রবিবার, ২৫ সেপ্টেম্বর ২০১৬
ad
১৯ এপ্রিল, ২০১৬ ১২:২৮:০৮
প্রিন্টঅ-অ+
জ্যেষ্ঠ নেতাদের নিয়ে বৈঠকে বসছেন খালেদা
ফাইল ফটো

প্রধানমন্ত্রীপুত্র সজীব ওয়াজেদ জয়কে অপহরণ চক্রান্তের মামলায় সাংবাদিক শফিক রেহমান গ্রেপ্তার হওয়ার প্রেক্ষাপটে বিএনপির জ্যেষ্ঠ নেতাদের নিয়ে বৈঠকে বসছেন দলের চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া।

মঙ্গলবার রাত ৯টায় গুলশানে বিএনপি চেয়ারপারসনের কার্যালয়ে এই বৈঠক হবে বলে দলের সহ দপ্তর সম্পাদক শামীমুর রহমান শামীম জানান।

তিনি বলেন, “দেশের বর্তমান রাজনৈতিক পরিস্থিতি, সাংবাদিক শফিক রেহমান গ্রেপ্তারসহ ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচন ঘিরে সরকারের তাণ্ডবসহ নানা বিষয়ে আলোচনার জন্য এই বৈঠক ডাকা হয়েছে।”

প্রধানমন্ত্রীর ছেলে সজীব ওয়াজেদ জয়ের বিষয়ে যুক্তরাষ্ট্রের আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর কাছে সংরক্ষিত তথ্য পাওয়ার জন্য এফবিআইয়ের এক সদস্যকে ঘুষ দেওয়ার অপরাধে ২০১৫ সালে যুক্তরাষ্ট্রে প্রবাসী এক বিএনপি নেতার ছেলে রিজভী আহমেদ সিজারের কারাদণ্ড হয়।

সিজারের স্বীকারোক্তির ভিত্তিতে মার্কিন আদালতের রায়ের পূর্ণাঙ্গ বিবরণে বলা হয়, বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রীর ছেলেকে ‘অপহরণ, ভয় দেখানো ও ক্ষতি করাই’ ছিল তথ্য সংগ্রহের উদ্দেশ্য।
 
সিজার কিছু তথ্য বাংলাদেশি ‘একজন সাংবাদিককে’ সরবরাহ করেছিলেন এবং বিনিময়ে ‘প্রায় ৩০ হাজার ডলার’ পেয়েছিলেন বলেও রায়ে উল্লেখ করা হয়।

ওই ঘটনাটি নিয়ে ২০১৫ সালের ৩১ মে ঢাকার রমনা থানায় একটি সাধারণ ডায়েরি (জিডি) করে পুলিশ, যা পরে মামলায় রূপান্তরিত হয়, আসামি করা হয় সিজারের বাবা যুক্তরাষ্ট্রের জাসাস নেতা মোহাম্মদ উল্লাহ মামুনকে।

শফিক রেহমানকে ওই মামলায়ই গ্রেপ্তার দেখিয়ে রিমান্ডে নিয়েছে পুলিশ। আমার দেশ পত্রিকার ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক কারাবন্দি মাহমুদুর রহমানকেও এ মামলায় গ্রেপ্তার দেখানোর আবেদন করা হয়েছে।

নানা সংবাদ মাধ্যমে কাজ করা শফিক রেহমান গত শতকের ৮০ এর দশকে সাপ্তাহিক যায়যায়দিন সম্পাদনার মধ্য দিয়ে ব্যাপক পরিচিতি পান। এক দশক পরে বিএনপির সঙ্গে তার ঘনিষ্ঠতা গড়ে ওঠে। খালেদা জিয়ার নানা কর্মসূচিতেও তাকে দেখা যায়।

বিএনপি নেতারা অভিযোগ করেছেন, সরকারের ‘নোঙরা’ কূটকৌশলের অংশ হিসেবে শফিক রেহমানকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। অবশ্য সজীব ওয়াজেদ জয় বলেছেন, শফিক রহমানের বিষয়ে যুক্তরাষ্ট্র থেকে তারা ‘প্রমাণ’ পেয়েছেন।
 
  • সর্বশেষ খবর
  • সর্বাধিক পঠিত

রাজনীতি এর অারো খবর