সকাল ৮:০৯, বুধবার, ১৮ই অক্টোবর, ২০১৭ ইং
/ বরিশাল

বরিশালের উজিরপুর উপজেলায় ‘প্রেমের প্রস্তাব প্রত্যাখ্যান করায়’ এক কলেজ ছাত্রীকে কুপিয়ে জখম করেছে এক যুবক। শনিবার রাত ৮টার দিকে ধামুরা স্কুলের সামনে এ ঘটনা ঘটে উজিরপুর থানার এসআই জসিম উদ্দিন জানান।

গুরুতর জখম শান্তা আক্তারকে (১৮) বরিশাল শের-ই বাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। এসআই জসিম উদ্দিন জানান, বরিশাল সরকারি বিএম কলেজের ছাত্রী আগৈলঝাড়ার রত্নপুর গ্রামের মোস্তফা হাওলাদারের মেয়ে শান্তাকে দীর্ঘদিন প্রেমের প্রস্তাব দিয়ে আসছিল উজিরপুরের কাংশি গ্রামের ফজলুল সরদারের ‘বখাটে’ ছেলে আলাল।

“কিন্তু শান্তা প্রেমের প্রস্তাব প্রত্যাখান করায় ক্ষিপ্ত হয় সে। “এর জেরে রাতে দুই সহপাঠীর সঙ্গে ভ্যানযোগে বাড়ি ফেরার পথে শান্তার উপর হামলা চালায় আলাল। সে শান্তাকে ধারালো ক্ষুর দিয়ে কুপিয়ে জখম করে।”

‘বখাটে’ আলালকে গ্রেপ্তারের চেষ্টা চলছে বলে জানান এসআই জসিম।

 

পিরোজপুরে ডোবায় অজ্ঞাত নারীর লাশ

পিরোজপুরে ইন্দুরকানী উপজেলায় অজ্ঞাত পরিচয় এক নারীর লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ।

রোববার দুপুরে উপজেলার পত্তাশী ইউনয়িনের দক্ষিণ ইন্দুরকানি গ্রামের একটি ডোবা থেকে লাশটি তারা উদ্ধার করেন বলে ইন্দুরকানী থানার ওসি মো.নাসির উদ্দিন জানান।

নিহতের বয়স ২০ থেকে ২২ বছর বলে ধারণা করলেও তাৎক্ষণিকভাবে তার নাম-পরিচয় নিশ্চিত করতে পারেনি পুলিশ।

পত্তাশী ইউনিয়ন পরিষদের ৩ নম্বর ওয়ার্ডের সদস্য দিপঙ্কর চন্দ্র ঢালী দিপু বলেন, দুপুরে দক্ষিণ ইন্দুরকানি গ্রামের একটি পরিত্যক্ত বাড়ির সামনের একটি ডোবায় সুপারি পাতা দিয়ে ঢাকা এক নারীর লাশ দেখতে পেয়ে স্থানীয়রা থানায় খবর দেয়।

পরে পুলিশ গিয়ে অর্ধগলিত লাশটি উদ্ধার করে বলে জানান তিনি।

ওসি নাসির বলেন, “ লাশে পচন ধরায় নিহতের চেহারা চিহ্নিত করা যাচ্ছে না। তাকে ৭/৮ দিন আগে হত্যার পর গুম করার জন্য লাশ ডোবায় ফেলে সুপারি পাতা দিয়ে ঢেকে রাখা হয়েছিল বলে প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হচ্ছে।”

লাশ ময়নাতদন্তের জন্য পিরোজপুর সদর হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে।

স্বামীকে আটকে রেখে শ্রেণিকক্ষে শিক্ষিকাকে গণধর্ষণে মামলা

বরগুনা প্রতিনিধি: বরগুনার বেতাগীতে স্বামীকে আটকে রেখে প্রাথমিক বিদ্যালয়ের এক সহকারী শিক্ষিকাকে শ্রেণিকক্ষে গণধর্ষণের অভিযোগে মামলা হয়েছে। ছয়জনকে আসামি করে বৃহস্পতিবার রাত সাড়ে ১১টার দিকে বেতাগী থানায় মামলাটি করেন ওই শিক্ষিকা।গতকাল শুক্রবার সকাল দশটার দিকে ধর্ষিতাকে ডাক্তারি পরীক্ষার জন্য বরগুনা জেনারেল হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন বরগুনার পুলিশ সুপার বিজয় বসাক।

 মামলার আসামিরা হলেন- উপজেলার হোসনাবাদ ইউনিয়নের কদমতলা গ্রামের মো. হিরন বিশ্বাসের ছেলে সুমন বিশ্বাস (৩৫), আব্দুল বারেক মিয়ার ছেলে মো. রাসেল (২৪), আ. কুদ্দুস কাজীর ছেলে সুমন কাজী (৩০), মো. সুলতান হোসেনের ছেলে মো. রবিউল (১৮), আ. রহমানের ছেলে মো. হাসান (২৫) ও মো. আবদুর রহমান হাওলাদারের ছেলে মো. জুয়েল (৩০)। মামলায় অভিযোগ করা হয়েছে, ওই শিক্ষকা ও তার স্বামী বৃহস্পতিবার ছুটির পরে বিদ্যালয়ে বসে কথা বলছিলেন।

 এ সময় আসামিরা ভেতরে ঢুকতে চাইলে ভয়ে স্কুলের প্রধান দরজায় তালা লাগিয়ে বন্ধ করে দেন শিক্ষিকা। আসামিরা দরজা ভেঙে ভেতরে ঢুকে তার স্বামীকে এলোপাতাড়ি মারধর করে একটি শ্রেণিকক্ষে আটকে রাখেন। পরে অন্য একটি শ্রেণিকক্ষে স্কুল শিক্ষিকাকে পালাক্রমে ধর্ষণ করে চলে যান। বেতাগী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. মামুন-অর-রশিদ   জানান, আসামিদের গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে।

 

গৌরনদীতে বাসচাপায় অজ্ঞাত নারী নিহত

বরিশাল প্রতিনিধি: বরিশাল-ঢাকা মহাসড়কে গৌরনদী উপজেলার বাটাজোরে যাত্রীবাহী বাসের চাপায় অজ্ঞাত পরিচয় (৫০) এক নারী নিহত হয়েছেন। গতকাল শুক্রবার বেলা ১২টার দিকে এ দুর্ঘটনা ঘটে। তবে তাৎক্ষণিকভাবে নিহত ওই নারীর নাম-পরিচয় জানা যায়নি।

গৌরনদী হাইওয়ে থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. শাহাদাত হোসেন  বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেন, ভুরঘাটার থেকে হিমেল-হিরক নামের একটি যাত্রীবাহী বাস বরিশালের দিকে যাচ্ছিলো। বাটাজোর স্ট্যান্ড এলাকয় পৌঁছলে বাসটি এক নারীকে চাপা দেয়। এতে ঘটনাস্থলেই তার মৃত্যু হয়। তবে স্থানীয়রা ঘাতক বাসটিকে আটক করেছে। ওই নারীর নাম-পরিচয় জানার চেষ্টা চলছে বলেও জানান তিনি।

 

বরিশালে গাছচাপায় নিহত ২

বরিশালের হিজলায় গাছচাপা পড়ে অটোরিকশা চালকসহ দুই নিহত ও আহত হয়েছেন আরও একজন। মঙ্গলবার রাত ৯টার দিকে উপজেলার পূর্বকা‌ন্দিতে এ ঘটনা ঘটে বলে হিজলা থানার ওসি এসএম মাকসুদুর রহমান জানান।

এরা হলেন, অটোচালক নোমান সরদার (২০) ও যাত্রী বকুল দেবনাথ (৩০)। আহত রা‌জিবকে (১৬)স্থানীয় একটি হাসপাতালে চিকিৎসা দেওয়া হচ্ছে।

ওসি মাকসুদুর বলেন, হিজলার হরিনাথপুর থেকে মৌলভিরহাট যাচ্ছিল অটোরিকশাটি। ঝড়ে পূর্বকান্দিতে একটি গাছ চাপা পড়ে ঘটনাস্থলেই ওই দুজনের মৃত্যু হয়।

 

ভোলায় বাবার হাতে ছেলে খুন

ভোলা প্রতিনিধি: পারিবারিক বিরোধকে কেন্দ্র করে ভোলায় খালিদ বিন ওয়ালিদ নামে এক ছেলেকে কুপিয়ে খুন করেছে তার বাবা নুর ইসলাম। এসময় ছেলেকে বাঁচাতে গিয়ে গুরুতর জখম হন তার মা নুরজাহান। গতকাল শুক্রবার ভোরে সদর উপজেলার ধনিয়া ইউনিয়নের কানাইনগর গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। আহত নুরজাহানকে ভোলা সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। ছেলে খালিদ সেনাবাহিনীতে চাকরি করতেন। তিনি কিছুদিন আগে যশোর ক্যান্টেনম্যান্ট থেকে ছুটি নিয়ে বাড়িতে আসেন।


