মঙ্গলবার, ০৬ ডিসেম্বর ২০১৬
ad
২৯ এপ্রিল, ২০১৬ ১৮:২৮:৩৪
প্রিন্টঅ-অ+
কলকাতায় বাধার মুখে শাকিবের ‘শিকারী’
কলকাতায় বাধার মুখে পড়েছিল ঢাকাই চলচ্চিত্রের জনপ্রিয় চিত্রনায়ক শাকিব খান অভিনীত শিকারী সিনেমার শুটিং। বেশ কিছু দিন ধরেই কলকাতায় যৌথ প্রযোজনায় নির্মিতব্য এ চলচ্চিত্রের শুটিং করছেন তিনি। কিন্তু গত ২০ এপ্রিল হঠাৎ চলচ্চিত্রটির শুটিং বন্ধ করে দেয়া হয়। এমনটাই জানিয়েছে ভারতীয় একটি সংবাদমাধ্যম।

শিকারী চলচ্চিত্রে শাকিবের বিপরীতে অভিনয় করছেন কলকাতার অভিনেত্রী শ্রাবন্তী। চলচ্চিত্রটি যৌথভাবে পরিচালনা করছেন জাকির হোসেন সীমান্ত ও জয়দেব। যৌথভাবে প্রযোজনা করছে বাংলাদেশের জাজ মাল্টিমিডিয়া ও ভারতের এসকে মুভিজ।

ভারতীয় সংবাদমাধ্যমকে এসকে মুভিজের অধিকর্তা হিমাংশু ধানুকার অভিযোগ করেন, গত ১৮-২১ এপ্রিল বোলপুরে তাদের চলচ্চিত্রের শুটিংয়ের কথা ছিল। কিন্তু ‘ফেডারেশন অব সিনে টেকনিশিয়ান্স অ্যান্ড ওয়ার্কার্স অব ইস্টার্ন’ ২০ এপ্রিল আচমকাই শুটিং বন্ধ করার নির্দেশ দেয়। এই ফেডারেশনের সাধারণ সম্পাদক অপর্ণা ঘটকের স্বামী পিন্টু ঘটকের সংস্থা থেকে ডান্সার নেননি বলেই এই আপত্তি। যদিও পরে বিষয়টি নিষ্পত্তি হয়। কিন্তু বোলপুরে দ্বিতীয় দফায় শুটিংয়ের সময় ফের আপত্তি আসে ফেডারেশনের সভাপতি স্বরূপ বিশ্বাসের কাছ থেকে।

এ প্রসঙ্গে হিমাংশু বলেন, ‘২৯ এপ্রিল আমাদের বাকি শুটিং করার কথা ছিল। নিয়ম অনুসারে আমরা ফেডারেশনকে বিষয়টি ২৫ এপ্রিল ই-মেইল মারফত জানাই। ২৭ এপ্রিল ফেডারেশনের অফিসে একটি চিঠিও দিয়ে আসা হয়। কিন্তু ২৮ এপ্রিল, বৃহস্পতিবার স্বরূপ বিশ্বাস জানান, আমরা শুটিং করতে পারব না। কেন এভাবে বার বার আমাদের ঝামেলায় ফেলা হচ্ছে তা জানি না।’

দ্বিতীয় দফার শুটিং বন্ধের বিষয়ে স্বরূপ নাকি জানিয়েছেন, অন্তত ১৫দিন আগে শুটিংয়ের সব তথ্য ফেডারেশনকে না দিলে তারা শুটিংয়ের অনুমতি দিতে পারবে না। অথচ হিমাংশু বলছেন, এই রকম কিছু নাকি ফেডারেশনের নিয়মাবলিতে লেখা নেই।

প্রকাশিত খবরে আরো জানা যায়, এসকে মুভিজের সঙ্গে ফেডারেশনের বিরোধ আগেও হয়েছে। লন্ডনে ‘আশিকি’ চলচ্চিত্রের শুটিংয়ে কতজন টেকনিশিয়ান নিয়ে যাওয়া হবে, তা নিয়েই ছিল ওই বিরোধ। তারপর একদিন শুটিং বন্ধও ছিল।

শুটিং বন্ধ করা প্রসঙ্গে ফেডারেশনের সাধারণ সম্পাদক অপর্ণা ঘটক বলেন, ‘শুটিং বন্ধের কোনো ব্যাপার নেই। কে বলল এ সব! ওরা যাচ্ছে তো শুটিং করতে। কোন সমস্যা নেই। এ বিষয়ে ফেডারেশনের সভাপতি স্বরূপও একই বক্তব্য দিয়েছেন। তিনি বলেন, ‘সমস্যার সমাধান হয়ে গেছে।’
 
এ প্রসঙ্গে হিমাংশু জানান, ফেডারেশন নাকি এখনো তাদের শুটিংয়ের অনুমতি দেয়নি। তার অভিযোগ, স্বরূপ স্বেচ্ছাচার করছেন। নিয়মাবলির ‘কেস টু কেস’ শর্তের সুযোগ নিয়ে তিনি নিজের মতামত চাপাচ্ছেন। যদিও স্বরূপ এই অভিযোগও অস্বীকার করেন।

হিমাংশু বলেন, ‘শাকিব খান আমাদের অতিথ। তার সামনে এমন ঘটনা আমাদের মাথা নিচু করে দিল। ‘ভেঙ্কটেশ ফিল্মস’, শ্রাবন্তী, দেব, অরিন্দম শীল সকলেই আমার পাশে আছেন। ওরাও ফেডারেশনকে নিয়ে বিরক্ত।’

এ বিষয়ে কলকাতার এসকে মুভিজের ক্রিয়েটিভ হেড সুরজিত চ্যাটার্জি  বলেন, ‘আমাদের গিল্ড থেকে নৃত্যশিল্পী না নেয়ার কারণে এই সমস্যা হয়েছি। এজন্য একদিন শুটিং বন্ধ ছিল। তবে তার পরদিনই থেকেই আবার শুটিং শুরু হয়েছে। এ জন্য গিল্ড থেকে ওনারা ক্ষমাও চেয়েছেন। এ নিয়ে আমাদের স্থানীয় পত্রিকাতেও লেখালেখিও হয়েছে, যাতে ফেডারেশনের কিছু নিয়মনীতি পরিবর্তন করা হয়।’   

গত ১১ মার্চ শিকারী চলচ্চিত্রের শুটিংয়ের উদ্দেশ্যে কলকাতায় গিয়েছেন শাকিব খান। দীর্ঘদিন ধরেই শুটিং নিয়ে ব্যস্ত সময় পার করছেন তিনি। দেশে ফিরেই বসগিরি চলচ্চিত্রের শুটিংয়ে তার অংশ নেয়ার কথা রয়েছে।  
 
  • সর্বশেষ খবর
  • সর্বাধিক পঠিত

বিনোদন এর অারো খবর