বাংলাদেশের জনগণ। বিজেপি এসে আমাদের জন্য ভোট চাইবে না, চাইতেও পারবে না। ইন্ডিয়ান ডেমোক্রেসির একটা বিউটি আছে। তারা অন্য দেশের অভ্যন্তরিণ রাজনৈতিক বিষয়ে হস্তক্ষেপ করে না। অন্যান্য দেশ এ বিষয়ে খুব দৌঁড়াদৌঁড়ি করে। অনেক দেশ ছোটাছুটি করে। কিন্তু ইন্ডিয়া এইগুলো করে না।

আজ রোববার সকালে ঢাকা ত্যাগ করে ভারতের রাজধানী নয়া দিল্লিতে যাবেন প্রতিনিধি দলটি। ওই দিন রাতে বাংলাদেশী দূতাবাসের আয়োজনে নৈশ্যভোজে অংশ নেবেন তারা। পরদিন ২৩ এপ্রিল সকালে ভারতের লোকসভার স্পিকার সুমিত্রা মহাজন সঙ্গে সৌজন্য সাক্ষাৎ ও পার্লামেন্ট অধিবেশন পরিদর্শন করবে প্রতিনিধি দলটি। পরে ভারতীয় জনতা পার্টির নেতা এম জে আকবরের দেওয়া মধ্যাহ্ন ভোজে অংশ নেবেন প্রতিনিধি দলের নেতারা। ওই দিন বিকেলে ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর সঙ্গে সাক্ষাতে মিলিত হবেন তারা। পরে ভারতীয় জনতা পার্টি (বিজেপি) সঙ্গে দ্বিপাক্ষীক আলোচনা শেষে নৈশ্যভোজে অংশে নেবেন আওয়ামী লীগের প্রতিনিধি দলের সদস্যরা। সফরে প্রতিনিধি দল মহাত্মা গান্ধী মেমোরিয়ালে শ্রদ্ধা নিবেদন করবেন। তিন দিনের এই সফর শেষে ২৪ এপ্রিল ঢাকার উদ্দেশ্যে নয়াদিলি ত্যাগ করবেন তারা। সফর প্রসঙ্গে ওবায়দুল কাদের বলেন, এটি মূলত পার্টি টু পার্টি প্রোগ্রাম। এখানে তাদের সঙ্গে আমাদের বোঝাপড়া বাড়বে। স্বার্থ ছাড়া সম্পর্ক গড়ে ওঠে না। তবে ইন্ডিয়া মোর দেন এ নেইভার। প্রতিনিধি দলের অন্য সদস্যরা হলেন, সভাপতিমন্ডলীর সদস্য পিযুষ কান্তি ভট্টাচার্য্য, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মাহবুবউল আলম হানিফ, জাহাঙ্গীর কবির নানক, আব্দুর রহমান, প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক হাছান মাহমুদ, সাংগঠনিক সম্পাদক আহমদ হোসেন, মিজবাহউদ্দিন সিরাজ, আ. ফ. মবাহাউদ্দিন নাছিম, একেএম এনামুল হক শামীম, ব্যারিস্টার মহিবুল হাসান চৌধুরী নওফেল, দপ্তর সম্পাদক আবদুস সোবহান গোলাপ, ত্রাণ ও সমাজ কল্যাণ বিষয়ক সম্পাদক সুজিত রায় নন্দী, আন্তর্জাতিক বিষয়ক সম্পাদক ড. শাম্মী আহমেদ, মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক সম্পাদক মৃণাল কান্তি দাস, বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিষয়ক সম্পাদক ইঞ্জি. মো. আব্দুস সবুর, স্বাস্থ্য ও জনসংখ্যা বিষয়ক সম্পাদক ডা. রোকেয়া সুলতানা, উপ-প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক আমিনুল ইসলাম আমিন, নির্বাহী সদস্য মোঃ গোলাম কিবরিয়া রাব্বানী চিনু। ‘হায়াত-মউত আল্লাহর হাতে’ ওবায়দুল কাদেরের এমন বক্তব্যেকে ‘ভয়ঙ্কর অশনি সংকেত’ আখ্যায়িত করেছেন বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। এ প্রসঙ্গে সংবাদ সম্মেলনে এক প্রশ্নের জবাবে আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক কাদের বলেন, ঠিকই তো বলেছি। আমি এই রুম থেকে ওই রুমে যাওয়ার আগেও মারা যেতে পারি। উনি বামপন্থী রাজনীতি করেছেন, তাই আল্লাহ খোদায় বিশ্বাস কম।