বুধবার, ০৭ ডিসেম্বর ২০১৬
ad
  • হোম
  • জাতীয়
  • ৫ মে শাহবাগ থেকে ‘পার্লামেন্ট মার্চ’
০৮ এপ্রিল, ২০১৬ ২১:২৭:৪৫
প্রিন্টঅ-অ+
৫ মে শাহবাগ থেকে ‘পার্লামেন্ট মার্চ’
তনু হত্যার প্রতিবাদে ও বিচারের দাবিতে আগামী ৫ মে সকাল ১০টায় শাহবাগ থেকে জাতীয় সংসদ অভিমুখে  ‘পার্লামেন্ট মার্চের’ ঘোষণা দিয়েছে গণজাগরণ মঞ্চ। `জাস্টিস ফর তনু`  শিরোনামে এ কর্মসূচি পালন করবে গণজাগরণ মঞ্চ।   শুক্রবার সন্ধ্যায় শাহবাগের প্রজন্ম চত্বরে আয়োজিত এক সমাবেশে এ ঘোষণা দেন গণজাগরণ মঞ্চের মুখপাত্র ডা. ইমরান এইচ সরকার।   তিনি বলেন, ‘একের পর এক ঘটনার বিচার না হওয়ায় অপরাধীরা এতো বেপরোয়া হয়ে উঠেছে যে, ধর্ষণের বিরুদ্ধে সারাদেশে যখন আন্দোলন চলছে, সেই সময়েও বাসের ভেতরে ধর্ষণের ঘটনা ঘটছে। অপরাধীদের ধরার কোনো চেষ্টা না করে প্রশাসন বক্তব্য বিবৃতি দিয়েই ক্ষান্ত হয়ে যাচ্ছে।’   তিনি বলেন, ‘গত বছরের পাঁচ ব্লগার-লেখক খুন থেকে শুরু করে রিজার্ভ লুট, ধর্ষণ করে হত্যা কোনো ঘটনারই বিচার হয়নি। কুমিল্লায় তনুর ভাইয়ের বন্ধু সোহাগকে অপহরণ করা হলো, প্রতিটি অন্যায়ের বিরুদ্ধে সোচ্চার নাজিমুদ্দিন সামাদকে খুন করা হলো। অপরাধীদের ধরা হচ্ছে না, যারা অপরাধের প্রতিবাদ করছে, তাদেরকেই খুন করা হচ্ছে।’   প্রশাসনের নিষ্ক্রিয়তার কথা উল্লেখ করে তিনি বলেন, ‘অপরাধ ধামাচাপা দেওয়ার এক নতুন মডেল তৈরি হয়েছে। প্রতিটি খুনের পর বলা হচ্ছে অপরাধীরা `আল্লাহু আকবার` স্লোগান দিয়ে পালিয়ে গেছে। একটা সুনির্দিষ্ট গোষ্ঠীর দিকে দেখিয়ে আসল ঘটনা আড়াল করা হচ্ছে। জনগণের মধ্যে বিভেদ তৈরি করা হচ্ছে। ধর্মীয় স্লোগানের কথা তুলে দুইটি পক্ষ তৈরি করা হচ্ছে, এক পক্ষ আরেক পক্ষকে দোষারোপে ব্যস্ত থাকছে,  আর এই ফাঁকে সরকারি লোকজন ব্যস্ত রিজার্ভ লুটে। অপরাধীদের আর বিচার হচ্ছে না।’   তিনি আরো বলেন, ‘দেশে যে শাসন চলছে, তা কোনোভাবেই গণমানুষের আকাঙ্ক্ষার শাসন নয়। প্রশাসন যদি দাবি করে থাকে যে জঙ্গি গোষ্ঠী এই খুন করেছে, তাহলে খুনিদের গ্রেফতার করে তারপর তাদের প্রমাণ করতে হবে কারা জড়িত। অপরাধীদের গ্রেফতারের কোনো চেষ্টা না করে বারবার একই স্ক্রিপ্ট পড়ে পার পেয়ে যাবেন, আমরা তা মেনে নেবো না। একটার পর একটা ঘটনা ঘটছে, আর আপনারা একদিন আনসারুল্লাহ, একদিন অমুক, একদিন তমুককে দায়ী করে ফাঁকা বুলি দিচ্ছেন, অপরাধীদের ধরায় কোনো আগ্রহ দেখাচ্ছেন না। তাই আমাদের সন্দেহ জাগে, এই হত্যার পেছনে এমন কেউ আছে, যে কারণে আইনশৃঙ্খলা বাহিনী কালো চশমা পড়ে আছে। তাই নাজিমুদ্দিন হত্যার দায় সরকারের ওপরেই বর্তায়।’   সমাবেশ শেষে একটি বিক্ষোভ মিছিল বের করা হয়। মিছিলটি শাহবাগ থেকে শুরু হয়ে টিএসসি হয়ে আবার শাহবাগে এসে শেষ হয়।
  • সর্বশেষ খবর
  • সর্বাধিক পঠিত

জাতীয় এর অারো খবর