অভিনয়ও করেছিলেন স্টিফেন হকিং!

অভিনয়ও করেছিলেন স্টিফেন হকিং!

বিনোদন ডেস্ক : হকিং ও ওয়াইল্ডের প্রেমকাহিনি নিয়ে তৈরি হয় ‘দ্য থিওরি অব এভরিথিং’ চলচ্চিত্রটি। এখানে হকিং চরিত্রে অভিনয় করেন ব্রিটিশ অভিনেতা এডি রেডমাইন।
২০১৩ সালে হকিংকে নিয়ে তথ্যচিত্র ‘হকিং’ নির্মিত হয়। যেখানে তিনি বলেন, ‘যেকোনো দিন আমার জন্য শেষ দিন হতে পারে। তাই আমি প্রতিটি দিনের প্রতিটি মুহূর্তকে ব্যবহার করতে চাই।অভিনয়ও করেছিলেন স্টিফেন হকিং!
আধুনিক জ্যোতির্বিজ্ঞানের উজ্জ্বল নক্ষত্র স্টিফেন হকিং নিজের জীবনকে বিজ্ঞানের গবেষণায় নিবেদিত করেছিলেন, এ কথা সবার জানা। কিন্তু তিনি যে অভিনয়ও করেছিলেন, তা জানেন কি?স্টার ট্রেক: দ্য নেক্সট জেনারেশন সিক্সথ সিজনে তাকে পর্দায় দেখা গেছে নিজের চরিত্রেই। সেখানেও তিনি বিখ্যাত বিজ্ঞানী স্টিফেন হকিং হিসেবেই অভিনয় করেছিলেন।ছোট এক দৃশ্যে তাকে পোকার খেলতে দেখা গিয়েছিল লেফটেন্যান্ট কমান্ডার ডেটার সঙ্গে। পোকার টেবিলে তার সঙ্গী ছিলেন আলবার্ট আইনস্টাইন ও আইজ্যাক নিউটনের ‘লুকআলাইক’।  

হকিংয়ের প্রতিভা তাঁকে বিশ্বজোড়া খ্যাতি এনে দিয়েছিল। বিজ্ঞানকে তিনি বিপুল মানুষের কাছে নিয়ে গিয়েছিলেন। ১৯৮৮ সালে তাঁর বিখ্যাত বই ‘আ ব্রিফ হিস্ট্রি অব টাইম’ প্রকাশিত হয়। সেখানে জটিল বৈজ্ঞানিক ব্যাখ্যার বাইরে এসে তিনি মহাবিশ্বের মৌলিক তত্ত্ব তুলে ধরেছিলেন। ২০০১ সালে তাঁর আরেক বই ‘দ্য ইউনিভার্স ইন আ নাটশেল’ প্রকাশিত হয়। ২০০৭ সালে তাঁর শিশুতোষ বই ‘জর্জস সিক্রেট কি টু দ্য ইউনিভার্স’ প্রকাশিত হয়। পপ তারকা পিংক ফ্লয়েডের গানে তাঁর কণ্ঠ শোনা গেছে।

জটিল বৈজ্ঞানিক তত্ত্ব নিয়ে সারা জীবন কাটলেও রাজনীতি নিয়েও কখনো কখনো সরব হয়েছেন। মার্কিন নির্বাচনের আগে রিপাবলিকান পার্টির প্রার্থী ডোনাল্ড ট্রাম্পের বুদ্ধিমত্তার নিম্নমান নিয়ে কথা বলেছিলেন তিনি। ইউরোপীয় ইউনিয়ন থেকে যুক্তরাজ্যের বের হয়ে যাওয়ার আগেও তিনি সরব ছিলেন। হকিং ১৯৬৫ সালে জেন ওয়াইল্ডকে বিয়ে করেছিলেন। এ দম্পতির তিন সন্তান ছিল। ২৫ বছর একসঙ্গে থাকার পর তাঁদের বিচ্ছেদ হয়। পরে তিনি এলাইন ম্যাসন নামের এক সেবিকাকে বিয়ে করেন। তবে এ সম্পর্কও ভেঙে যায়।