প্রত্যদর্শীদের বরাত দিয়ে ভোলা সদর মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মীর খায়রুল কবির  জানান, বৃহস্পতিবার গভীর রাতে বাবা এবং ছেলের মধ্যে পারিবারিক বিভিন্ন বিষয় নিয়ে বাক-বিতন্ডা হয়। একপর্যায়ে সন্তানকে এলোপাতাড়ি কুপিয়ে হত্যা করেন বাবা।

এসময় ছেলেকে বাঁচাতে গিয়ে কোপের আঘাতে আহত হন স্ত্রী নুরজাহান। খবর পেয়ে পুলিশ শুক্রবার সকালে ঘাতক বাবাকে আটক করে। মরদেহ ময়নাতদন্তের জন্য ভোলা সদর হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে। এ ঘটনায় মামলা দায়েরের প্রস্তুতি চলছে বলেও জানান তিনি।

 

বরিশালে স্বরূব হত্যায় কথিত প্রেমিকসহ স্ত্রীর ফাঁসির রায়

বরিশালে স্বরূব আলীকে হত্যার দায়ে স্ত্রী ও তার কথিত প্রেমিককে মৃত্যুদণ্ড ও আরেকজনকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দিয়েছে আদালত।

রোববার আসামিদের উপস্থিতিতে বরিশাল অতিরিক্ত জেলা ও দায়রা জজ দ্বিতীয় আদালতের বিচারক রকিবুল ইসলাম এ রায় দেন।

মৃত্যুদণ্ডপ্রাপ্তরা হলেন সদর উপজেলার টুমচরের স্বরূব আলীর স্ত্রী মমতাজ বেগম ও চরমোনাই এলাকার কালাম হাওলাদার।

যাবজ্জীবনপ্রাপ্ত হচ্ছে কালামের স্ত্রীর ভাগ্নে রাজিব রাঢ়ী।

একইসঙ্গে তাকে এক লাখ টাকা জরিমানা; অনাদায়ের আরও পাঁচ বছরের কারাদণ্ড দেওয়া হয়েছে বলে জানান রাষ্ট্রপক্ষের আইনজীবী গিয়াসউদ্দিন কাবুল।

মামলার বরাত দিয়ে তিনি জানান, টুমচরের জেলে স্বরূব আলীর স্ত্রী মমতাজ বেগম চরমোনাই এলাকার মোটরসাইকেল চালক কালাম হাওলাদারের সঙ্গে প্রেমের সম্পর্কে জড়িয়ে পড়েছিলেন। স্বরূব বিষয়টি জানতে পারলে তাদের মধ্যে দাম্পত্য কলহ সৃষ্টি হয়।

“এর জেরে ২০১৫ সালের ১১ মার্চ রাতে মমতাজ বেগম, কালাম হাওলাদার ও রাজিব রাঢ়ী ঘুমিয়ে থাকা স্বরূব আলীর গলায় রশি পেঁচিয়ে হত্যা করে লাশ বাড়ির পাশের খালের পাড়ে পুঁতে রাখে।”

তিনি জানান, পর দিন সকালে তার লাশ উদ্ধার করে স্বজনরা। ওইদিনই অজ্ঞাতদের আসামি করে বরিশাল বন্দর থানায় হত্যা মামলা করেন নিহতের ভাই আশ্রাব আলী।

“এরই মধ্যে পুলিশ ওই তিনজনকে আটকের পর জিজ্ঞাসাবাদে তারা হত্যার কথা স্বীকার করে। পরে একই বছরের ২৬ মে আদালতে অভিযোগপত্র জমা দেয় পুলিশ।”

 

বরিশালে কালবৈশাখী ঝড়ে ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতি

বরিশাল প্রতিনিধি: বরিশালের ওপর দিয়ে বয়ে যাওয়া কালবৈশাখী ঝড়ে বিভিন্ন স্থানে গাছপালা ভেঙে ব্যাপক ক্ষতি হয়েছে বিদ্যুৎ ব্যবস্থার। রাস্তার পাশের বিলবোর্ড ভেঙে ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে দোকানপাট ও বসতবাড়ি। উড়ে গেছে ঘরের টিনের চাল।

বরিশাল আবহাওয়া অফিস জানায়, সোমবার দিনগত রাত ১টা ৩১ মিনিটে ঝড় শুরু হয়ে ৩ মিনিট স্থায়ী হয়। ঝড়ের সর্বোচ্চ গতিবেগ ছিল ঘণ্টায় ৬০ কিলোমিটার। এ সময় ২২ মিলিমিটার বৃষ্টিপাত রেকর্ড করা হয়। ঝড়ে বরিশাল নগরী ও আশপাশের এলাকায় বেশ কিছু গাছপালার ডাল ভেঙে বিদ্যুতের তারের উপর পড়ে বিদ্যুৎ ব্যবস্থা অকেজো হয়ে পড়ে। পরে ঝড়ের ছয় ঘণ্টা পর মঙ্গলবার (১৬ মে) সকাল ৮টা নাগাদ তা মেরামত করে বিভিন্ন এলাকায় বিদ্যুৎ সরবরাহ স্বাভাবিক করা হয়। এদিকে দপদপিয়া সেতুর টোলপ্লাজা সংলগ্ন এলকায় দু’টি বিলবোর্ড ভেঙে বেশকয়েটি দোকান ও বসতবাড়ি ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। উড়ে গেছে ঘরের টিনের চাল। পটুয়াখালী ও বরিশালের বেশ কিছু উপজেলায় ক্ষতি হয়েছে বলেও জানায় আবহাওয়া অফিস।

পুকুরে সরকারি ওষুধ তিনটি তদন্ত কমিটি মামলা দায়ের

বরিশাল প্রতিনিধি: বরিশাল শের-ই বাংলা চিকিৎসা মহাবিদ্যালয় (শেবাচিম) হাসপাতালের চতুর্থ শ্রেণীর স্টাফ কোয়ার্টার কম্পাউন্ডের পুকুর থেকে অর্ধলক্ষাধিক টাকার সরকারি ওষুধ উদ্ধারের ঘটনায় তিনটি তদন্ত কমিটি গঠন ও একটি মামলা হয়েছে। শুক্রবার সকাল থেকে কোয়ার্টারের ৪ নম্বর ভবনের সামনের মজা পুকুরে অর্ধলক্ষাধিক টাকার বিভিন্ন ধরনের সরকারি ওষুধ ও ইক্যুইপমেন্ট ভাসতে দেখে কোতোয়ালি থানায় খবর দেন স্থানীয়রা। থানা পুলিশ বেলা ১টার দিকে ওষুধগুলো উদ্ধার এবং জড়িত সন্দেহে হাসপাতালের চতুর্থ শ্রেণীর কর্মচারী শেফালি বেগম ও তার ছেলে স্থগিত হওয়া নিয়োগের কর্মচারী মামুনকে গ্রেফতার করে। ২ নম্বর ভবনের দ্বিতীয় তলায় তাদের বাসা থেকে কিছু সরকারি ওষুধ ও তুলাসহ সরকারি-বেসরকারি যন্ত্রপাতি জব্দ করা হয়।

