রাজশাহী মহাসড়ক অবরোধ

নওগাঁয় ট্রাক চাপায় মা ও ২মেয়েসহ নিহত ৩, বাবা গুরুতর আহত

 নওগাঁয় ট্রাক চাপায় মা ও ২মেয়েসহ  নিহত ৩, বাবা গুরুতর আহত

নওগাঁ প্রতিনিধিঃ নওগাঁয় ট্রাক চাপায় মা আদরী বেগম ও মেয়ে সম্পা ও সুমী নিহত হয়েছে।  সোমবার সকালে নওগাঁ-রাজশাহী মহাসড়কের বটতলী নামক স্থানে এই সড়ক দুর্ঘটনা ঘটেছে। দুর্ঘটনায় আদরী বেগমের বাবা আব্দুল জলিল ও আরেক মেয়ে সুমীকে গুরুতর আহত অবস্থায় নওগাঁ সদর হাসাপাতালে ভর্তি করা হলে চিকিৎসাধীন অবস্থায় সুমীর মৃত্যু হয়। নিহত আদরী সদর উপজেলার ধোপাইপুর গ্রামের শহীদ এর স্ত্রী।
নওগাঁ ফয়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্সের উপ-পরিচালক একেএম মুর্শেদ জানান গত রোববার আদরী বেগমের মা মারা গেলে মাকে দেখার জন্য তিনি স্বপরিবারে সদর উপজেলার হাপানিয়া উল্লাসপুর গ্রামে আসেন। সোমবার সকালে স্বামীর বাড়ি সদর উপজেলার চকআতিথা ধোপাইপুর গ্রামে যাবার জন্য নওগাঁ-রাজশাহী মহাসড়কের বটতলী নামক স্থানে যানবাহনের জন্য সড়কের পাশে আদরী বেগম, মেয়ে সম্পা, সুমী ও তার বাবা আব্দুল জলিলকে নিয়ে অপেক্ষা করছিলেন।

 এমতাবস্থায় নওগাঁ থেকে আসা একটি নিয়ন্ত্রনহীন ট্রাক  (নং-ঢাকা মেট্টো-ট ১৮-২০০০) তাদেরকে চাপা দিলে ঘটনাস্থলেই আদরী বেগম ও তার মেয়ে সম্পা (৬) ট্রাকের চাপায় পিষ্ট হয়ে নিহত হন। এ ঘটনায় আদরী বেগমের বাবা আব্দুল জলিল (৬৫) ও অপর মেয়ে সুমী পারভিন (৪) গুরুতর আহত হলে তাদেরকে নওগাঁ সদর হাসপাতালে ভর্তি করলে চিকিৎসাধীন অবস্থায় সুমীর মৃত্যু হয়। আব্দুল জলিলের অবস্থার অবনতি হলে পরে তাকে রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে স্থানান্তর করা হয়। পুলিশ লাশগুলো ময়না তদন্তের জন্য নওগাঁ সদর হাসপাতাল মর্গে প্রেরণ করেছে।

এ ঘটনায় বিক্ষুদ্ধ গ্রামবাসী ঘাতক ট্রাককে আটক করলেও  ট্রাকের চালক ও হেলপার পালিয়েছে। দুর্ঘটনার খবর পেয়ে জেলা প্রশাসক মোঃ হারুন-অর-রশীদ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন। নিহতদের প্রত্যেককে ২০ হাজার টাকা ও গুরুতর আহতকে ১০ হাজার টাকাসহ মোট ৭০ হাজার টাকা তাৎক্ষনিক প্রদান করেন। দুর্ঘটনার পর থেকে বিক্ষুদ্ধ গ্রামবাসী নওগাঁ-রাজশাহী মহাসড়ক অবরোধ করে রাখে। ঘটনাস্থলের দুই পাশে যানবাহন চলাচল করতে না পারার কারণে চরম ভোগান্তিতে পড়তে হয়েছে যাত্রীদের। তবে জেলা প্রশাসন ও পুলিশ প্রশাসনের কর্মকর্তাগন ঘটনাস্থলে গিয়ে ট্রাক চালক ও হেলপারকে গ্রেফতার করে বিচারের আশ্বাস দিলে অবরোধ তুলে নেয়।