রবিবার, ০৪ ডিসেম্বর ২০১৬
ad
  • হোম
  • দেশজুড়ে
  • কোম্পানীগঞ্জে ২০০ টাকার জন্য মারধর, শিশুর মৃত্যু
২৮ এপ্রিল, ২০১৬ ২৩:৩০:৩৬
প্রিন্টঅ-অ+
কোম্পানীগঞ্জে ২০০ টাকার জন্য মারধর, শিশুর মৃত্যু
ছবি : প্রতীকী
এবার মাত্র ২০০ টাকার জন্য 'ভাবির নির্যাতনে' প্রাণ হারাতে হলো চতুর্থ শ্রেণীর শিক্ষার্থী মারুমা আক্তারকে (১০)। ওই টাকা মারুমা চুরি করেছে এমন অভিযোগ তুলে শিশুটিকে ব্যাপক মারধর করেন ভাবি মুন্নি বেগম। পরে ঘর থেকে ঝুলন্ত অবস্থায় শিশুটির মৃতদেহ উদ্ধার করে পুলিশ।

তবে এটি হত্যাকাণ্ড না আত্মহত্যা তা এখনও নিশ্চিত নয় বলে জানিয়েছে পুলিশ। কোম্পানীগঞ্জ উপজেলার চরকাঁকড়া ইউনিয়নে গত বুধবার এ ঘটনা ঘটে।

এর আগে টাকা চুরি বা মাছ চুরির মতো তুচ্ছ ঘটনায় সিলেটে রাজনসহ দেশের বিভিন্ন স্থানে বেশ ক'টি শিশুকে মারধর করে হত্যার ঘটনায় দেশজুড়ে ব্যাপক সমালোচনার সৃষ্টি হয়। এ রকম দুটি ঘটনায় সিলেট ও খুলনায় দ্রুত বিচার শেষে আদালত দোষী কয়েকজনকে মৃত্যুদণ্ডও দিয়েছেন।

মারুমা দিনমজুর সাহাব উদ্দিনের মেয়ে ও চরকাঁকড়া আদর্শ প্রাথমিক বিদ্যালয়ের চতুর্থ শ্রেণীর ছাত্রী।

নিহতের পরিবার জানিয়েছে, বুধবার সকালে বিজ্ঞান পরীক্ষা দিতে স্কুলে যায় মারুমা আক্তার। পরে তার বড় ভাই মোস্তফার স্ত্রী মুন্নি বেগম তার ২০০ টাকা চুরি হয়েছে এমন অভিযোগ তুলে স্কুলে গিয়ে মারুমাকে জিজ্ঞাসা করেন। পরীক্ষা শেষে স্কুলের সামনেই মারুমাকে ব্যাপক মারধর করেন মুন্নি। পরে জোর করে তাকে বাড়িতে নিয়ে যান তিনি। এ সময় শিশুটির মা-বাবা কেউই বাড়িতে ছিলেন না। রাতে মারুমার বাবা বাড়ি ফিরে ঘরের দরজা খুলে ভেতরে মারুমাকে ঝুলন্ত অবস্থায় দেখতে পান। খবর পেয়ে পুলিশ মারুমার মৃতদেহ উদ্ধার করে।

নিহতের বড় বোন অভিযোগ করেন, টাকা চুরির মিথ্যা অভিযোগ এনে তাদের ভাবি মুন্ন বেগম মারুমাকে হত্যা করে আত্মহত্যা বলে চালানোর জন্য মৃতদেহ ঝুলিয়ে রেখেছেন। তিনি এ 'হত্যার' সুষ্ঠু বিচার দাবি করেন।

কোম্পানীগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ইসমাইল হোসেন জানান, সংবাদ পেয়ে তিনি ঘটনাস্থলে গিয়ে মারুমার মৃত্যুর বিষয়ে দু'ধরনের তথ্য পেয়েছেন। কেউ কেউ এ ঘটনাকে হত্যা, আবার কেউ আত্মহত্যা বলেছে। এ বিষয়ে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করার জন্য পুলিশকে নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।

কোম্পানীগঞ্জ থানার ওসি সাজেদুর রহমান সাজিদ জানান, মৃতদেহ ময়নাতদন্তের জন্য নোয়াখালী জেনারেল হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে। ময়নাতদন্তের প্রতিবেদন পেলে মৃত্যুর প্রকৃত কারণ জানা যাবে। এ বিষয়ে শিশুটির বাবা থানায় লিখিত অভিযোগ দিয়েছেন। ময়নাতদন্ত প্রতিবেদনে হত্যার বিষয়টি প্রমাণিত হলে তা মামলা হিসেবে গ্রহণ করা হবে।
  • সর্বশেষ খবর
  • সর্বাধিক পঠিত

দেশজুড়ে এর অারো খবর