শুক্রবার, ৩০ সেপ্টেম্বর ২০১৬
ad
২০ এপ্রিল, ২০১৬ ১৫:২১:৩০
প্রিন্টঅ-অ+
স্বাস্থ্যমন্ত্রীর পদত্যাগ দাবি
স্বাস্থ্যমন্ত্রী মোহাম্মদ নাসিমের পদত্যাগ দাবি করেছেন বাংলাদেশ নার্সেস ঐক্য পরিষদের আহ্বায়ক ইসমত আরা পারভীন।

বুধবার জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে মানববন্ধন করে তিনি এ দাবি জানান। প্রধানমন্ত্রীর সাত বছর পূর্বের ঘোষণা বাস্তবায়নসহ নার্স সমাজে বিরাজমান সমস্যা সমাধানে বাংলাদেশ নার্সেস ঐক্য পরিষদের ব্যানারে এ মানববন্ধন করা হয়। বাংলাদেশ নার্সেস ঐক্য পরিষদ সরকারি নার্সদের সংগঠন।

তিনি বলেন, ‘মোহাম্মদ নাসিম স্বাস্থমন্ত্রী হিসেবে দায়িত্ব পাওয়ার পর খুবই আনন্দিত হয়েছিলাম। কিন্তু এখন ওনাকে ধিক্কার জানাই, ওনার পদত্যাগ চাই । ’

তিনি ক্ষোভের সঙ্গে বলেন, ‘অনেক দিন বেকার নার্সরা রাস্তায় বসে আছে। স্বাস্থ্যমন্ত্রীর উচিত ছিল তাদের সমস্যা কোথায় সেটা জানা। তাদের সঙ্গে আলোচনা করা।’

তিনি অভিযোগ করে বলেন, ‘আমি আমার নার্সদের ব্যাপারে বারবার কথা বলেছি, উনি একবারও কর্ণপাত করেননি। উনি আছেন শুধু বদলি বাণিজ্য করার জন্য ।’

ইসমত আরা পারভীন বলেন, দেওয়ালে পিঠ ঠেকে যাওয়ায় তারা রাস্তায় আসতে বাধ্য হয়েছেন। নার্সদের দফতরে আমলারা বদলি বাণিজ্য করে খাচ্ছে বলে অভিযোগ করেন।

স্বাস্থ্যমন্ত্রীকে হুশিয়ারি দিয়ে তিনি বলেন, ‘তিনি চাকরি খেলেও তাতে ভয় নেই। তাদের সঙ্গে আলোচনায় না আসলে হাসপাতাল ক্লপস করে দেওয়া হবে।’

ইসমত আরা পারভীন বলেন, ‘নার্সদের জন্য প্রধানমন্ত্রী আছেন। নার্সরা প্রধানমন্ত্রীর বাসার সামনে গিয়ে বসবে।’

প্রধানমন্ত্রীর প্রতিশ্রুতির কথা তুলে ধরে নার্স সংগঠনের এই নেতা বলেন, ‘প্রধানমন্ত্রী তাদের এক অনুষ্ঠানে পাঁচ হাজার নার্স নিয়োগের ঘোষণা দিয়েছিলেন। ২০১৪ সালে আরো ১০ হাজার নার্স নিয়োগের ঘোষণা দেন। তার ঘোষণার পর দুই বছর অতিবাহিত হলেও আজো ঘোষণার বাস্তবায় হচ্ছে না। নার্সিংয়ে পূর্নাঙ্গ রুপ দেওয়ার জন্য যা যা করা প্রয়োজন,সব করার প্রতিশ্রুতি দিয়েছিলেন। মহাখালীতে নার্স ভবন করে দেওয়ার প্রতিশ্রুতি দেন। জায়গা পেয়েছি। কিন্তু ভবন তৈরি এখনো হয় নি।’

তিনি বলেন, ‘দ্বিতীয় শ্রেণির পদমর্যাদার নার্সদের প্রথম শ্রেণির পদমর্যাদা দেওয়ার কথা বললেও নার্সরা আজো প্রথম শ্রেণির পদমর্যাদা পায়নি।’

প্রধানমন্ত্রী নার্সদের যে সব প্রতিশ্রুতি দিয়েছিলেন, দ্রত তা বাস্তবায়ন করবেন বলে আশা প্রাকশ করেন।

এই মানববন্ধন থেকে তারা নয় দফা দাবি তুলেছেন। একই সঙ্গে  আরো দুই দিনে কর্মসূচি দিয়েছেন। কর্মসূচি হচ্ছে ২৪ এপ্রিল কেন্দ্রয় শহীদ মিনার থেকে প্রধানমন্ত্রী ও স্বাস্থ্যমন্ত্রীর বরাবর স্মারকলিপি প্রদান কর্মসূচি পালন করা হবে। ২৯ম এপ্রিল মহাসমোবেশের মাধ্যমে বৃহত্তর ও কঠোর কর্মসূচি ঘোষণা করা হবে।

তাদের নয় দফা দাবির মধ্যে প্রথমেই রয়েছে, ২৮ মার্চ পিএসসির দেওয়া নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি বাতিল করে পূর্বের মত ব্যাচ, মেধা ও জ্যেষ্ঠতার ভিত্তিতে নিয়োগ বাস্তবায়ন। সেই সঙ্গে প্রধানমন্ত্রীর ঘোষণা অনুযায়ী ১০ হাজার পদ সৃষ্টিসহ সকল শূন্য পদে ৮৯ শতাংশ ডিপ্লোমা ও ১১ শতাংশ বেসিক বিএসসি থেকে নিয়োগ দিতে হবে।

মানববন্ধনে বক্তব্য রাখেন বাংলাদেশ নার্সেস ঐক্য পরিষদের সদস্য সচিব  মো. মোস্তাফিজুর রহমান, স্বাধীনতা নার্স পরিষদের  সভাপতি হাসনা বেগম, মহাসচিব জসিম উদ্দিন বাদশা, স্টাফ নার্সে অ্যাসোসিয়েশনের সভাপতি নাজমুল হোসেন মিলনসহ বাংলাদেশ ডিপ্লোমা বেকার নার্সেস অ্যাসোসিয়েশন ও বাংলাদেশ বেসিক গ্রাজুয়েট নার্সেস সোসাইটির নেতৃবৃন্দ।
  • সর্বশেষ খবর
  • সর্বাধিক পঠিত

সভা সমাবেশ এর অারো খবর