১৩ হাজার ৮৬১ জন নারী, ৩ হাজার ৫২৮জন শিশু

চার বছরে ধর্ষণ মামলা ১৭ হাজারের বেশি

 চার বছরে ধর্ষণ মামলা ১৭ হাজারের বেশি

সংসদ রিপোর্টার : দেশে গত চার বছরে ১৭ হাজারের বেশি নারী ও শিশু ধর্ষণ মামলা হয়েছে বলে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খাঁন কামাল জানিয়েছেন।  রোববার সংসদে এক প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, ২০১৪ সালের জানুয়ারি থেকে ২০১৭ সালের ডিসেম্বর পর্যন্ত দেশে নারী ও শিশু ধর্ষণ সংক্রান্ত ১৭ হাজার ২৮৯টি মামলা রুজু হয়েছে। এসব মামলায় ভিকটিমের সংখ্যা ১৭ হাজার ৩৮৯ জন। এর মধ্যে ১৩ হাজার ৮৬১ জন নারী ও তিন হাজার ৫২৮জন শিশু।

এই চার বছরে তিন হাজার ৪৩০টি ধর্ষণ মামলার বিচার শেষ হওয়ার তথ্য দিয়ে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, নিষ্পত্তি হওয়া মামলাগুলোতে ১৭ জনকে মৃত্যুদণ্ড, ৮০ জনকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড, ৫৭৬ জনকে বিভিন্ন মেয়াদে সাজাসহ মোট ৬৭৩ জনকে শাস্তির আওতায় আনা হয়েছে।

আরেক প্রশ্নের জবাবে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের পলাতক খুনিরা যাতে অন্য কোনো দেশের নাগরিকত্ব গ্রহণ করতে না পারে সেজন্য সংশ্লিষ্ট দেশগুলোকে (যুক্তরাষ্ট্র, কানাডা ইত্যাদি)  অনুরোধ করা হয়েছে। পলাতক খুনিদের ফিরিয়ে এনে দণ্ড কার্যকরে টাস্কফোর্স কাজ করছে জানিয়ে তিনি বলেন, জাতির পিতার খুনিদের দেশে ফিরিয়ে এনে দণ্ড কার্যকরে ইতোমধ্যে ইন্টারপোলের মাধ্যমে বিশ্বের গুরুত্বপূর্ণ আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে খুনিদের ছবি সম্বলিত তথ্য প্রেরণ করে তাদের অবস্থান চিহ্নিত করতে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়েছে। পলাতক আসামিদের মধ্যে বরখাস্ত লেফটেন্যান্ট কর্নেল খন্দকার আবদুর রশিদের মালিকানাধীন ১৬ দশমিক ৯৪২৫ একর এবং রাশেদ চৌধুরীর এক দশমিক ১৫ একর জমি বাজেয়াপ্ত করে খাস খতিয়ানভুক্ত করা হয়েছে বলে জানান স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী। প্রশ্নোত্তরে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী জানান, দেশের কারাগারগুলোতে সাজাপ্রাপ্ত কয়েদির সংখ্যা ১৫ হাজার ৯১৯ জন। এর মধ্যে পুরুষ ১৫ হাজার ৩৭৪জন এবং মহিলা ৫৪৫ জন।