মঙ্গলবার, ২৭ সেপ্টেম্বর ২০১৬
ad
  • হোম
  • দেশজুড়ে
  • বগুড়া সংঘর্ষে নিহত ১; ব্যাবসা প্রতিষ্ঠানে অগ্নি সংযোগ
    |    
৩০ এপ্রিল, ২০১৬ ২১:২৮:৫৮
প্রিন্টঅ-অ+
বগুড়া সংঘর্ষে নিহত ১; ব্যাবসা প্রতিষ্ঠানে অগ্নি সংযোগ



বগুড়া সদরের এরুলিয়া ইউনিয়নের বানদীঘি গ্রামে পুর্ব বিরোধের জের ধরে দু’গ্র“পের মধ্যে সংঘর্ষে ওয়াহেদ আলী(৫৫) নামে এক মুদি দোকানী নিহত ও কমপেক্ষ ১০জন আহত হয়েছে। এঘটনায় বিক্ষুদ্ধ লোকজন শনিবার সকালে প্রতিপক্ষ গ্রুপের লোকজনের বাড়ি ঘর ও ব্যবসা প্রতিষ্ঠানে হামলা চালিযে ব্যাপক ভাংচুর ও অগ্নিসংযোগ করে। এতে ১০টি বাড়ি, ৫টি দোকান ও একটি গোডাউন পুড়ে যায়। ফায়ার সার্ভিস প্রায় ৪ ঘন্টা চেষ্টা চালিয়ে আগুন নিয়ন্ত্রনে আনে। আহতদের মধ্যে ৯ জন বগুড়া মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছে। এরা হলো- সামাদ আলী(৬০),সোহাগ(৪০), এখলাস(২৫), বাবলু মিয়া(৬০), সবুজ(৩৮), খোকন(২৫), মজিদ(৩৫), ইব্রাহিম(৪০) ও রমজান আলী(৬০)। এছাড়া আপেল(২৫) নামে অপর এক ব্যক্তি আহত।

পুলিশ ও স্থানীয় লোকজন জানায়, ব্যবসায়িক ও পারিবারিক বিরোধ নিয়ে বানদিঘী পুর্বপাড়া গ্রামের হিরু মন্ডল ও মিলন গ্রুপের মধ্যে গত কয়েক দিন ধরে বিরোধ চলছিলো। এরা দু’ জনই ফার্নিচার ব্যাবসায়ী। সদর থানা পুলিশ জানায় এর সঙ্গে নারী ঘটিত একটি ঘটনাও দু’পক্ষের মধ্যে আরো উত্তেজনা সৃষ্টি করে ।এর জের ধরে  শুক্রবার সকাল ও দুপুরে দু’ গ্রুপের লোকজনের মধ্যে ধাওয়া পাল্টা ধাওয়া হয়। এনিয়ে স্থানীয় কাউন্সিলর ও পরে ইউপি চেয়ারম্যান দু পক্ষকে নিয়ে শালিস বৈঠক করে। কিন্তুু সন্ধ্যার দিকে দু’ পক্ষের মধ্যে উত্তেজনা ছড়িয়ে পড়ে। একপক্ষ স্থানীয় চাতালের মোড় অপর পক্ষ রস্তার  উত্তরপার্শ্বে অবন্থান নেয়। একপর্যায়ে দু’পক্ষের মধ্যে সংঘর্ষ বাঁধে। এতে ১১ জন আহত হয়। আহতের বগুড়া শহীদ জিয়াউর রহমান  মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে ভর্তির পর রাত ৩ টার দিকে চিকিৎসাধীন অবস্থায় একজন মারা যায়। শনিবার সকালে মৃত্যুর খবর ছড়িয়ে পড়লে প্রতিপক্ষ গ্রুপের লোকজন মিলন ও তার আত্মীয় স্বজন সহ তাদের লোকজনের ব্যবসা প্রতিষ্ঠান  ও বাড়িতে হামলা চালিয়ে ভাংচুর ও আগুন লাগাতে শুরু করে। একের পর এক বাড়ি ঘর ও দোকানপাটে ভাংচুরের ঘটনায় পুরো এলাকায় আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়ে। আগুনে মটর সাইকেল থেকে শুরু করে বাড়ি ঘরের সব কিছু পুড়ে যায়। পরে পুলিশ গিয়ে পরিস্থিতি শান্ত করে। সকাল সোয়া ৭ টা থেকে সাড়ে ১১ টা পর্যন্ত ফায়ার  সার্ভিস আগুন নেভায়। ঘটনাস্থলে অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হলেও পুরো এলাকায় থমথমে অবস্থা বিরাজ করছে। পুড়ে যাওয়া বাড়ি ঘর ও দোকানপাট থেকে বেলা  ১১ টা পর্যন্ত ধোঁয়া বের হতে দেখা যায়। আহতদের মধ্যে ৯ জন হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছে। শুক্রবারের মারপিটের ঘটনায় রাতেই সদর থানায় একটি মামলা দায়ের হয়।
  • সর্বশেষ খবর
  • সর্বাধিক পঠিত

দেশজুড়ে এর অারো খবর