কোতোয়ালি মডেল থানার সেকেন্ড অফিসার এসআই আবু তাহের জানান, শুক্রবার রাতে থানার এসআই অরবিন্দু সরকারি ওষুধ উদ্ধারের ঘটনায় মামলা করেছেন। গ্রেফতারকৃত শেফালি বেগম ও তার ছেলে মামুনকে মামলায় আসামি করা হয়েছে। পুরো ঘটনা বিস্তারিতভাবে খতিয়ে দেখা হবে।  শনিবার বেলা ১১টায় শেবাচিম হাসপাতালের পরিচালক ডা. এস এম সিরাজুল ইসলাম জানান, পৃথক তিনটি তদন্ত কমিটির একটিতে সহকারী পরিচালক (অর্থ ও ভান্ডার) ডা. মো. ইউনুস আলীকে প্রধান (সভাপতি) করা হয়েছে। এ কমিটির অন্য দুই সদস্য হলেন, আবাসিক সার্জন (সার্জারি) ডা. মো. আব্দুর রহিম ও অফিস সহকারী সৈয়দ মাকসুদুল আলম। এ কমিটি উদ্ধারকৃত ওষুধগুলো হাসপাতালের মেডিসিন মেইন স্টোরের কি-না, তা পরীক্ষা-নিরীক্ষা করে শনিবারের অফিস সময়ের মধ্যে পরিচালকের কার্যালয়ে প্রতিবেদন দাখিল করবেন। পরিচালক জানান, সহকারী পরিচালক (প্রশাসন) ডা. মশিউল আলমকে প্রধান এবং আবাসিক চিকিৎসক (শিশু) ডা. মো. ফায়জুল হক পনির ও  উচ্চমান সহকারী মো. গোলাম ফারুক মৃধাকে সদস্য করে ৩ সদস্যের অন্য একটি কমিটি গঠন করা হয়েছে। এ কমিটি উদ্ধারকৃত ওষুধগুলো মেডিসিন সাব স্টোরের কি-না, তা পরীক্ষা-নিরীক্ষা করে শনিবারের অফিস সময়ের মধ্যে পরিচালকের কার্যালয়ে প্রতিবেদন দাখিল করবেন। তিনি জানান, তৃতীয় কমিটিটি উপ-পরিচালক ডা. মো. আবদুল কাদিরকে প্রধান করে ৬ সদস্যের। কমিটির সদস্যরা হলেন- আরপি মেডিসিন ডা. এফ আর খান, মেডিসিনি-১ এর রেজিস্ট্রার ডা. মো. সালমান হোসেন, মেডিসিন-২ এর রেজিস্ট্রার ডা. গোলাম ইশতিয়াক কুশল, মেডিসিনি-৩ এর রেজিস্ট্রার ডা. মুহাম্মদ মনিরুল ইসলাম ও মেডিসিনি-৪ এর রেজিস্ট্রার ডা. নওরোজ আহমেদ। পরিচালক জানান, ওষুধ উদ্ধারের ঘটনায় কোয়ার্টারের বাসিন্দা হাসপাতালের মহিলা মেডিসিন বিভাগের অফিস সহায়ক শেফালি বেগম ও তার ছেলে মামুনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। এ কারণে মহিলা মেডিসিন বিভাগের ওষুধ ইভেন্ট ও বন্টনের হিসেব এ কমিটি খতিয়ে দেখে আগামী তিনদিনের মধ্যে  পরিচালকের কার্যালয়ে প্রতিবেদন দাখিল করবেন। পরিচালক ডা. এসএম সিরাজুল ইসলাম বলেন, এখানে হয়তো কোনো সিন্ডিকেট চক্র রয়েছে। তাদের খুঁজে বের করে আইনের আওতায় আনতেই হবে। এজন্য হাসপাতাল প্রশাসনের কাছে থানা পুলিশ সহায়তা চাইলে করা হবে।

বরিশাল বোর্ডে এবারও কমেছে পাসের হার জিপিএ-৫

বরিশাল প্রতিনিধি: এসএসসি পরীক্ষার ফলে বরিশাল শিক্ষা বোর্ডে টানা তৃতীয়বারের মত কমেছে পাসের হার; কমেছে জিপিএ-৫ প্রাপ্তদের সংখ্যাও। গতকাল বৃহস্পতিবার বেলা ১১টায় ফলের পরিসংখ্যান ঘোষণা করেন বরিশাল মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক শিক্ষাবোর্ডেরপরীক্ষা নিয়ন্ত্রক অধ্যাপক মো. আনোয়ারুল আজিম। এবছর বরিশালে পাসের হার ৭৭ দশমিক ২৪ শতাংশ, যেখানে গত বছর পাসের হার ছিল ৭৯ দশমিক ৪১ শতাংশ। এর আগের বছর ২০১৫ সালে পাসের হার ছিল ৮৪ দশমিক ৩৭ শতাংশ। ২০১৫ সালে জিপিএ-৫ পেয়েছিল তিন হাজার ১৭১ জন পরীক্ষার্থী। ২০১৬ সালে জিপিএ-৫ পাওয়া শিক্ষার্থী কমলেও তা ছিল তিন হাজার ১১৩ জন শিক্ষার্থী। তবে এবার জিপিএ-৫ পাওয়া শিক্ষার্থীর সংখ্যা কমে নেমে এসেছে দুই হাজার ২৮৮ জনে। পাসের হার ও জিপিএ ৫ এর সংখ্যা কমার কারণ হিসেবে পরীক্ষা নিয়ন্ত্রক বলেন, গণিত বিষয়ে সৃজনশীল হওয়ার প্রভাব পড়েছে পরীক্ষার ফলে। তৃণমূল পর্যায়ের অধিকাংশ শিক্ষক-ই সৃজনশীল বোঝেন না; ফলে শিক্ষার্থীদেরও বোঝাতে পারেন না। অধ্যাপক আনোয়ারুল আজিম বলেন, বিগত দিনে একটা অভিযোগ ছিল, জিপিএ-৫ এর সংখ্যা বাড়লেও শিক্ষার্থীদের গুণগত মান বাড়ছে না। শিক্ষার্থীদের গুণগত মান বৃদ্ধি করতে গিয়েই জিপিএ-৫ এর সংখ্যা কমছে। এবছর বরিশাল বোর্ডে মোট ৯৪ হাজার ৪১৬ জন শিক্ষার্থী পরীক্ষায় অংশ নিয়ে পাস করেছে ৭২ হাজার ৩৫৮ জন। এদের মধ্যে ছাত্র ৩৫ হাজার ৩৯১ জন এবং ছাত্রী ৩৬ হাজার ৯৬৭ জন। পাসের দিক থেকে এবছরও ছাত্রীরা এগিয়ে। ছাত্রীদের পাসের হার ৭৯ দশমিক ৮২ শতাংশ এবং ছাত্রদের পাসের হার ৭৪ দশমিক ৭৩ শতাংশ। জিপিএ ৫ পাওয়ার দিক থেকেও এগিয়ে ছাত্রীরা। জিপিএ ৫ প্রাপ্তদের মধ্যে ছাত্রী এক হাজার ২৫৫ জন এবং ছাত্র এক হাজার ৩৩ জন।

 

বরিশালে ৩ স্কুল ছাত্রী নিখোঁজ

বরিশাল প্রতিনিধি: বরিশালের বানারীপাড়া উপজেলায় দুই দিন ধরে তিন স্কুলছাত্রীকে পাওয়া যাচ্ছে না। এ ঘটনায়  বুধবার দুপুরে দুটি সাধারণ ডায়েরি হয়েছে বলে জানিয়েছেন বানারীপাড়া থানার ওসি সাজ্জাদ হোসেন ।

নিখোঁজদের দুজন বানারীপাড়া বালিকা মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের অষ্টম শ্রেণির ছাত্রী এবং দুজনেরই বয়স ১৪ বছর। অপরজন চাখার ওয়াজেদ মেমোরিয়াল উচ্চ বালিকা বিদ্যালয়ের ষষ্ঠ শ্রেণির ছাত্রী, যার বয়স ১২। তিনজনেরই বাড়ি উপজেলার কুন্দিহাল গ্রামে। ওসি বলেন, নিখোঁজ ছাত্রীদের দুজনের পরিবারের পক্ষ থেকে দুটি সাধারণ ডায়েরি করা (জিডি) হয়েছে। জিডিতে বলা হয়, এ তিন ছাত্রী মঙ্গলবার বিকালে বাড়ি থেকে স্থানীয় বন্দর বাজার সংলগ্ন এলাকায় শিক্ষিকা দোলা আক্তারের বাড়িতে পড়তে যায়। পড়া শেষে তিনজন বিকাল সাড়ে ৫টার দিকে শিক্ষিকার বাড়ি থেকে বের হলেও কেউ নিজ বাড়ি ফিরে যায়নি। বিষয়টি গুরুত্বের সঙ্গে দেখা হচ্ছে বলে জানান ওসি।

বরিশালে বাস চাপায় স্কুলছাত্র নিহত

বরিশালের বাবুগঞ্জ উপজেলায় চলন্ত বাসের চাপায় এক স্কুলছাত্র নিহত হয়েছেন। মঙ্গলবার রাতে ঢাকা-বরিশাল মহাসড়কের দোয়ারিকা সেতুর উপর এ দুর্ঘটনা ঘটে। নিহত সাইফুল ইসলাম (১৪) বাবুগঞ্জ উপজেলার পশ্চিম রহমতপুর এলাকার আলমগীর হোসেনের ছেলে। বাবুগঞ্জ থানার ওসি আব্দুস সালাম জানান, বরিশাল থেকে উজিরপুরের ধামুরাগামী একটি বাসে ওঠেন সাইফুল। তাকে দোয়ারিকা সেতুর ঢালে নামিয়ে দেওয়ার কথা ছিল।

“কিন্তু চালক বাস না থামিয়ে সাইফুলকে চলন্ত বাস থেকে সেতুর উপর নামিয়ে দেয়। এ সময় ওই বাসের চাকার নিচে পড়ে ঘটনাস্থলে সাইফুলের মৃত্যু হয়।”

সাইফুল স্থানীয় একটি বিদ্যালয়ের অষ্টম শ্রেণির ছাত্র বলে জানান ওসি।

 

