অনিরাপদ সড়ক

 অনিরাপদ সড়ক

একের সব এক সড়কে মৃত্যুর ঘটনা ঘটছেই। শিক্ষার্থীদের নিরাপদ সড়ক আন্দোলন, সড়ক নিয়ে নানা পরিকল্পনা, দুর্ঘটনার জন্য নতুন শাস্তির বিধান চালক ও নাগরিক সচেতনতা বৃদ্ধির প্রচেষ্টা কোনো কিছুই রোধ করতে পারছে না সড়ক দুর্ঘটনা। অবস্থা এমন দাঁড়িয়েছে যে, সড়ক পথে মানুষের নিরাপত্তা বলে কিছু নেই। প্রতিদিনই সড়ক দুর্ঘটনায় মানুষ মারা যাচ্ছে অত্যন্ত নির্মমভাবে ছয় জেলায় গত বুধ ও বৃহস্পতিবার সড়ক দুর্ঘটনায় ১২ জন নিহত হয়েছে। কক্সবাজারে চকোরিয়ায় এক, রাজশাহীর বাঘায় তিন, নাটোরের বড়াইগ্রামে দুই, দিনাজপুরের খানসামায় এক, টাঙ্গাইলে এক, বাগেরহাটে তিন ও মাদারীপুরে একজন নিহত হয়েছেন। সড়ক দুর্ঘটনা এক জাতীয় দুর্বিপাকের নাম। বাংলাদেশে সড়ক দুর্ঘটনায় প্রতি বছর কয়েক হাজার মানুষের মৃত্যু হয়। যথাযথ প্রশিক্ষণ ছাড়া এমনকি লাইসেন্স ছাড়াই গাড়ি চালানো, ফিটনেসবিহীন গাড়ি, গাড়ি চালকদের পাল্লাপাল্লি সড়ক দুর্ঘটনার অন্যতম কারণ।

মূলত বেপরোয়া গতিতে চালিয়ে দুর্ঘটনার শিকার হলেও এ প্রবণতা বন্ধ না হওয়ার অন্যতম কারণ হচ্ছে এসবের দায়ে চালকের উপযুক্ত শাস্তি বা বিচার হয় না। আমরা মনে করি সড়ক দুর্ঘটনা অপ্রতিরোধ্য কোনো বিষয় নয়। দরকার শুধু সদিচ্ছার। সে জন্য সড়ক-মহাসড়কে ট্রাফিক শৃঙ্খলা ঢেলে সাজাতে হবে। লাইসেন্স বিহীন যানচালক, ফিটনেসবিহীন যানবাহন যেন রাস্তায় নামতে না পারে, তা সর্বাগ্রে নিশ্চিত করা প্রয়োজন। আর অবসান ঘটাতে হবে বিচারহীনতার সংস্কৃতির। পাশাপাশি সংশ্লিষ্ট সরকারি সংস্থাসহ প্রতিটি পক্ষের দায়িত্বশীলতা ও জনসচেতনতা বাড়ানোর মধ্য দিয়ে সড়ক দুর্ঘটনা রোধে তৎপর হওয়া এখন সময়ের দাবি। উন্নয়নের মহাসড়কে নির্বিঘেœ চলতে চাইলে বেশ কিছু বিষয়ে থাকতে হবে দ্ব্যর্থহীন অঙ্গীকার-নিরাপদ সড়ক ও সড়কে সুশাসন প্রতিষ্ঠা যেন তালিকায় অবশ্যই থাকে ওপরের দিকে।