অশ্বিন ২ : ০ বাটলার

অশ্বিন ২ : ০ বাটলার

চলতি আইপিএলের শুরুর দিকেই ম্যানকাড বিতর্কে জড়িয়ে পড়েছিলেন রাজস্থান রয়্যালসের উইকেটরক্ষক ব্যাটসম্যান জশ বাটলার এবং কিংস এলেভেন পাঞ্জাবের অধিনায়ক রবিচন্দ্রন অশ্বিন। দুই দলের প্রথম সাক্ষাতে বাটলারকে ম্যানকাড আউট করে তুমুল সমালোচনার শিকার হয়েছিলেন অশ্বিন।

সে ম্যাচে দুর্দান্ত ব্যাট করছিলেন বাটলার। ম্যানকাড আউট হওয়ার আগে ৪৩ বলে করেছিলেন ৬৯ রান। তার দল রাজস্থানও ছিলো জয়ের পথেই। কিন্তু অশ্বিনের করা ম্যানকাডের পরই ম্যাচ থেকে ছিটকে যায় রাজস্থান। ১৪ রানের ব্যবধানে ম্যাচটি জিতে নেয় অশ্বিনের পাঞ্জাব।


সেই ম্যানকাড বিতর্কের রেশ শেষ হওয়ার আগেই মঙ্গলবার রাতে ফের মুখোমুখি হয় দুই দল। সবার আগ্রহ ছিলো এ ম্যাচে জিতবে কার দল? – সে দিকে। এ লড়াইয়ে প্রথম ম্যাচের মতোই বাটলারের রাজস্থানকে হারিয়েছে পাঞ্জাব। ব্যাট হাতে ১৭ রানের ক্যামিও এবং বল হাতে দুই উইকেট নিয়ে বাটলারদের বিপক্ষে ২-০ ব্যবধানে এগিয়ে গেল অশ্বিনের পাঞ্জাব।

ম্যাচে টসে হেরে ব্যাট করতে নেমে ১৮২ রানের বড় সংগ্রহ দাঁড় করায় পাঞ্জাব। যা তাড়া করতে নেমে ১৭০ রানের বেশি করতে পারেনি রাজস্থান। ১২ রানের জয়ে সামনে থেকে দলকে নেতৃত্ব দিয়ে ম্যাচসেরার পুরষ্কার জিতেছেন রবিচন্দ্রন অশ্বিন।

রান তাড়া করতে নেমে শুরুটা খুব একটা ভালো হয়নি রাজস্থানের। একপ্রান্ত আগলে রেখে ধীরগতির ইনিংসে ৪৫ বলে ৫০ রানের ইনিংস খেলেন ওপেনার রাহুল ত্রিপাথি। এছাড়া জশ বাটলার ১৭ বলে ২৩, সাঞ্জু স্যামসন ২১ বলে ২৭ এবং অজিঙ্কা রাহানে ২১ বলে ২৬ রান করেন।

শেষদিকে স্টুয়ার্ট বিনি ২ চার ও ৩ ছয়ের মারে মাত্র ১১ বলে খেলেন ৩৩ রানের ঝড়ো ক্যামিও। তবে এতে স্রেফ পরাজয়ের ব্যবধানই কমানো সম্ভব হয়। নির্ধারিত ২০ ওভারে ৭ উইকেট হারিয়ে ১৭০ রানে থামে রাজস্থানের ইনিংস। ৪ ওভারে ২৪ রান খরচায় ২ উইকেট নেন অশ্বিন।

এর আগে মোহালির পাঞ্জাব ক্রিকেট অ্যাসোসিয়েশন মাঠে টসে হেরে আগে ব্যাট করতে নামে পাঞ্জাব। ঝড়ের ইঙ্গিত দেন ক্রিস গেইল, রয়ে-সয়ে শুরু করেন রাহুল। ২ চার ও ৩ ছয়ের মারে ২২ বলে ৩০ রান করে আউট হয়ে যান গেইল, ধীরেসুস্থে খেলতে থাকেন রাহুল।

ইনিংসের একমাত্র ফিফটি আসে তারই ব্যাট থেকে। ইনিংসের ১৮তম ওভার পর্যন্ত খেলে ৪৭টি বল মোকাবিলা করে মাত্র ৫২ রান করেন রাহুল। ইনিংসে থাকে ৩টি চার ও ২টি ছক্কার মার।

তবে মায়াঙ্ক আগারওয়াল ১২ বলে ২৬, ডেভিড মিলার ২৭ বলে ৪০ এবং শেষদিকে অধিনায়ক রবিচন্দ্রন অশ্বিন ৪ বলে ১৭ রানের ক্যামিও ইনিংস খেললে ঠিকই ১৮২ রানের বড় সংগ্রহ পেয়েছে পাঞ্জাব।

রাজস্থানের পক্ষে বল হাতে ৪ ওভারে মাত্র ১৫ রান খরচায় ৩ উইকেট শিকার করেছেন জোফ্রা আর্চার। এছাড়া ধাওয়াল কুলকার্নি, জয়দেব উনাদকাত এবং ইশ সোধি নিয়েছেন ১টি করে উইকেট।