নলছিটিতে আগ্নেয়াস্ত্র ৩ রাউন্ড গুলিসহ একজন আটক

ঝালকাঠি প্রতিনিধি: ঝালকাঠির নলছিটি থানা এলাকা থেকে আগ্নেয়াস্ত্র ও তিন রাউন্ড গুলিসহ একজনকে আটক করেছে র‌্যাব-৮। বৃহস্পতিবার দিনগত রাতে তাকে নলছিটি থানাধীন বরিশাল-পটুয়াখালী মহাসড়কের দপদপিয়া এলাকায় গোপন সংবাদের ভিত্তিতে অভিযান চালিয়ে আটক করা হয়। আটক মো. হারুন মিয়া (৪৫) পেশায় একজন ব্যবসায়ী ও নলছিটি উপজেলার ভরতকাঠি এলাকার মো. মোসলেম মিরার ছেলে।


র‌্যাবের প থেকে পাঠানো ই-মেইলে জানানো হয়, র‌্যাবের উপস্থিতি টের পেয়ে দৌড়ে পালানোর সময় তাকে আটক করা হয়। পরে তার দেহ তল্লাশি চালিয়ে একটি বিদেশি রিভলবার ও রিভলবারের তিন রাউন্ড তাজা গুলি উদ্ধার করা হয়। এ ঘটনায় র‌্যাব-৮, বরিশাল সিপিএসসির ডিএডি মো. মামুনুর রশিদ খাঁন বাদী হয়ে ঝালকাঠি জেলার নলছিটি থানায় অস্ত্র আইনে একটি মামলা দায়ের করেছেন।

 

বিএনপির দুইপক্ষ একই স্থানে সভা ডাকায় পটুয়াখালীতে ১৪৪ ধারা

পটুয়াখালী প্রতিনিধি: পটুয়াখালীতে জেলা বিএনপির দুইপক্ষ একই স্থানে সভা ডাকায় ১৪৪ ধারা জারি করেছে স্থানীয় প্রশাসন। গতকাল শুক্রবার জেলা প্রশাসক এ কে এম শামিমুল হক ছিদ্দিকী সাংবাদিকদের জানান, একই সময় একইস্থানে বিএনপির দুইপক্ষ সভা ডাকায় শনিবার সকাল ৬টা থেকে রাত ৯টা পর্যন্ত শহরের সার্কিট হাউস ও শেরে বাংলা সড়ক এবং এর আশপাশের এলাকায় সব ধরনের সভা-সমাবেশ নিষিদ্ধ করা হয়েছে।


শেরে বাংলা পাঠাগারে শনিবার জেলা বিএনপির জেলা পর্যায়ে বিএনপির প্রতিনিধি সভা এবং একই সময়ে সেখানে জেলা বিএনপির সহ সাধারণ সম্পাদক দেলোয়ার হোসেন খান নান্নু পৃথক সভা আহ্বান করেন। নান্নু জেলা বিএনপির সভাপতি আলতাফ হোসেন চৌধুরী ও সাধারণ সম্পাদক এমএ রব মিয়ার বিরোধী হিসেবে পরিচিত।


এদিকে একই সময় শহরের সুরাইয়া ভবন ও শহরের বটতলা এলাকায় যুব সমাবেশ আহ্বান করেন যুবদল নেতা রুহুল আমীন রেজা। জেলা প্রশাসক বলেন, দুইপক্ষই সভা ডাকার কারণে শহরে অপ্রীতিকর ঘটনা এড়াতে সার্কিট হাউস ও শেরে বাংলা সড়ক এবং এর আশ পাশের এলাকায় সকল সভা-সমাবেশ নিষিদ্ধ করা হয়েছে। এ আদেশের পর বৃহস্পতিবার গভীর রাতে এ বিষয়ে শহরের মাইকিংও করা হয়েছে বলে জানান জেলা প্রশাসক।


 এ বিষয়ে এমএ রব মিয়া বলেন, নির্বাচনকে সামনে রেখে দলীয় নেতা-কর্মীদের চাঙ্গা করতে কেন্দ্র থেকে নেতৃবৃন্দ জেলা পর্যায়ে সফর করবেন বলেই শহরের শেরে-বাংলা পাঠাগারে প্রতিনিধি সভা আহ্বান করা হয়েছে। জেলা ছাত্রদল সভাপতি আশফাকুর রহমান বিপ্লব জানান, জেলা বিএনপির সহ সাধারণ সম্পাদক দেলোয়ার হোসেন খান নান্নু শেরে বাংলা পাঠাগারে বিএনপির সভা আহ্বান করে অনুমতি চেয়ে প্রশাসনের কাছে আবেদন করেছেন।

 সেইসঙ্গে আলতাফ হোসেন চৌধুরীর বাস ভবন সুরাইয়া ভবন ও শহরের বটতলা এলাকায় যুবদল নেতা রুহুল আমীন রেজাযুব সমাবেশ আহ্বান করায় প্রশাসনের পক্ষ থেকে ১৪৪ ধারা জারি করা হয়েছে বলে জানান ছাত্রদল এ নেতা।

 

আমতলীতে সড়ক দুর্ঘটনায় নৌ-বাহিনীর ২ সদস্য নিহত

বরগুনা প্রতিনিধি: বরগুনার কলাপাড়া-আমতলী উপজেলার সীমান্তে বান্দ্রা এলাকায় বাসের চাপায় ফুয়াদ হোসেন ও আবদুস সাদেক নামে নৌবাহিনীর দুই সদস্য নিহত হয়েছেন। এ ঘটনায় আহত হয়েছেন নৌ-বাহিনীর অপর এক সদস্য এনামুল হক। গুরুতর আহত অবস্থায় তাকে কলাপাড়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে। তারা মোটরসাইকেলে করে যাচ্ছিলেন। গতকাল শুক্রবার দুপুর দেড়টার দিকে পটুয়াখালী-কুয়াকাটা মহাসড়কে এ দুর্ঘটনা ঘটে।


স্থানীয়রা জানায়, কলাপাড়া থেকে পটুয়াখালীগামী যাত্রীবাহী বাস আল্লার দান (ঢাকা মেট্রো-ঝ-১১-০৭১৮) নৌবাহিনীর সদস্যদের বহনকারী একটি মোটরসাইকেলকে চাপা দেয়। এতে ঘটনাস্থলেই নৌবাহিনীর নাবিক ফুয়াদ হোসেন এবং আবদুস সাদেক মারা যান। কলাপাড়া ফায়ার সার্ভিস কর্মীরা ঘটনাস্থলে গিয়ে মরদেহ উদ্ধার করে আমতলীতে নিয়ে আসে। গুরুতর আহতাবস্থায় অপর সদস্য এনামুল হককে তাৎক্ষণিক কলাপাড়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়।

খবর পেয়ে পায়রা সমুদ্র বন্দরের নিরাপত্তা কর্মকর্তা (নৌ-বাহিনীর) ক্যাপ্টেন জাহাঙ্গীর হোসেন ঘটনাস্থলে যান। তিনি জানান, গুরুতর আহত এনামুলকে উন্নত চিকিৎসার জন্য ঢাকায় পাঠানো হয়েছে। আমতলী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. শহীদুল্লাহ  জানান, নিহতদের মরদেহ ময়নাতদন্তের জন্য বরগুনা জেনারেল হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে।

 

মাদারীপুরে গণধর্ষণ মামলার আটক ২

মাদারীপুর প্রতিনিধি: মাদারীপুরে গণধর্ষণ মামলার প্রধান আসামি খোকা শিকদার (২৫) ও তার সহযোগী এলাহী হাওলাদারকে আটক করেছে র‌্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটালিয়নের (র‌্যাব-৮) সদস্যরা। গতকাল শুক্রবার ভোরে কালকিনি উপজেলার মোল্লারহাট থেকে তাদের আটক করা হয়।র‌্যাব-৮ জানায়, গণধর্ষণ মামলার আসামি খোকা শিকদার ও তার সহযোগী এলাহী হাওলাদার ঢাকা থেকে লঞ্চে করে মাদারীপুরে আসছে।

 এমন সংবাদের ভিত্তিতে উপজেলার মোল্লারহাটে র‌্যাবের একটি দল অপেক্ষা করতে থাকে। লঞ্চটি মোল্লারহাটে থামলে অভিযান চালিয়ে পৃথক দুই কেবিন থেকে তাদের আটক করা হয়। ১২ মার্চ কালকিনির রমজানপুরের ৮ম শ্রেণির এক স্কুলছাত্রীকে বাসা থেকে তুলে নিয়ে পরিত্যক্ত একটি ভবনে আটকে রেখে গণধর্ষণ করে খোকা শিকদারসহ একদল দুর্বৃত্ত। এ ঘটনায় ১৬ মার্চ কালকিনি থানায় ওই স্কুলছাত্রীর বাবা বাদী হয়ে ৪জনকে আসামি করে গণর্ধষণ মামলা করেন।

 

