শনিবার, ০১ অক্টোবর ২০১৬
ad
২৮ এপ্রিল, ২০১৬ ২৩:২১:০৬
প্রিন্টঅ-অ+
৯৩টি ঔষধ কারখানার লাইসেন্স বাতিল করা হয়েছে'
স্বাস্থ্যমন্ত্রী মোহম্মদ নাসিম জানিয়েছেন, ওষুধ আইন লঙ্ঘনের কারণে ২০১৫ সালের জানুয়ারি হতে ২০১৬ সালের মার্চ পর্যন্ত ৯৩টি ঔষধ প্রস্তুতকারী কারখানার লাইসেন্স সাময়িকভাবে বাতিল করা হয়েছে এবং ৪টি প্রতিষ্ঠানের ঔষধ উৎপাদন ও বাজারজাতকরণ স্থগিত করা হয়েছে। এছাড়া ৭৯ টি ওষুধের রেজিস্ট্রেশন সাময়িক বাতিল করা হয়েছে এবং ৯ টি নিয়মিত মামলা দায়েল করা হয়েছে। উক্ত সময়ে ঔষুধ প্রশাসন অধিদপ্তর কর্তৃক ১ হাজার ৬৬৫ টি ঔষধ প্রস্তুতকারী কারখানা পরিদর্শন প্রতিবেদনের প্রেক্ষিতে এ সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়।

ডেপুটি স্পিকার ফজলে রাব্বি মিয়ার সভাপতিত্বেদশম অধিবেশনের বৃহস্পতিবারের প্রশ্নোত্তর পর্বে ইসরাফিল আলমের এক লিখিত প্রশ্নের জবাবে মন্ত্রী এ তথ্য জানান।

স্বাস্থ্যমন্ত্রী জানান, দেশে মোট ৮৬৩ টি ঔষধ প্রস্তুতকারী কারখানা রয়েছে। এর মধ্যে এলোপ্যাথিক ঔষধ কারখানা ২৮০ টি, ইউনানী ২৬৬ টি, আয়ুর্বেদিক ২০৭ টি, হোমিওপ্যাথিক ৭৯টি ও হার্বাল ঔষধ কারখানা রয়েছে ৩২টি।

আশরাফ খানের অপর এক প্রশ্নের জবাবে স্বাস্থ্যমন্ত্রী জানান, ২০১৫ সালের জানুয়ারী থেকে ২০১৬ সালের মার্চ মাস পর্যন্ত  ভ্রাম্যমান আদালত কর্তৃক সারা দেশে নকল ও ভেজাল ওষুধ  উৎপাদন ও বিক্রয়কারী ১ হাজার ৬৬৭ টি প্রতিষ্ঠানকে মোট ৪ কোটি বাইশ লাখ ৬৫ হাজার ৮০০ টাকা জরিমানা করা হয়েছে, ৪০ জনকে বিভিন্ন মেয়াদে কারাদন্ড, ৬১ টি প্রতিষ্ঠান সিলগালা ও আনুমানিক ২৪ কোটি টাকার নকল ওষুধ ধ্বংস করা হয়েছে।
 
  • সর্বশেষ খবর
  • সর্বাধিক পঠিত

স্বাস্থ্য এর অারো খবর