পাটকল শ্রমিক ধর্মঘট

খুলনায় পুলিশ বক্সে হামলা মামলায় আসামি ৩০০

 খুলনায় পুলিশ বক্সে হামলা মামলায় আসামি ৩০০

খুলনা প্রতিনিধি : পাটকলের শ্রমিকদের ধর্মঘট-অবরোধের সময় মধ্যে খুলনায় পুলিশ বক্সে হামলার ঘটনায় অজ্ঞাত পরিচয় ৩০০ জনের বিরুদ্ধে মামলা হয়েছে। বৃহস্পতিবার দুপরে নগরীর নতুন রাস্তা মোড়ে পাবলা পুলিশ বক্সে এ হামলার ঘটনায় চার পুলিশ আহত হন। দৌলতপুর থানার ওসি কাজী মোস্তাক আহমেদ জানান, এ ঘটনায় এসআই অমিত কুমার বাগচী বাদী হয়ে রাতেই মামলাটি দায়ের করেন। পাটকল শ্রমিকদের বিক্ষোভের মধ্যে নতুন রাস্তা মোড়ের পুলিশ বক্সে এক শ্রমিককে আটকে রাখার গুজব ছড়িয়ে পড়লে আন্দোলনকারীরা সেখানে ঢিল ছোড়ে এবং ভাংচুর চালায়। এ সময় এক পরিদর্শকসহ চার কনস্টেবল আহত হলে তাদের খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয় বলে জানান ওসি। তিনি আরও বলেন, পুলিশ বক্সে ভাংচুর, চার পুলিশ সদস্য আহত ও সরকারি কাজে বাধা দেয়ার অভিযোগ এনে এ মামলাটি দায়ের করা হয়।

মজুরি কমিশনের সুপারিশ বাস্তবায়নসহ নয় দফা দাতিতে পাটকল শ্রমিক লীগ সিবিএ ননসিবিএ পরিষদের ডাকে মঙ্গলবার ভোর থেকে টানা ৭২ ঘণ্টার কর্মবিরতি পালন করেন পাটকল শ্রমিকেরা । এছাড়া প্রতিদিন সকাল ৮টা থেকে বেলা ১২টা পর্যন্ত সড়ক-রেলপথ অবরোধ কর্মসূচিও করেন তারা। সরকার ঘোষিত জাতীয় মজুরি ও উৎপাদনশীলতা কমিশন-২০১৫ এর সুপারিশ বাস্তবায়ন, অবসরপ্রাপ্ত শ্রমিক কর্মচারীদের প্রভিডেন্ড ফান্ড-গ্র্যাচুইটি ও মৃত শ্রমিকের বীমার বকেয়া প্রদান, বরখাস্ত শ্রমিকদের কাজে পুনর্বহাল, শ্রমিক-কর্মচারীদের নিয়োগ ও স্থায়ী করা, পাট মৌসুমে পাট কেনার বরাদ্দ বাড়ানো, উৎপাদন বৃদ্ধির লক্ষ্যে মিলগুলোকে পর্যায়ক্রমে ‘বিএমআরই’ করার দাবি রয়েছে এই নয় দফার মধ্যে। খুলনার রাষ্ট্রয়াত্ত ক্রিসেন্ট, প্লাটিনাম, খালিশপুর, দৌলতপুর, স্টার, আলিম, ইস্টার্ন জুট মিল এবং যশোরের কার্পেটিং ও জেজেআই জুট মিলে বর্তমানে ১৩ হাজার ২৭১ জন শ্রমিক কর্মরত রয়েছে।