হাত-চোখ বাঁধা অবস্থায় কেটেছে সাড়ে ৪ মাস : মেহেদী হাসান

বরিশাল প্রতিনিধি: সাড়ে চার মাস আগে ঢাকা থেকে নিখোঁজ চার যুবকের একজন মেহেদী হাসান বরিশালে নিজের বাড়িতে ফিরেছেন। মঙ্গলবার দুপুর ৩টায় মেহেদী বরিশালের বাবুগঞ্জের বাড়িতে হাজির হন বলে তার বাবা পুলিশ কনস্টেবল জাহাঙ্গীর হাওলাদার জানিয়েছেন। পরে মেহেদী  বলেন, গত ১ ডিসেম্বর ঢাকার বনানীর এক রেস্তোরাঁর সামনে থেকে তাকে তুলে নেওয়া হয়। এরপর হাত বাঁধা অবস্থায় ‘অন্ধকারে’ কেটেছে তার সময়। এতদিন কোথায় ছিলেন সে সম্পর্কে কোনো ধারণা নেই তার।

নর্থসাউথ বিশ্ববিদ্যালয়ের দুই ছাত্র জাইন হোসেন খান পাভেল ও সাফায়াত হোসেন এবং বিজ্ঞাপনী সংস্থা এশিয়াটিকের কর্মী সুজন ও তার বন্ধু মেহেদী গত ১ ডিসেম্বর নিখোঁজ হন। তাদের সর্বশেষ বনানীর একটি রেস্তোরাঁয় দেখা যায় বলে পুলিশ জানিয়েছিল। গত বছর জুলাইয়ে গুলশানের হলি আর্টিজান ক্যাফে এবং শোলাকিয়ায় ঈদ জামাতের পাশে জঙ্গি হামলায় জড়িত নর্থ-সাউথ বিশ্ববিদ্যালয়ের দুই ছাত্র দীর্ঘ দিন পরিবারের সঙ্গে ‘যোগাযোগবিচ্ছিন্ন’ ছিলেন। এরপর এই চারজনের নিখোঁজ হওয়ার খবর দেশব্যাপী সাড়া ফেলে।

এতদিন পরে মেহেদী ফিরে এলেও তার তিন সঙ্গীর সম্পর্কে কিছু জানাতে পারেননি। তিনি  বলেন, ওই দিন বনানীর ওই রেস্টুরেন্ট থেকে আমি বের হলে পেছন থেকে একজন আমার হাত ধরে ফেলে। পরে নাকের উপর রুমালের মতো কিছু ধরলে আমি অজ্ঞান হয়ে পড়ি। এরপর থেকে আমাকে একটি রুমে হাত ও চোখ বেঁধে ফেলে রাখা হয়। খাওয়ার ও টয়লেটে যাওয়ার সময় হাত খুলে দেওয়া হত। কেউ কোনো কিছু জিজ্ঞেস করেনি, কোনো কথাই কেউ বলেনি। মেহেদী বলেন, সকালে নবীনগরে একটি গাছের সঙ্গে হেলান দেওয়া অবস্থায় নিজেকে দেখতে পান তিনি। পরে বাস ধরে চলে যান বরিশালে গ্রামের বাড়িতে। ঝালকাঠি সদর থানার কনস্টেবল জাহাঙ্গীরের চার ছেলের মধ্যে সবার বড় মেহেদী বরিশালের বিএম কলেজে সমাজবিজ্ঞান বিভাগের স্নাতকোত্তরের ছাত্র। তিনি নিখোঁজ হওয়ার পর তার চাচা মাহাবুব হাওলাদার  বলেছিলেন, গত নভেম্বরে বাবার হার্টে সমস্যা দেখা দিলে তাকে নিয়ে ঢাকায় আসেন মেহেদি। এরপর ইবনে সিনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে বাবার চিকিৎসা শেষে ২৬ নভেম্বরে তেজগাঁওয়ের একটি বহুজাতিক কোম্পানিতে নিয়োগ পরীক্ষা দেন। ওই সময় মেহেদী রায়েরবাজারে ফুফুর বাড়িতে ছিলেন। নিয়োগ পরীক্ষা শেষে ১ ডিসেম্বর ল্যাপটপে কিছু সফটওয়্যার আপডেটের জন্য একই এলাকার সুজনের কাছে নিয়ে যাওয়ার কথা বলে বাসা থেকে বের হন মেহেদি। এরপর থেকেই তার কোনো খোঁজ নেই। সে সময় স্বজনদের জিডির ভিত্তিতে তদন্তে নেমে পুলিশ কর্মকর্তারা বলছিলেন, এই চার তরুণের বিরুদ্ধে জঙ্গি সংশ্লিষ্টতার কোনো প্রমাণ পাননি তারা। তবে তাদের আচরণে ‘সন্দেহজনক’ কিছু বিষয় রয়েছে।

বরিশালে ছাদ থেকে পড়ে এক ব্যক্তির মৃত্যু

বরিশাল প্রতিনিধি: বরিশাল নগরের নবগ্রাম রোডের একটি ভবনের ছাদ থেকে পড়ে গিয়ে আব্দুল আলিম (৫০) নামে এক মসজিদের ঈমামের মৃত্যু হয়েছে। সোমবার সকাল ১১টায় বরিশাল শের-ই-বাংলা চিকিৎসা মহাবিদ্যালয় হাসপাতালের জরুরী বিভাগের চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

আব্দুল আলিম নগরের নবগ্রাম রোডের ২২ নম্বর ওয়ার্ডের আনোয়ারা মঞ্জিলের বাসিন্দা। তিনি নগরের দক্ষিণ আলেকান্দার জামে আল মেহেদী মসজিদের ইমাম ছিলেন। স্বজনরা জানান, সকালে ভবনের দোতলার ছাদ তিনি নিচে পড়ে যান। দ্রুত তাকে হাসপাতালে নিয়ে গেলে জরুরী বিভাগের চিকিৎসক ডা. মাসুদ মোল্লা মৃত ঘোষণা করেন।

যৌতুকের জন্য শিকলে বেঁধে গৃহবধূ নির্যাতন স্বামী গ্রেফতার

বরগুনা প্রতিনিধি: বরগুনায় যৌতুক না পেয়ে এক গৃহবধূকে শিকলে বেঁধে মারধরের অভিযোগ উঠেছে শ্বশুরবাড়ির লোকজনের বিরুদ্ধে। সদর উপজেলার পাজরাভাঙ্গা গ্রামের খলিফা বাড়িতে বৃহস্পতিবার বিকালে এ ঘটনা ঘটে বলে বরগুনা থানার ওসি মাসুদুজ জামান জানান।

আনুমানিক ৪৫ বছর বয়সী ওই গৃহবধূকে বরগুনা সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। এ ঘটনায় ওই গৃহবধূ বাদী হয়ে থানায় মামলা দায়ের করেছেন। বৃহস্পতিবার রাতেই তার স্বামী মোশারেফ খলিফাকে (৫০) গ্রেফতার করেছে পুলিশ। মোশারেফ পাথরঘাটা উপজেলার একটি ইটভাটায় শ্রমিকের কাজ করেন।

ঘটনার সময় তিনি কর্মস্থলে ছিলেন। গৃহবধূ জানান, তার বাবার বাড়ির জমি বিক্রি করে যৌতুক দেওয়ার জন্যে তাকে দীর্ঘদিন ধরে চাপ দিয়ে আসছিলেন স্বামী ও শ্বশুর বাড়ির লোকজন। যৌতুক দিতে অস্বীকৃতি জানালে বিভিন্ন সময়ে মোশারেফ ও তার বাড়ির সদস্যরা বিভিন্ন সময়ে তার ওপর শারীরিক নির্যাতন চালাতেন বলে অভিযোগ করেন তিনি।

তিনি বলেন, এর জেরে বৃহস্পতিবার আবারও কথা কাটাকাটি হলে ছোট মেয়েকে নিয়ে বাবার চলে যাওয়ার প্রস্তুতি নিচ্ছিলাম। এ সময় তার দেবর আলতাফ খলিফা (৪০), ভাসুরের ছেলে আল আমিন খলিফা (২৫), ইমরান খলিফা (২৭) ও কবির খলিফা তাকে ‘মারধর’ করে পায়ে শিকল দিয়ে খাটের সঙ্গে তালা মেরে রাখে বলে গৃহবধূর অভিযোগ। ‘এক পর্যায়ে তারা আমাকে মারধর করে’ বলেন তিনি।

খবর পেয়ে আমার বাবা ও ভাই গিয়ে আমাকে উদ্ধার করতে চাইলে আমার শ্বশুরবাড়ির লোকজন তাদেরও মারধর করে। ওসি মাসুদুজ বলেন, পরে স্থানীয়রা থানায় খবর দিলে পুলিশ গিয়ে ওই গৃহবধূর পায়ে বাঁধা শিকলের তালা ভেঙ্গে তাকে উদ্ধার করা হয়। তিনি বলেন, এ ঘটনায় ওই গৃহবধূ মোশারেফসহ খলিফা, আল-আমিন, তার স্ত্রী, ইমরান ও কবিরকে আসামি করে থানায় মামলা করেছেন।

