নারায়ণগঞ্জে বাড়ির মালিককে অচেতন করে লুটপাট

 নারায়ণগঞ্জে বাড়ির মালিককে অচেতন করে লুটপাট

নারায়ণগঞ্জ প্রতিনিধি : নারায়ণগঞ্জে বাড়ির মালিকসহ তার পরিবারের নয় সদস্যের সবাইকে অচেতন করে এক ভাড়াটিয়া মালপত্র লুট করে নিয়ে গেছে বলে পুলিশ জানিয়েছে। ফতুল্লা মডেল থানার ওসি মঞ্জুর কাদের বলেন, সদর উপজেলার পাগলা দেলপাড়া এলাকায় একতা হাউজিং সোসাইটিতে এ ঘটনা ঘটে। অচেতন নয়জনকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে জানিয়ে তিনি বলেন, বাড়ির মালিক সেনাবাহিনীর অফিস সহকারী আলী আহাম্মেদ। বাড়িটির চারতালার ভাড়াটিয়া মঙ্গলবার রাতে আলী আহাম্মদের পরিবারকে দাওয়াত দেন। পরিবারের নয় সদস্য দাওয়াত খেয়ে নিজেদের ফ্ল্যাটে ফিরে অচেতন হয়ে পড়েন। পরে তাদের মালপত্র লুট করে ভাড়াটিয়া পালিয়ে যান। তবে পুলিশ ভাড়াটিয়ার নাম বলতে পারেনি। ভাড়াটিয়াকে খোঁজা হচ্ছে বলে জানান ওসি মঞ্জুর কাদের। অচেতন সদস্যরা হলেন - আলী আহাম্মদ (৭০), তার স্ত্রী আমিরুন নেছা (৬০), মেয়ে জোহরা বেগম (৪০), পুত্রবধূ কামরুন নাহার (৩০), নাতি আলী হোসেন (৯), নূর জান্নাত (৯), সালমা (২১), হাবিবা (১৯) ও সুমাইয়া (৬। আমিরুন নেছার ভাতিজি রোখসানা বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমকে বলেন, তিনি পাশের বাড়িতে থাকেন। সকালে এসে ফ্ল্যাটের দরজা খোলা দেখতে পাই। ঘরের সব মালপত্র এলোমেলো ছড়িয়ে-ছিটিয়ে পড়ে আছে। বাসার সবাই বিভিন্ন রুমে অচেতন। কেউ কেউ বমি করেছে। পরে প্রতিবেশীদের সহযোগিতায় তাদের হাসপাতালে পাঠান বলে তিনি জানান। পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছে জানিয়ে ওসি মঞ্জুর কাদের বলেন, পরিবারের লোকজনকে খাবারের সঙ্গে নেশাজাতীয় দ্রব্য খাইয়ে অচেতন করে মালপত্র লুট করে নিয়ে গেছে ভাড়াটিয়া। ভাড়াটিয়া পলাতক রয়েছে। ঘটনাটি ডাকাতি নয়। চুরি হয়েছে। প্রয়োজনীয় প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়া হবে।