অনিরাপদ সড়ক

 অনিরাপদ সড়ক

দেশে সড়ক দুর্ঘটনা বেড়েই চলেছে। কোনোভাবেই কমানো যাচ্ছে না। চলতি বছরের প্রথম ছয় মাসে ২ হাজার ১৫৯টি সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত হয়েছে ২ হাজার ৩২৯ জন। এদের মধ্যে ২৯১ জন নারী ও ৩৮১ জন শিশু। আর এসব দুর্ঘটনায় ৪ হাজার ৩৬১ জন আহত হয়। দেশের বিভিন্ন মহাসড়ক, জাতীয় সড়ক, আন্ত: জেলা সড়ক ও আঞ্চলিক সড়কে ১ জানুয়ারি থেকে ৩০ জুন পর্যন্ত এসব দুর্ঘটনা ঘটে। সাংবাদিকদের সংগঠন শিপিং অ্যান্ড কমিউনিকেশন রিপোর্টার্স ফোরাম (এসসিআরএফ) ২২টি দেশের গণমাধ্যমের তথ্য উপাত্তের ভিত্তিতে এ প্রতিবেদন তৈরি করেছে। বলার অপেক্ষা রাখে না, সড়ক দুর্ঘটনার পরিপ্রেক্ষিতে এখন মনে হয়, যেন মানুষের জীবন কত তুচ্ছ। দুর্ঘটনায় ঝরে যাচ্ছে একেকটি তরতাজা প্রাণ। কোমলমতি শিশুরাও রক্ষা পাচ্ছে না। সঙ্গত কারণেই সড়ক দুর্ঘটনা রোধে দ্রুত কার্যকর পদক্ষেপ নেয়া অপরিহার্য বলেই প্রতীয়মান হয়।

এ কথাও মনে রাখতে হবে, যোগ্য ও দক্ষ লোকেরাই যেন গাড়ি চালানোর লাইসেন্স পায় তা নিশ্চিত করার দায়িত্ব বিআরটিএর। এখন দেশের প্রধান সমস্যা সড়ক দুর্ঘটনায় অকালে মানুষের মৃত্যু। এর ফলে একদিকে যেমন দেশের ভাবমূর্তি নষ্ট হচ্ছে, অন্যদিকে জন নিরাপত্তা বিঘিœত হচ্ছে। সড়ক দুর্ঘটনা অপ্রতিরোধ্য কোনো বিষয় নয়। দরকার শুধু সদিচ্ছা। সে জন্য সড়ক-মহাসড়কে ট্রাফিক শৃঙ্খলাও ঢেলে সাজাতে হবে। লাইসেন্স বিহীন যানচালক, ফিটনেসবিহীন যানবাহন যেন রাস্তায় নামতে না পারে তা সর্বাগ্রে নিশ্চিত করা প্রয়োজন। আর অবসান ঘটাতে হবে বিচারহীনতার সংস্কৃতির। পাশাপাশি বিআরটিএ সহ সংশ্লিষ্ট প্রতিটি পক্ষের দায়িত্বহীনতা ও জনসচেতনতা বাড়ানোর মধ্য দিয়ে সড়ক দুর্ঘটনারোধে তৎপর হওয়া এখন সময়ের দাবি।  মহাসড়কে মৃত্যুর এই মিছিল আমরা অনন্তকাল চলতে দিতে পারি না।