সকাল ৯:২২, শনিবার, ১৬ই ডিসেম্বর, ২০১৭ ইং
/ রাজনীতি / দেশবিরোধী কথা এক্সপাঞ্জ না করলে মানুষ এগিয়ে আসবে: আমু
দেশবিরোধী কথা এক্সপাঞ্জ না করলে মানুষ এগিয়ে আসবে: আমু
আগস্ট ২৪, ২০১৭

সংবিধানের ষোড়শ সংশোধনী বাতিলের রায়ের পর্যবেক্ষণে দেশের বিরুদ্ধে যে কথা বলা হয়েছে তা এক্সপাঞ্জ না করলে দেশের মানুষ এগিয়ে আসবে বলে মন্তব্য করেছেন আওয়ামী লীগের উপদেষ্টা পরিষদ সদস্য ও শিল্পমন্ত্রী আমির হোসেন আমু।  বৃহস্পতিবার জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে ‘নারী সংসদ সদস্য সম্পর্কে অবমাননাকর’ বক্তব্যের প্রতিবাদে প্রধান বিচারপতির পদত্যাগের দাবিতে যুব মহিলা লীগ আয়োজিত মানববন্ধনে তিনি এ মন্তব্য করেন।

প্রধান বিচারপতির উদ্দেশ্যে আমির হোসেন আমু বলেন, সংসদের বিরুদ্ধে কথা বলার আগে আপনার ভাবা উচিত, ছিল এই সংসদের মাধ্যমেই আপনার নিয়োগ। সংসদ রাষ্ট্রপতিকে আর রাষ্ট্রপতি আপনাকে নিয়োগ দিয়েছেন। সেদিকে চিন্তা রেখেই ভবিষ্যতে কথা বলবেন। তিনি বলেন, আগেও বলেছি, আজও বলছি- আমরা কিন্তু আজকের সংসদ সদস্য নই। সত্তর সাল থেকে সংসদ সদস্য; পাকিস্তান আমল থেকে। বঙ্গবন্ধুর নেতৃত্বে সরকার গঠন করেছিলাম। সেই সরকার ঐক্যবদ্ধভাবে মুক্তিযুদ্ধ পরিচালিত করেছে। দেশ স্বাধীন হয়েছে। দেশের বিরুদ্ধে যে কথা বলেছেন, তা প্রত্যাখ্যান করতে হবে, এক্সপাঞ্জ করতে হবে। না হলে দেশের মানুষ এগিয়ে আসবে। শিল্পমন্ত্রী বলেন, অন্য বিচারপতিদের মনে রাখা দরকার উনি (প্রধান বিচারপতি) যা চান, তা হল ওই জুডিশিয়ালি, ওই বিচারকদের একমাত্র দেবতা। তিনি যা বলবেন, সেটাই মানতে হবে। সব ক্ষমতা তার হাতে থাকবে। এর বাইরে কিছু থাকবে না। আজকে সেই ব্যবস্থা আমরা বিচার বিভাগে হতে দিতে পারি না। প্রধান বিচারপতি রাষ্ট্রের ক্ষমতা নিয়ে নিতে চায়। এইসব ফাইজলামির একটা সীমা আছে। এইসব ঔদ্ধত্য দেখানোর একটা সীমা আছে। আমু বলেন, আওয়ামী লীগ সরকার, শেখ হাসিনা সরকার কোনো ঠুনকো দল নয়, কোনো সামরিক জান্তার পকেট থেকে এই দলের সৃষ্টি হয়নি। আজকে অনেক দল বিশেষ করে বিএনপি নেতারা শেখ হাসিনার বক্তব্যের সমালোচনা করছেন। তারা তো করবেনই, কারণ তারা তো পাকিস্তান প্রেমিক। বাংলাদেশে একটা কথা আছে ‘সব শিয়ালের এক রা’। প্রধান বিচারপতি পাকিস্তানের বিচার ব্যবস্থার সঙ্গে তুলনা করে প্রত্যক্ষ ও পরোক্ষভাবে যে ঔদ্ধত্য দেখিয়েছেন তা সীমা ছাড়িয়ে যাচ্ছে। ভুলে গেলে চলবে না, আজাকের যিনি প্রধানমন্ত্রী, সেই শেখ হাসিনা তিনবারের প্রধানমন্ত্রী।

প্রধান বিচারপতিকে উদ্দেশ্য করে শিল্পমন্ত্রী আরো বলেন, আজকে ঘোলা পানিতে মাছ শিকার করবার জন্য যারা মাঠে নেমেছে আপনি ইতিমধ্যে নিশ্চয়ই তাদের চিনতে পেরেছেন। তারা আপনার বন্ধু নয়, শত্র“। যুব মহিলা লীগ সভাপতি নাজমা আক্তারে সভাপতিত্বে এবং সাধারণ সম্পাদক অধ্যাপিকা অপু উকিলের সঞ্চলনায় আরো বক্তব্য রাখেন আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক জাহাঙ্গীর কবির নানক। মানববন্ধনে যুব মহিলা লীগের কেন্দ্রীয় এবং ঢাকা মহানগর উত্তর ও দক্ষিণের নেতাকর্মীরা উপস্থিত ছিলেন।

 

এই বিভাগের আরো খবর



লাইক দিয়ে সঙ্গে থাকুন :




Go Back Go Top