মোশারেফকে ইতোমধ্যে গ্রেফতার করা হয়েছে অন্য আসামিদের গ্রেফতারে চেষ্টা চলছে। বরগুনা সদর হাসপাতালে তত্ত্বাবধায়ক সহরাবউদ্দিন বলেন, রাতে পুলিশ ওই গৃহবধূকে হাসপাতালে এনে ভর্তি করে। তার শরীরের বিভিন্ন স্থানে আঘাতের চিহ্ন রয়েছে।

রাণীনগরে ধানের পাশাপাশি খিরা চাষে ঝুঁকছে কৃষক

রাণীনগর (নওগাঁ) প্রতিনিধি : অল্প খরচে কম সময়ে অধিক লাভজনক হওয়ায় ধান চাষের পাশাপাশি রাণীনগরে প্রান্তিক পর্যায়ের চাষিরা বোরো ধান চাষের খরচ যোগাতে খিরা চাষে ঝুঁকে পড়ছে কৃষক। বাজার মূল্য ভালো এবং চাহিদা বেশি থাকায় ক্ষেতের জমিতেই পাইকারি দরে চাষিরা খিরা বিক্রি করতে পারায় বেশ লাভবান হচ্ছে। আবহাওয়া অনুকূলে ও রোগবালাই কম হওয়ায় খিরার আবাদ গত বছরের তুলনায় ভালো হওয়ায় বোরো ধান কিছুটা কমিয়ে খিরা চাষ করছে কৃষকরা।

জানা গেছে, উপজেলার কাশিমপুর ইউনিয়নের কুজাইল এলাকায় গত বছর শীতের সময়  বোরো মৌসুমে বেশ কিছু চাষি তাদের ফসলি জমিতে বোরো ধান চাষ কিছুটা কমিয়ে দিয়ে অধিক লাভের আশায় খিরা চাষ করে। ভালো লাভ হওয়ায় এলাকার কয়েকটি ইউনিয়নে এ বছর প্রান্তিক পর্যায়ের কৃষকরা প্রায় ৬০ হেক্টর জমিতে খিরা চাষ করেছে। উপজেলার কুজাইল, কাশিমপুর, ভবানীপুর, ডাঙ্গাপাড়াসহ  বেশ কিছু এলাকার মাঠে এখন সবুজ রঙের খিরা ক্ষেত। কৃষকরা স্থানীয় হাট বাজার থেকে খিরার বীজ কিনে জমিতে বপন করার পর থেকেই আবহাওয়া অনুকূলে থাকা, খিরা ক্ষেতের নিবিড় পরিচর্চা ও স্থানীয় কৃষি অফিসের পরামর্শে কীটনাশক প্রায়োগে রোগবালাই কম হওয়ায় এ বছর খিরার ভালো ফলন হয়েছে। উপজেলার কুজাইল গ্রামের রকিব উদ্দিন জানান, বোরো ধানের পাশাপাশি ৫ বিঘা জমিতে খিরার আবাদ করেছে। ফলন ভালো ও চাহিদা বেশি থাকায় প্রতি মণ খিরা জমি থেকেই ৮শ’ টাকা দরে পাইকারি বিক্রি হচ্ছে। তিনি আশা করছেন আগামী সপ্তাহের মধ্যে জমিতে খিরা তোলা শেষ করে আগাম জাতের আউশ ধানের চাষ করবেন। খিরার ফলন ভালো হওয়ায় এ বছর লাভও ভালো হবে বলে আশা করছেন তিনি। 

উপজেলা কৃষি অফিসার এস এম গোলাম সারওয়ার জানান, রাণীনগর উপজেলায় কৃষকরা ধান চাষে বেশি আগ্রহী। কিন্তু কাটা মাড়াই মৌসুমে চাষিরা ন্যায্য মূল্য না পাওয়ায় দিনদিন ধান চাষের পাশাপাশি অন্যান্য শাক-সবজির আবাদ করছে। এ বছর উপজেলার কৃষকরা কম বেশি উঁচু জমিতে খিরার আবাদ করেছে। আবহাওয়া ভালো থাকায় খিরার ভালো ফলন হয়েছে। অল্প খরচে ভালো লাভ হওয়ার কারণে উপজেলার কৃষকরা খিরা চাষের প্রতি আগ্রহী হয়ে উঠছে।

বরিশালে দ্রব্যমূল্য বৃদ্ধিতে বিএনপির পোস্টারিং

বরিশাল প্রতিনিধি: ‘বাজারে আগুন, বিপর্যস্ত জনজীবন’ শিরোনামে তৈরি করা পোস্টার বরিশাল শহরের সদর রোডের বিভিন্নস্থানে লাগিয়েছেন বিএনপির নেতাকর্মীরা। কেন্দ্রীয় কর্মসূচির অংশ হিসেবে শনিবার দুপুরে বরিশাল মহানগর বিএনপির উদ্যোগে এসব পোস্টার দেয়ালে সাটানো হয়। এতে বিএনপি ও আওয়ামী লীগ আমলের বিভিন্ন দ্রব্যমূল্যের ব্যবধান তুলে ধরা হয়েছে। কেন্দ্রীয় বিএনপির যুগ্ম মহাসচিব ও বরিশাল মহানগর বিএনপির সভাপতি অ্যাডভোকেট মজিবর রহমান সরোয়ার নিজে দেয়ালে পোস্টার সাটানোর কর্মসূচির দায়িত্ব পালন করেন। উপস্থিত ছিলেন, মহানগর বিএনপির ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক জিয়া উদ্দিন সিকদার, কোতয়ালী বিএনপির সিনিয়র সহ-সভাপতি আনোয়ার হোসেন লাবু, বিএনপি নেতা আলহাজ নুরুল আমিন, জেলা যুবদলের সাধারণ সম্পাদক শাহেদ আকন সম্রাট, মহানগর যুবদল যুগ্ম আহ্বায়ক কামরুল হাসান রতন, আলাউদ্দিন আহমেদ, আল আমিন, সাজ্জাদ হোসেনসহ মহিলা দল, যুবদল ও ছাত্রদলের নেতাকর্মীরা। এছাড়াও দ্রব্যমূল্যের দাম বৃদ্ধি সংক্রান্ত এই পোস্টার নগরীর বিভিন্ন ওয়ার্ডে সাটানোর জন্য নেতাকর্মীদের নির্দেশ দিয়েছেন মজিবুর রহমান সরোয়ার।

 

বরিশালে মাদক মামলায় নারীর যাবজ্জীবন

বরিশাল প্রতিনিধি : বরিশালে মাদক মামলায় মরিয়ম বেগম চমচম নামে এক নারীকে যাবজ্জীবন কারাদন্ডাদেশ দিয়েছেন আদালত। এছাড়া তাকে ২০ হাজার টাকা জরিমানা অনাদায়ে আরো ছয় মাসের কারাদন্ডাদেশ দেওয়া হয়েছে।

বৃহস্পতিবার বিকেলে বরিশালের জননিরাপত্তা বিঘ্নকারী অপরাধ দমন ট্রাইব্যুনালের বিচারক মো. রফিকুল ইসলাম আসামির অনুপস্থিতিতে এ রায় দেন। মরিয়ম বেগম চমচম ঝিনাইদহের মির্জাপুর কাচেরখোল এলাকার মো. ইকবাল হোসেনের স্ত্রী। আদালতের বেঞ্চ সহকারী ফিরোজুল ইসলাম  এ তথ্য জানিয়েছেন। মামলা সূত্রে জানা যায়, ২০১৩ সালের ২৯ আগস্ট বরিশাল নগরের ২৮ নম্বর ওয়ার্ডের হরিপাশা এলাকার শেরে বাংলা সড়ক থেকে ৫২ বোতল ফেনসিডিলসহ ওই নারীকে আটক করে র‌্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটালিয়ন (র‌্যাব)। এ ঘটনায় ওই দিনই র‌্যাবের সেই সময়ের উপপরিদর্শক (এসআই) সরদার ইব্রাহিম হোসেন বাদী হয়ে এয়ারপোর্ট থানায় একটি মামলা দায়ের করেন। এরপর এয়ারপোর্ট থানার উপপরিদর্শক (এসআই) সুলতান আহমেদ একই সালের ২৭ সেপ্টেম্বর তার বিরুদ্ধে আদালতে চার্জশিট দাখিল করেন। মামলার ১২ জন সাক্ষীর সাক্ষ্যগ্রহণ শেষে অভিযোগ প্রমাণ হওয়ায় বিকেলে আদালত এ রায় দেন।

বরিশালে ধর্ষণের শিকার শিশুর মৃত্যু

 বরিশাল প্রতিনিধি : ধর্ষণের শিকার ১২ বছরের একটি শিশুর মৃত্যু হয়েছে।  শনিবার সকাল ৬টার দিকে বরিশাল-শের-ই-বাংলা চিকিৎসা মহাবিদ্যালয় (শেবাচিম) হাসপাতালের গাইনি ওয়ার্ডে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তার মৃত্যু হয়। বিকেল ৩টার দিকে হাসপাতালের পরিচালক ডা. এস এম সিরাজুল হক এ তথ্যের সত্যতা নিশ্চিত করেছেন।

