বুধবার, ২৮ সেপ্টেম্বর ২০১৬
ad
১৩ এপ্রিল, ২০১৬ ১১:৩৫:১০
প্রিন্টঅ-অ+
মোস্যাক ফনসেকার সদরদপ্তরে হানা

বিশ্বের শত শত প্রভাবশালী ব্যক্তির কর ফাঁকির তথ্য ফাঁস হওয়ার পর আলোচনার কেন্দ্রে চলে আসা আইনি পরামর্শক প্রতিষ্ঠান মোস্যাক ফনসেকার সদরদপ্তরে অভিযান চালিয়েছে পানামার পুলিশ।

বিবিসির এক প্রতিবেদনে বলা হয়, মঙ্গলবার পানামা সিটিতে অ্যাটর্নি জেনারেলের অফিসের পক্ষ থেকে চালানো এই অভিযানে দেশটির ‘সংগঠিত অপরাধ দমন ইউনিট’ এর সদস্যরাও অংশ নেন। কোনো ধরনের বিশৃঙ্খলা ছাড়াই শান্তিপূর্ণভাবে অভিযান শেষ হয়।

মোস্যাক ফনসেকার মাধ্যমে অফশোর লেনদেনের এক কোটি দশ লাখ নথি জার্মান পত্রিকা ‘জুডডয়েচে সাইটুং’ এর হাতে এলে ওয়াশিংটনভিত্তিক ইন্টারন্যাশনাল কনসোর্টিয়াম অফ ইনভেস্টিগেটিভ জার্নালিস্ট এর মাধ্যমে তা চলতি মাসের শুরুতে সারা বিশ্বের সংবাদ মাধ্যমে আসতে শুরু করে। এ ঘটনা পরিচিত হয়ে ওঠে পানামা পেপার্স কেলেঙ্কারি নামে।

বিশ্বের ধনী আর ক্ষমতাধর ব্যক্তিরা কোন কৌশলে গোপন সম্পদের পাহাড় গড়েছেন এবং গত ৪০ বছর ধরে মোস্যাক ফনসেকা তাদের ক্ষমতাশালী মক্কেলদের কীভাবে কর ফাঁকি দিতে ও অর্থ পাচারে সহযোগিতা করেছেন তা বেরিয়ে আসতে থাকে এসব নথি থেকে।

পানামা পেপার্সে নাম আসার পর জনদাবির মুখে পদত্যাগে বাধ্য হন আইসল্যান্ডের প্রধানমন্ত্রী সিগমুন্ড গুনলাগসন। দুর্নীতিবিরোধী সংগঠন ট্রান্সপারেন্সি ইন্টারন্যাশনালের চিলি চ্যাপ্টারের প্রধানকেও পদত্যাগ করতে হয়।

শুরু থেকেই অভিযোগ অস্বীকার করে আসা মোস্যাক ফনসেকা বলছে, তাদের নথি ফাঁস হয়নি, হ্যাকড হয়েছে। আর তাদের কাজ নিয়ে কোনো অভিযোগও এর আগে কখনো ওঠেনি।

মোস্যাক ফনসেকার সদর দপ্তরে অভিযানের পর পানামার অ্যাটর্নি জেনারেলের কার্যালয় এক বিবৃতিতে জানায়,

গণমাধ্যমে এই ল’ ফার্মের ‘অবৈধ কর্মকাণ্ডের’ যেসব খবর এসেছে, সে বিষয়ে তথ্যপ্রমাণ খুঁজতেই তারা তল্লাশি চালিয়েছেন।

সদরদপ্তর ছাড়াও তদন্ত কর্মকর্তারা মোস্যাক ফনসেকার সহযোগী কয়েকটি প্রতিষ্ঠানেও অভিযান চালিয়েছেন বলে ওই বিবৃতিতে জানানো হয়।

মোস্যাক ফনসেকার নথি ফাঁসের পর পানামার প্রেসিডেন্ট হুয়ান কার্লোস ভারেলা প্রতিশ্রুতি দিয়েছিলেন, তার দেশ অন্য দেশগুলোর সঙ্গে মিলে অফশোর অর্থনৈতিক প্রতিষ্ঠানগুলোর আর্থিক স্বচ্ছতা উন্নয়নে কাজ করবে।

প্রতিষ্ঠানটির প্রতিষ্ঠাতা র্যা মন ফনসেকা গত সপ্তাহে বার্তা সংস্থা রয়টার্সকে দেওয়া সাক্ষাৎকারে দাবি করেন, ফাঁস নয়, দেশের বাইরে থেকে হ্যাকিংয়ের মাধ্যমে তাদের তথ্য চুরি করে সেগুলো ‘ভুলভাবে উপস্থাপন’ করা হচ্ছে।

হ্যাকিংয়ের বিষয়ে মোস্যাক ফনসেকা পানামার অ্যাটর্নি জেনারেলের কার্যালয়ে একটি অভিযোগও দায়ের করেছে বলে জানান তিনি।

র্যা মন পানামার বর্তমান সরকারের মন্ত্রী ছিলেন। ব্রাজিলের রাষ্ট্র নিয়ন্ত্রিত তেল কোম্পানি পেট্রোবাসের দুর্নীতি কেলেঙ্কারিতে নাম আসার পর তাকে সরিয়ে দেওয়া হয়।
 
  • সর্বশেষ খবর
  • সর্বাধিক পঠিত