আখেরি মোনাজাতের মধ্য দিয়ে দ্বিতীয় পর্বের বিশ্ব ইজতেমা সমাপ্ত

আখেরি মোনাজাতের মধ্য দিয়ে দ্বিতীয় পর্বের বিশ্ব ইজতেমা সমাপ্ত

আখেরি মোনাজাতের মধ্য দিয়ে দ্বিতীয় পর্বের বিশ্ব ইজতেমা শেষ হয়েছে।রাজধানীর অদূরে টঙ্গী তুরাগ তীরে অনুষ্ঠিত তিন দিনব্যাপী বিশ্ব ইজতেমার দ্বিতীয় পর্ব আজ রোববার সকাল পোনে ১১টার দিকে শেষ হয়েছে। ইজতেমা ময়দানে দেশী বিদেশী মুসল্লিসহ মুসলিম উম্মাহর মাগফিরাত-নাজাত কামনা করে সকল মুসলমানদের ভেদাভেদ ভুলে গিয়ে ঐক্যের আহ্বান জানিয়ে আখেরি মোনাজাতের মধ্যদিয়ে ইজতেমা শেষ হয়।

রোববার সকাল ১০টা ২০ মিনিটে আখেরী মোনাজাত শুরু হয়।
এবারই প্রথমবারের মতো বিশ^ ইজতেমার আখেরী মোনাজাত বাংলায় করা হয়েছে। ২৫ মিনিট স্থায়ী আখেরী মোনাজাতের প্রথম ১০ মিনিট আরবিতে ও পরের বাকি ১৫ মিনিট বাংলায় পরিচালিত হয়। আখেরী মোনাজাত পরিচালনা করেন ঢাকার কাকরাইল জামে মসজিদের পেশ ঈমাম তাবলিগ জামাতের শুরা সদস্য হাফেজ মাওলানা মোহাম্মদ জুবায়ের।

আখেরী মোনাজাতে লাখো লাখো মুসল্লির আমিন আমিন ধবনিতে টঙ্গীর তুরাগ পাড় ও চারপাশের এলাকা মুখরিত হয়ে উঠে। সুন্দর ও শান্তিপূর্ণ ভাবে এবারের বিশ^ইজতেমার  দ্বিতীয় পর্ব সম্পন্ন হয়েছে। মোনাজাতে বাংলাদেশের ১৬টি জেলার এবং  বিদেশী মুসল্লিসহ ২০ থেকে ২৫ লাখ মানুষ অংশ গ্রহন করে বলে ধারনা করছে বিশ^ইজতেমা আয়োজক কমিটি। মোনাজাতে বাংলাদেশসহ সারা বিশ্বের মুসলমানদের সুখ, শান্তি, কল্যাণ, অগ্রগতি, ভ্রাতিত্ববোধ ও মঙ্গল কামনা করা হয়।

আখেরী মোনাজাতে অংশ নেন মুক্তিযোদ্ধা বিষয়ক মন্ত্রী আ ক ম মোজাম্মেল হক, গাজীপুর-২ আসনের সংসদ সদস্য আলহাজ মো. জাহিদ হাসান রাসেল, গাজীপুর সিটি করপোরেশনের মেয়র অধ্যাপক এম এ মান্নান, গাজীপুর জেলা প্রশাসক ড. মোহাম্মদ হুমায়ুন কবীর, পুলিশ সুপার মোহাম্মদ হারুন-অর-রশীদ, গাজীপুর জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি এডভোকেট আজমত উল্লাহ খান, গাজীপুর জেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মো. মতিউর রহমান মতিসহ সরকারের বিভিন্ন পর্যায়ের উর্ধ্বতন কর্মকর্তা, র‌্যাব, পুলিশ, সেনাবাহিনীর সদস্যরা।