তিনি  জানান, স্বজনরা ৯ মার্চ ধর্ষণের বিষয়টি গোপন রেখে মেয়েটিকে হাসপাতালের মেডিসিন ওয়ার্ডে ভর্তি করেন। এরপর চিকিৎসকরা শিশুটির অবস্থা বুঝতে পেরে সার্জারি বিভাগে চিকিৎসা দিয়ে গাইনি ওয়ার্ডে পাঠায়। তিনি আরো জানান, মেয়েটির অবস্থা অত্যন্ত গুরুতর ছিল। অতিরিক্ত রক্তক্ষরণের কারণে পরে শনিবার সকালে তার মৃত্যু হয়। শিশুটির বাবা জানান, তার এক ছেলে ও দুই মেয়ে। স্ত্রী মানসিক ভারসাম্যহীন। তিনি বানারীপাড়ার একটি রাইস মিলে কাজ করেন। পাঁচ মাস আগে তার বড় মেয়েকে (ভিকটিম) ঝালকাঠি সদর উপজেলার বালিগোনা এলাকার অবসরপ্রাপ্ত পুলিশ সদস্য আবদুল মন্নানের বাসায় গৃহকর্মীর কাজে দেন। আবদুল মন্নান সম্পর্কে মামা শ্বশুর। কয়েকদিন আগে আবদুল মন্নান ফোনে জানান যে তার মেয়ে খুব অসুস্থ, তিনি যেন মেয়েকে নিয়ে আসেন। এরপর ৮ মার্চ আবদুল মন্নান লোক দিয়ে বানারীপাড়ায় তার বাড়িতে মেয়েকে পাঠিয়ে দেন। সেখানে আনার পর স্থানীয় ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যানকে মেয়ের শারীরিক অবস্থার কথা জানালে তিনি থানায় পাঠিয়ে দেন।

তিনি আরো জানান, পুলিশ অবস্থা দেখে ওইদিনই মেয়েটিকে বানারীপাড়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করায়। পরে সেখান থেকে তাকে শেবাচিম হাসপাতালে আনা হলে চিকিৎসকরা মেয়েকে ধর্ষণ করা হয়েছে বলে জানান। তিনি এর সুষ্ঠ বিচার দাবি করেন। হাসপাতালের ওয়ার্ড মাস্টার আবুল কালাম জানান, মেয়েটির মৃতদেহ বেলা আড়াইটায় ময়নাতদন্তের জন্য বরিশাল-শের-ই-বাংলা চিকিৎসা মহাবিদ্যালয় হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে। এ বিষয়ে বানারীপাড়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) সাজ্জাদ হোসেন বলেন, যখন মেয়েটিকে আমাদের কাছে আনা হয়েছিল তখন সে কথাই বলতে পারেনি, তাই অবস্থা খারাপ দেখে হাসপাতালে ভর্তি করে দেই। ঘটনাস্থল ঝালকাঠি হওয়ায় বরিশাল হাসপাতালের ওসিসি’র মাধ্যমে ঝালকাঠি থানায় এ ব্যাপারে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।

কাজে নির্বাচন কমিশনের নিরপেক্ষতা প্রমাণ হবে: সিইসি

বরিশাল প্রতিনিধি : প্রধান নির্বাচন কমিশনার কে এম নূরুল হুদা বলেছেন, কাজের মাধ্যমেই নির্বাচন কমিশনের নিরপেক্ষতা প্রমাণিত হবে।  মঙ্গলবার বরিশালে এক অনুষ্ঠানে তিনি এ কথা বলেন। গৌরনদী ও বানারীপাড়া উপজেলা পরিষদের উপ-নির্বাচন উপলক্ষ্যে বরিশাল জেলা প্রশাসন ও আঞ্চলিক নির্বাচন অফিসের এক মতবিনিময় সভায় তিনি বলেন, নির্বাচন কমিশনের নিরপেক্ষতা তাৎক্ষণিকভাবে প্রমাণ করা যাবে না। কাজের মাধ্যমে কমিশনের নিরপেক্ষতা প্রমাণিত হবে। আগের নির্বাচন কমিশনের পথেই হাঁটছে বর্তমান কমিশন; বিএনপির এমন মন্তব্যের প্রেক্ষিতে এ কথা বলেন সিইসি।

তিনি বলেন, বিগত নির্বাচন কমিশনের কর্মকা- যা থাকুক না কেন, আগামী নির্বাচনগুলো সুষ্ঠুভাবে সম্পন্ন করার মধ্য দিয়ে নির্বাচন কমিশনের প্রতি সকলের আস্থা ফিরিয়ে আনা হবে। কোনো ব্যক্তি বা দলের কাছে নির্বাচন কমিশন মাথানত করবে না বলেও মন্তব্য করেন প্রধান নির্বাচন কমিশনার। আগামী ৬ মার্চ গৌরনদী ও বানারীপাড়া উপজেলা পরিষদের উপ-নির্বাচনে ভোটগ্রহণের কথা রয়েছে। জেলা প্রশাসনের সভা কক্ষে আয়োজিত মতবিনিময় সভায় প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন প্রধান নির্বাচন কমিশনার। এ সময় তিনি সুষ্ঠু নির্বাচনের জন্য সকল রাজনৈতিক দলের সহযোগিতা আহ্বান করেন। দলগুলো নির্বাচনে অংশ নিলে এবং নির্বাচনী আইন মেনে চললে, সুষ্ঠু ও নিরপেক্ষ নির্বাচন করা সম্ভব বলেও মন্তব্য করেন নূরুল হুদা। মতবিনিময় সভায় আরও উপস্থিত ছিলেন বিভাগীয় কমিশনার মো. গাউস, ডিআইজি শেখ মো. মারুফ হাসান, পুলিশ কমিশনার এসএম রুহুল আমীন, জেলা প্রশাসক গাজী মো. সাইদুজ্জামান ও র‌্যাব-৮ এর অধিনায়ক লেফটেন্যান্ট কর্নেল আনোয়ার উজ জামান প্রমুখ।

বরিশালে প্রশ্ন ফাঁসের অভিযোগে আটক ৬

বরিশাল প্রতিনিধি : বরিশালের বাকেরগঞ্জে দাখিল পরীক্ষার প্রশ্ন ফাঁসের অভিযোগে কেন্দ্র সচিবসহ ছয়জনকে আটক করেছে গোয়েন্দা পুলিশ। আটকরা হলেন, কেন্দ্র সচিব মো. বশিরউদ্দিন (৪৭), শিক্ষক মো. নূরুজ্জামান (৪৫), মো. জসিমউদ্দিন (৪৫), মেহেদি হাসান (৪০), আবু হানিফ (৩০) ও আবুল কালাম (৪৫)।  রোববার উপজেলার ইসলামিয়া মাদ্রাসা কেন্দ্র থেকে তাদের আটক করা হয় বলে পুলিশ সুপার এসএম আক্তারুজ্জামান জানান।

এসপি আক্তারুজ্জামান বলেন, একটি চক্র পরীক্ষা শুরুর পূর্বে প্রশ্ন ফাঁসের পর উত্তর তৈরি করে তা পরীক্ষার্থীদের মাঝে সরবরাহ করছিল এমন তথ্যে অভিযানে যায় গোয়েন্দা পুলিশ। তাদের বিরুদ্ধে পাবলিক পরীক্ষা আইনে মামলার প্রস্তুতি চলছে বলে জানান তিনি। এ পুলিশ কর্মকর্তার দাবি, আটকরা প্রতিদিন পরীক্ষা শুরুর আধাঘণ্টা আগে সিলগালা করা খাম খুলে প্রশ্নপত্র বের করে উত্তরপত্র তৈরি করে তা অর্থের বিনিময়ে পরীক্ষার্থীদের কাছে পৌঁছে দিত।

 

বরিশালে উচ্ছেদ অভিযানে সংঘর্ষ: আসামি দেড় হাজার


বরিশাল প্রতিনিধি : বরিশাল নগরীতে সড়কের পাশের অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদের সময় স্থানীয়দের সঙ্গে সিটি করপোরেশনের কর্মীদের সংঘর্ষের ঘটনায় মামলা হয়েছে।
কাউনিয়া থানার ওসি সেলিম রেজা জানান, ২৬ জনের নাম উল্লেখসহ অজ্ঞাতনামা দেড় হাজার মানুষকে আসামি করে বৃহস্পতিবার রাতে মামলাটি দায়ের করেন এসআই মো. আশরাফ।বৃহস্পতিবার দুপুরে নগরীর কাউনিয়া এলাকায় সিটি করপোরেশনের কর্মীরা অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ করতে গেলে স্থানীয়দের সঙ্গে তাদের সংঘর্ষ হয়।
সিটি করপোরেশনের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট ইমতিয়াজ মাহমুদ জুয়েল বলেন, স্থানীয়দের হামলায় সিটি করপোরেশনের ৮-১০ জন কর্মী আহত হন।
ঘটনা নিয়ন্ত্রণ করতে গিয়ে সে সময় পুলিশও গুলি করে।

