রাত ৪:৩৭, শুক্রবার, ২৩শে নভেম্বর, ২০১৭ ইং
/ বিনোদন / বিশ বছরের পূর্ণতায় পপির কৃতজ্ঞতা
বিশ বছরের পূর্ণতায় পপির কৃতজ্ঞতা
অক্টোবর ১৩, ২০১৭

অভি মঈনুদ্দীন : তিনবার জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কারপ্রাপ্ত নাংিকা পপি এরইমধ্যে চলচ্চিত্রে বিশ বছর পূর্ণ করেছেন। ১৯৯৭ সালের ১৬ মে মুক্তি পায় পপি অভিনীত প্রথম চলচ্চিত্র মনতাজুর রহমান আকবর পরিচালিত ‘কুলি’। প্রথম চলচ্চিত্রে তার বিপরীতে নায়ক হিসেবে ছিলেন সেই সময়ের তুমুল ব্যস্ত নায়ক ওমরসানী। মনতাজুর রহমান আকবর এবং ্ওমরসানীর সহযোগিতায় কুলি নিজের অভিনয় দক্ষতা পর্দায় উপস্থাপন করতে পেরেছিলেন বলে প্রথম চলচ্চিত্রেই পপি দর্শকের মন জয় করে নেন। সেই ধারাবাহিকতায় আজো পপি দর্শকের মন জয় করে চলেছেন।দেখতে দেখতে চলচ্চিত্রের পথচলায় বিশ বছর পূর্ণ করে এগিয়ে চলেছেন আগামীর পথে। চলচ্চিত্র জীবনের দীর্ঘদিনের এই পথচলা প্রসঙ্গে পপি বলেন,‘ মহান আল্লাহর কাছে অসীম কৃতজ্ঞতা।

সেই সাথে আমার বাবা মা, আমার প্রথম স্টিল ফটোগ্রাফির ক্যামেরাম্যান চঞ্চল মাহমুদ ভাই, প্রথম সিনেমার পরিচালক মনতাজুর রহমান আকবর ভাই, প্রথম সিনেমার নায়ক ওমরসানী ভাই, সাপ্তাহিক আনন্দ বিচিত্রা’র সম্পাদক প্রয়াত শাহাদত চৌধুরী ভাই, প্রথম সিনেমার প্রযোজক সিদ্দিকুর রহমান ভাই, নায়ক ফারুক ভাই, আলমগীর ভাই, ববিতা ম্যাডাম, নৃত্য পরিচালক মাসুম বাবুল ভাই,গুণী বরেণ্য পরিচালক মালেক আফসারী, বাদল খন্দকার , নারগিস আক্তার , সামিয়া জামান, সৈয়দ ওয়াহিদুজ্জামান ডায়ম-’সহ সাংবাদিক ইমরুল শাহেদ’সহ আমার আরো বহু সুপারহিট চলচ্চিত্রের পরিচালকদের প্রতি। সবাই যার যার অবস্থানে থেকে আমাকে দারুণভাবে সহযোগিতা করেছেন। সর্বোপরি র্দশকের কাছে আমি অনেক বেশি কৃতজ্ঞ। কারণ তারাই আমাকে তাদের ভালোবাসা দিয়ে আজকের অবস্থানে নিয়ে এসেছেন।’  পপি প্রথম জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার পান ২০০৩ সালে সাংবাদিক ইমরুল শাহেদ’র প্রযোজনা সংস্থা ‘তন্নি তন্ময় কথাচিত্র’ প্রযোজিত কালাম কায়সার পরিচালিত ‘কারাগার’ চলচ্চিত্রে অভিনয়ের জন্য।

এরপর তিনি নারগিস আক্তারের ‘মেঘের কোলে রোদ’ এবং সৈয়দ ওয়াহিদুজ্জামান ডায়ম-ের ‘গঙ্গাযাত্রা’ চলচ্চিত্রে অভিনয়ের জন্য জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কারে ভূষিত হন।
১৯৯৫ সালে  খুলনার শিববাড়ির ইব্রাহিম মিয়া রোডের জমিদার বাড়ির কন্যা সাদিকা পারভীন পপি ‘আনন্দ বিচিত্রা ফটোসুন্দরী’ প্রতিযোগিতায় চ্যাম্পিয়ন হন। চলচ্চিত্রে অভিনয়ের আগে গিনি শহীদুল হক খানের নির্দেশনায় ‘নায়ক’ নামের একটি নাটকে অভিনয় করেন।  পপি প্রসঙ্গে মনতাজুর রহমান আকবর বলেন,‘ পপিকে আমার মেয়ের মতোই মনেকরি। একজন বাবা যখন মেয়েক বিয়ে দিয়ে দেয় তখন তাকে নিয়ে চিন্তা আরো বেড়ে যায়। সে কেমন আছে, সবার সঙ্গে খাপ খাইয়ে চলতে পারছে কী না,এমন আরো অনেক ভাবনা। পপিকে নিয়েও আমার চিন্তা ঠিক তেমনি। সে যেখানেই থাকুক, যার চলচ্চিত্রেই কাজ করুক যেন ভালো করে, ভালো থাকে এই দোয়াই আমার আজীবন থাকবে।’

পপির প্রথম সিনেমার নায়ক ওমরসানী বলেন,‘ দূর থেকে ওর জন্য শুধু দোয়া করি ও যেন ভালো থাকে। ’ পপির নিজের অভিনীত প্রিয় চলচ্চিত্রের মধ্যে রয়েছে ‘কুলি’, ‘কারাগার’, ‘মেঘের কোলে রোদ’, ‘লাল বাদশা’, ‘মেঘের কোলে রোদ’, ‘ও আমার ছেলে’, ‘রানী কুঠির বাকী ইতিহাস’, ‘কী যাদু করিলা’ ইত্যাদি। ছবি : মোহসীন আহমেদ কাওছার



লাইক দিয়ে সঙ্গে থাকুন :




Go Back Go Top