রবিবার, ১১ ডিসেম্বর ২০১৬
ad
২৮ এপ্রিল, ২০১৬ ১২:৩০:০২
প্রিন্টঅ-অ+
যুক্তরাষ্ট্রে অনলাইন বিজ্ঞাপনে আয় বেড়েছে ২০%

যুক্তরাষ্ট্রের অনলাইন বিজ্ঞাপনী সংস্থাগুলো গত বছর ৫৯ দশমিক ৬ বিলিয়ন ডলার আয় করেছে, যা তার আগের বছরের চেয়ে ২০ শতাংশ বেশি।

এ খাতে আয় বৃদ্ধির হার আগের যে কোনো সময়ের চেয়ে বেশি বলে আন্তর্জাতিক খ্যাতিসম্পন্ন নিরীক্ষা প্রতিষ্ঠান প্রাইসওয়াটারহাউসকুপারসের (পিডব্লিউসি) এক প্রতিবেদনে বলা হয়েছে। ইন্টারঅ্যাকটিভ অ্যাডভার্টাইজিং ব্যুরোর  (আইএবি) জন্য পিডব্লিউসির যুক্তরাষ্ট্র শাখা এই প্রতিবেদন তৈরি করেছে।

২০১৪ সালে এ খাতে আয় হয়েছিল ৪৯ দশমিক ৫ বিলিয়ন ডলার, যা তার আগের বছরের চেয়ে ৬ দশমিক ৭ বিলিয়ন ডলার বেশি।   

যুক্তরাষ্ট্রে ডিজিটাল বিজ্ঞাপনের আয়ে এই প্রবৃদ্ধিকে ‘ভালো’ বলছেন আইএবির সিনিয়র ভাইস প্রেসিডেন্ট শেরিল ম্যানে।

তিনি বলেন, যুক্তরাষ্ট্রের মন্দার সময় কিছুটা ‘শ্লথ’ থাকলেও ২০০৯ সালের পর থেকে এই খাত ‘অভাবনীয়’ সাফল্য দেখিয়ে যাচ্ছে।

টানা ষষ্ঠ বছরের মতো এ খাতে প্রবৃদ্ধি দুই অংকের ঘরে রয়েছে বলে জানান তিনি।

পিডব্লিউসির প্রতিবেদনে ২০১৫ সালে আয় বৃদ্ধির ‘উল্লম্ফনের’ পিছনে মোবাইলের মতো নতুন ক্ষেত্রগুলোর বড় ভূমিকার কথা বলা হয়েছে। এখানে আয় আগের বছর থেকে ৬৬ শতাংশ বেড়ে ২০ দশমিক ৭ বিলিয়ন ডলারে দাঁড়িয়েছে, যা ডিজিটাল বিজ্ঞাপন খাতে আয়ের প্রায় ৩৫ শতাংশ।

এছাড়া ভিডিও বিজ্ঞাপনে আয় আগের বছরের চেয়ে ৩০ শতাংশ বেড়ে ৪ দশমিক ২ বিলিয়ন ডলার এবং সোশ্যাল মিডিয়ায় ৫৫ শতাংশ বেড়ে ১০ দশমিক ৯ বিলিয়ন ডলার হয়েছে।

অনলাইন জায়ান্ট অ্যালফাবেট ইনকরপোরেটও গত বছর তাদের বিজ্ঞাপনী আয় আগের বছরের তুলনায় ২০ শতাংশ বেড়েছে বলে এক প্রতিবেদনে জানিয়েছে। জনপ্রিয় সার্চ ইঞ্জিন গুগল ও ভিডিও সাইট ইউটিউবের মূল প্রতিষ্ঠান অ্যালফাবেট অনলাইন বিজ্ঞাপনে আয়ে প্রবৃদ্ধির এই হার আগামী বছর আরও বাড়বে বলে আশা করছে।

“ক্রেতারা ক্রমান্বয়েই ডিজিটাল মিডিয়ার প্রতি আস্থাশীল হচ্ছে। বাজারের পণ্যও এমনভাবে সাজানো হচ্ছে, যেন ডিজিটাল মিডিয়ার মাধ্যমেই ক্রেতার কাছে তা সহজে পৌঁছানো যায়,” বলেন শেরিল ম্যানে।

অর্থনীতিতে নানা অনিশ্চয়তা সত্ত্বেও অনলাইন বিজ্ঞাপনের খাতকে ‘সম্ভাবনাময়’ হিসেবে দেখছেন আইএবির গবেষণা বিভাগের শীর্ষ কর্মকর্তা ম্যানে।

“পরিস্থিতি যদি স্থিতিশীল থাকে এবং অনাকাঙিক্ষত কিছু না ঘটে, তাহলে ২০১৬ সালেও এ অগ্রযাত্রা অব্যাহত থাকবে, এমনটাই ধরে নেওয়া যায়,” বলেন তিনি।
 
  • সর্বশেষ খবর
  • সর্বাধিক পঠিত

অর্থ-বাণিজ্য এর অারো খবর