মহানগর পুলিশের উপ-কমিশনার হাবিবুর রহমান বলেন, আত্মরার্থে পুলিশ প্রায় শত রাউন্ড ফাঁকা গুলি করে। হামলায় পুলিশের আট সদস্য আহত হন।
সে সময় পুলিশ স্থানীয় পাঁচজনকে আটক করে বলে তিনি জানান।পুলিশের বিরুদ্ধে মারধরের অভিযোগ এনে স্থানীয় বাসিন্দা আফরোজা বেগম বলেন, যারা উচ্ছেদে বাধা দিয়েছে তাদের কাউকে আটক করতে পারেনি পুলিশ। যারা আটক হয়েছে তারা নিরীহ মানুষ।“পুলিশ ঘরে ঢুকে বেধড়ক মারধর করে। ভাংচুর করে মালপত্র।”
পুলিশের গুলি পায়ে লেগে মাইনুল নামে এক যুবক আহত হলে তাকে শের-ই বাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয় বলে জানান আফরোজা বেগম।

বরিশালে প্রতারণা মামলায় ব্যাংকার ও যুবলীগ নেতা গ্রেফতার

বরিশাল প্রতিনিধি : জাল কাগজ দেখিয়ে ব্যাংক থেকে ঋণ নেওয়ার এক মামলায় বরিশালে ইউনাইটেড কমার্শিয়াল ব্যাংক লিমিটেডের এক কর্মকর্তা, যুবলীগের এক নেতা ও তার স্ত্রীকে গ্রেফতার করেছে দুদক। গ্রেফতাররা হলেন- ইউনাইটেড কমার্শিয়াল ব্যাংকের বরিশাল শাখার সাবেক ক্রেডিট ইনচার্জ জাকির হোসেন রাঢ়ী, ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠান শিকদার কনস্ট্রাকশনসের মালিক বরিশাল মহানগর যুবলীগের যুগ্ম আহ্বায়ক শাহিন শিকদার ও তার স্ত্রী নাইমা রহমান। দুদকের বরিশাল শাখার পরিচালক আকতার হোসেন জানান, সোমবার রাতে নগরীর গ্রাউন্ড কম্পাউড এলাকার বাড়ি থেকে শাহিন ও তার স্ত্রীকে এবং নবগ্রাম রোডের রুইয়া এলাকা থেকে রাঢ়ীকে গ্রেপ্তার করা হয়। রাতেই তাদের বরিশাল কোতোয়ালি থানায় হস্তান্তর করা হয় বলে আকতার হোসেন জানান। ঢাকায় দুর্নীতি দমন কমিশনের উপ-পরিচালক (জনসংযোগ) প্রণব কুমার ভট্টচার্য্য জানান, ইউনাইটেড কমার্শিয়াল ব্যাংক লিমিটেডের পক্ষ থেকে গতবছর ১৯ ডিসেম্বর বরিশাল কোতোয়ালি থানায় এই মামলা করা হয়। তদন্তে অভিযোগের প্রাথমিক সত্য তা পাওয়ায় কমিশনের বরিশাল সমন্বিত জেলা কার্যালয়ের উপ-পরিচালক মতিউর রহমানের নেতৃত্বে সোমবার রাতে অভিযান চালিয়ে তিনজনকে গ্রেফতার করা হয়। মামলার অভিযোগে বলা হয়েছে, ভুয়া কাগজপত্র তৈরি করে ইউনাইটেড কমার্শিয়াল ব্যাংকের বরিশাল শাখা থেকে ৩১ লাখ ৬৫ হাজার ৫০০ টাকা ঋণ নেন শাহিন শিকদার দম্পতি। তখনকার ক্রেডিট ইনচার্জ জাকির হোসেন রাঢ়ী ওই জালিয়াতিতে তাদের সহযোগিতা করেন।

 

 

 

 

 

বরিশালে শহীদ সুকান্ত বাবু শিশু হাসপাতালের নির্মাণ কাজ শুরু

বরিশাল প্রতিনিধি : বরিশালে ২০০ শয্যা বিশিষ্ট শহীদ সুকান্ত বাবু শিশু হাসপাতাল নির্মাণ কাজ উদ্বোধন করা হয়েছে।  রোববার দুপুর ১২টার দিকে বরিশাল নগরের আমানতগঞ্জ এলাকায় এ হাসপাতাল নির্মাণ কাজের উদ্বোধন করেন স্থানীয় সরকার, পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত স্থায়ী কমিটির সভাপতি আবুল হাসানাত আবদুল্লাহ। এসময় তার সঙ্গে উপস্থিত ছিলেন তার স্ত্রী বরিশাল জেলা আওয়ামী লীগের সিনিয়র সহ সভাপতি শাহান আরা আবদুল্লাহ। উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে আরও উপস্থিত ছিলেন- বরিশাল-২ আসনের এমপি তালুকদার মো. ইউনুস, বরিশাল-৪ আসনের এমপি পঙ্কজ দেবনাথ, বরিশাল সদর আসনের এমপি জেবুন্নেছা আফরোজ, বরিশাল-৩ আসনের এমপি অ্যাডভোকেট টিপু সুলতান, বরিশালের বিভাগীয় কমিশনার মো. গাউস, বরিশাল রেঞ্জের ডিআইজি শেখ মো. মারুফ হাসান, বরিশাল মেট্রোপলিটন পুলিশের কমিশনার এস এম রুহুল আমিন, বরিশালের জেলা প্রশাসক ড. গাজী মো. সাইফুজ্জামান, বরিশাল শের-ই-বাংলা চিকিৎসা মহাবিদ্যালয় হাসপাতালের পরিচালক ডা. সিরাজুল ইসলাম, বরিশাল জেলার সিভিল সার্জন ডা. শফিউদ্দিন আহম্মেদ প্রমুখ।

স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রণালয়ের আওতায় দুই একর জমির ওপর ২৪ কোটি টাকা ব্যয়ে ১০ তলা ভীতের ওপর চারতলা পর্যন্ত এ হাসপাতাল নির্মাণ করা হবে। গণপূর্ত অধিদপ্তর ও স্থাপত্য অধিদপ্তরের বাস্তবায়নে হাসপাতালের প্রকল্প বাস্তবায়নকাল ২৪ মাস ধরে খান অ্যান্ড সন্স ও সাইদুর রহমান রিন্টুর ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠানকে দেওয়া হয়েছে।

হত্যার হুমকির অভিযোগে এসআইয়ের বিরুদ্ধে মামলা

বরিশাল প্রতিনিধি : এনকাউন্টারে হত্যার হুমকি দিয়ে চাঁদা দাবির অভিযোগে বরিশালে পুলিশের এক এসআইয়ের বিরুদ্ধে মামলা হয়েছে।  বুধবার বরিশাল মুখ্য মহানগর হাকিম আদালতে মামলাটি দায়ের করেছেন রিপন মৃধা। তিনি বরিশাল নগরীর রূপাতলী গ্যাস্টারবাইন এলাকার বাসিন্দা।

বিচারক মো. আলী হোসাইন অভিযোগটি আমলে নিয়ে মহানগর হাকিম মো. আনিসুর রহমানকে বিচারবিভাগীয় তদন্তের নির্দেশ দিয়েছেন। মামলার আসামি এসআই মো. মহিউদ্দিন বরিশাল মহানগর পুলিশের কোতোয়ালি মডেল থানায় কর্মরত রয়েছেন। এসআই মহিউদ্দিন ছাড়াও মামলায় আরও ৪/৫ জনকে অজ্ঞাতনামা আসামি করা হয়েছে বলে আদালতের বেঞ্চ সহকারী শাখাওয়াত হোসেন জানান। মামলার অভিযোগে বলা হয়, মামলার দুই সাক্ষী আফজাল হোসেন ও রিপন আকন এবং বাদীর কাছে তিন লাখ টাকা চাঁদা দাবি করেন এসআই মহিউদ্দিন। টাকা না দিলে মিথ্যা মামলায় জড়িয়ে এসআই মহিউদ্দিন তাদেরকে ‘এনকাউন্টারে হত্যার হুমকি’ দেন বলে মামলায় অভিযোগ করা হয়।

এরপরও দাবিকৃত টাকা না পেয়ে গত বছরের অক্টোবরে তাদের থানায় ধরে নিয়ে নির্যাতন চালানো হয়। পরে সাজানো মামলায় তাদের জড়িয়ে কারাগারে পাঠানো হয় বলে মামলার অভিযোগ। পরে বাদী জামিনে মুক্ত হন। এ ব্যাপারে জানতে এসআই মো. মহিউদ্দিনের ব্যবহৃত মোবাইল ফোনে কল করা হলেও তিনি ফোন ধরেননি।



Go Top