অপর নেতাসহ আহত ৩

বগুড়ায় অভ্যন্তরীণ কোন্দলে স্বেচ্ছাসেবক দলের নেতা খুন

 বগুড়ায় অভ্যন্তরীণ কোন্দলে স্বেচ্ছাসেবক দলের নেতা খুন

স্টাফ রিপোর্টার : বগুড়া সদরের গোকুলে স্বেচ্ছাসেবক দলের নেতা মোঃ সনি (২৫) কে ছুরিকাঘাত করে ও কুপিয়ে হত্যা করা হয়েছে। এছাড়া এ ঘটনায় স্বামী-স্ত্রীসহ আরও তিনজনকে কোপানো হয়েছে। আহতরা হলেন গোকুল উত্তর পাড়ার বাসিন্দা ইউনিয়ন স্বেচ্ছাসেবক দলের সভাপতি মিজানুর রহমান মিজান (৩০), তার স্ত্রী সালমা আক্তার (২৫) ও পলাশবাড়ী গ্রামের আলাল উদ্দিনের ছেলে হাকিম (২৫)। এদের মধ্যে মিজানের অবস্থা সংকটাপন্ন। তাকে উন্নত চিকিৎসার জন্য ঢাকায় পাঠানো হয়েছে।   তদন্তকারী কর্মকর্তা সদর থানার ইন্সপেক্টর (তদন্ত) মোঃ কামরুজ্জামান মিয়া জানান, স্বেচ্ছাসেবক দলের অভ্যন্তরীণ কোন্দলের জের হিসেবে এ খুন ও হামলার ঘটনা ঘটেছে। তিনি জানান, এলাকায় আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে গোকুল ইউনিয়ন স্বেচ্ছাসেবকদলের সভাপতি মিজানুর রহমান মিজান ও সাবেক সাধারণ সম্পাদক বিপুলের গ্রুপের মধ্যে দ্বন্দ্ব চলে আসছিল।

 এর ধারাবাহিকতায় তিন-চার দিন আগে মিজান গ্রুপ হামলা চালিয়ে বিপুল গ্রুপের কয়েকজনকে আহত করে। পরে এর জের হিসেবে গতকাল শুক্রবার বেলা সাড়ে ১১টায় দিকে বিপুল গ্রুপের লোকজন গোকুল উত্তর পাড়ায় হামলা চালায়। এ সময় তারা সনি, মিজান, তার স্ত্রী সালমা ও হাকিমকে উপর্যুপরি ছুরিকাঘাত ও রামদা দিয়ে কুপিয়ে চলে যায়। পরে স্থানীয় লোকজন তাদের উদ্ধার করে বগুড়া শহীদ জিয়াউর রহমান মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করে দেয়। সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় বেলা সাড়ে ৩টার দিকে স্বেচ্ছাসেবক দলের ইউনিয়ন কমিটির যুগ্ম সম্পাদক সনি মারা যায়। তিনি গোকুল মধ্যপাড়ার জামাত আলীর ছেলে। মেডিকেল ফাঁড়ির ইনচার্জ আজিজ মন্ডল জানান, আহত মিজানের অবস্থা আশংকাজনক। তাকে উন্নত চিকিৎসার জন্য গতকাল বিকাল ৫টার দিকে ঢাকায় প্রেরণ করা হয়েছে। তবে এ হত্যার ঘটনায় গতরাত সাড়ে ৮টা পর্যন্ত থানায় কোন মামলা দায়ের হয়নি। মামলা দায়েরের প্রস্তুতি চলছিল বলে ইন্সপেক্টর মোঃ কামরুজ্জামান মিয়া জানিয়েছেন।