আবরার হত্যা মামলা

দ্রুত বিচার ট্রাইব্যুনালে করার দাবি ১৪ দলের

 দ্রুত বিচার ট্রাইব্যুনালে করার দাবি ১৪ দলের

স্টাফ রিপোর্টার : বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয়ের (বুয়েট) শিক্ষার্থী আবরার ফাহাদ হত্যাকান্ডের বিচার দ্রুত বিচার ট্রাইব্যুনালে করার দাবি জানিয়েছে আওয়ামী লীগের নেতৃত্বাধীন কেন্দ্রীয় ১৪ দল। গতকাল শুক্রবার দুপুরে রাজধানীর বঙ্গবন্ধু অ্যাভিনিউয়স্থ আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে জোটের এক বৈঠক শেষে এ দবি মুখপাত্র ও আওয়ামী লীগের সভাপতিমন্ডলীর সদস্য মোহাম্মদ নাসিম। সংবাদ সম্মেলনে বুয়েট শিক্ষার্থী হত্যার ঘটনায় নিন্দা জানিয়ে তিনি বলেন, দ্রুত সময়ে মধ্য এই ঘাতকদের বিচার করতে হবে।

 দ্রুতবিচার আইনের আওতায় এনে দ্রুতবিচার ট্রাইব্যুনাল গঠন করে আবরার ফাহাদ হত্যার বিচার করতে হবে। মোহাম্মদ নাসিম বলেন, বিগত দিনে দেশে যত হত্যা কান্ড সংঘটিত হয়েছিল এই সরকার সব হত্যাকান্ডের বিচার করেছে। অতীতে যেমন কোন অপরাধীকে ছাড় দেওয়া হয়নি, তেমনি দ্রুত সময়ের মধ্য আবরার হত্যাকান্ডের বিচার হবে। তিনি বলেন, কিছু চেনা মুখ অশুভ শক্তি এই দুঃখজনক ঘটনাকে কেন্দ্র করে ঘোলা পানিতে মাছ শিকারের পায়তারা করছে। বিএনপি এই ঘটনার বিচার যত না চায় তার চেয়ে ঘোলা পানিতে মাছ শিকার সরকারকে বেশী প্রশ্নবিদ্ধ করতে চায়। এক প্রশ্নের জবাবে নাসিম বলেন, কেন্দ্রীয় ১৪ দল ছাত্র রাজনীতি বন্ধের পক্ষে নয়। সুষ্ঠ ধারার ছাত্র রাজনীতি আমরা চাই।

 তিনি বলেন, এক জন ছাত্রের হত্যাকান্ডের পর বুয়েটের ভিসি কেন দেখতে গেলেন না। এক জন ভিসির কাছ থেকে এটা আমরা আশা করিনি। এই হত্যাকান্ড অত্যন্ত দুঃখজনক, বেদনাদায়ক। আমরা ভিন্ন মতকে গ্রহণ করতে চাই। কিন্তু কিছু দুবৃত্ত এই ঘটনা ঘটিয়েছে। এই সব ঘটনার বিরুদ্ধে বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষকে কঠোর ব্যবস্থা নেওয়া উচিত। তিনি জানান, আগামী ২২ অক্টোবর কেন্দ্রীয় ১৪ দল ভারতের সঙ্গে বাংলাদেশের যে সমঝোতা চুক্তি হয়েছে সেটা নিয়ে গোলটেবিল আলোচনা করবে। সেই সঙ্গে আগামী ২৩ অক্টোবর ১৪ দল রোহিঙ্গা ইস্যু নিয়ে আরেকটি গোলটেবিল বৈঠকের আয়োজন করবে। জাসদ সভাপতি হাসানুল হক ইনু বলেন, ভারতের সঙ্গে যে ৫৩টি সমঝোতা চুক্তি হয়েছে তার মধ্যে কোনটি দেশের স্বার্থ বিরোধী সেট্ াসুনির্দিষ্ট করে প্রমাণ করার চ্যলেঞ্জ দিচ্ছি। ফেনীর নদীর যে পরিমাণ পানি ভারতকে দেওয়া হবে তাতে সেটাতে পরিবেশ প্রকৃতির উপর কোনো প্রভাব পড়বে না।

বৈঠকে কেন্দ্রীয় ১৪ দলের পক্ষ্য থেকে এই বেদনা দায়ক ঘটনায় বুয়েট ছাত্র আবরারের পিতা মাতাসহ পরিবারের সকলের প্রতি গভীর সমবেনা জানানো হয়। এর আগে মোহাম্মদ নাসিমের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত বৈঠকে উপস্থিত ছিলেন আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক ও নৌপরিবহন প্রতিমন্ত্রী খালিদ মাহমুদ চৌধুরী, উপ-দপ্তর সম্পাদক ব্যারিস্টার বিপ্লব বড়–য়া, সাম্যবাদী দলের সাধারণ সম্পাদক দিলীপ বড়–য়া, ওয়ার্কার্স পার্টির সাধারণ সম্পাদক ফজলে হোসেন বাদশা, জাতীয় পাটির(জেপি) সাধারণ সম্পদাক শেখ শহীদুল ইসলাম, গণতন্ত্রী পার্টির সধারণ সম্পাদক ডা. শাহাদাৎ হোসেন, জাসদের সাধারণ সম্পাদক শিরীন আখতার, কমউনিস্ট কেন্দ্রের আহবায়ক ড. ওয়াজেদুল ইসলাম খান, ঢাকা মহানগর দক্ষিন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক শাহে আলম মুরাদ, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ডা. দিলীপ রায়  প্রমুখ।