রাত ৪:০৩, বৃহস্পতিবার, ১৮ই অক্টোবর, ২০১৭ ইং
/ রাজনীতি / রোহিঙ্গাদের ত্রাণ ও পুনর্বাসনে সেনাবাহিনীকে সম্পৃক্ত করার দাবি বিএনপির
রোহিঙ্গাদের ত্রাণ ও পুনর্বাসনে সেনাবাহিনীকে সম্পৃক্ত করার দাবি বিএনপির
সেপ্টেম্বর ১৭, ২০১৭

কক্সবাজারের উখিয়া-টেকনাফে রোহিঙ্গাদের ত্রাণ বিতরণে সরকারের কোনো ব্যবস্থাপনা নেই বলে অভিযোগ করে ত্রাণ বিতরণ ও তাদের পুনর্বাসন কর্মকান্ডে অবিলম্বে সেনাবাহিনীকে সম্পৃক্ত করার দাবি জানিয়েছে বিএনপি। রোববার দুপুরে রাজধানীর নয়াপল্টনের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে বিএনপির নেতারা এই দাবি জানান।

বিএনপি রোহিঙ্গা ইস্যুতে সরকারকে সহযোগিতা করতে চায় জানিয়ে ক্ষমতাসীনদের উদ্দেশে দলটির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেছেন, পারস্পরিক কাদা ছোড়াছুড়ি না করে আসুন জাতীয় ঐক্যের মাধ্যমে রোহিঙ্গা সমস্যার সমাধান করি। তিনি বলেন, রোহিঙ্গা ইস্যুতে আমরা কোনো বিভক্তি সৃষ্টি করিনি, বিভক্তি চাইও না। আমরা সরকারকে সহযোগিতা করতে চাই। সরকারের উচিত রোহিঙ্গাদের ফিরিয়ে নিতে অবিলম্বে মিয়ানমার সরকারের ওপর চাপ সৃষ্টি করা এবং সঙ্কট নিরসনে সব রাজনৈতিক দলকে নিয়ে আলোচনা করা। সংবাদ সম্মেলন থেকে রোহিঙ্গাদের মাঝে ত্রাণ বিতরণ ও তাদের পুনর্বাসনের জন্য সেনাবাহিনী মোতায়েনের দাবি জানান বিএনপির কেন্দ্রীয় রিলিফ টিমের আহ্বায়ক ও স্থায়ী কমিটির সদস্য মির্জা আব্বাস। গত ১৩ সেপ্টেম্বর দলের এই রিলিফ টিম মির্জা আব্বাসের নেতৃত্বে কক্সবাজারের উখিয়ায় ত্রাণ দিতে গেলে স্থানীয় কক্সবাজারেই বিএনপির ২২টি ট্রাক আটকিয়ে দেয়া হয়। মির্জা আব্বাস অভিযোগ করে বলেন, ১৩ সেপ্টেম্বর আমাদেরকে ত্রাণ বিতরণ করতে বাধা দেয়া হলেও পরদিন ১৪ সেপ্টেম্বর জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান এইচএম এরশাদ সাহেবকে ত্রাণ বিতরণ করতে এবং মঞ্চ করে ব্যানার লাগিয়ে বক্তৃতা দিতে দেয়া হয়েছে। আমরা সরকারের এহেন দ্বিমুখী আচরণের তীব্র নিন্দা জানাই।

২২টি ট্রাকের ত্রাণসামগ্রী স্থানীয়ভাবে রোহিঙ্গাদের মাঝে বিতরণ করা হচ্ছে জানিয়ে তিনি বলেন, বিএনপির রিলিফ টিম টেকনাফ ও উখিয়ায় শরণার্থী শিবিরের কাছে ৪০টি স্যানেটারি টয়লেট ও ১২টি টিউবওয়েল স্থাপন, মৃত রোহিঙ্গাদের দাফনে সহযোগিতা প্রদান, চিকিৎসা সেবা ও বিনামূল্যে ওষুধ প্রদান করেছে। মিয়ানমার থেকে পালিয়ে আসা রোহিঙ্গাদের কাছ থেকে ক্ষমতাসীনরা চাঁদাবাজি করছে বলেও অভিযোগ করেন আব্বাস। বিএনপির রিলিফ টিমের প্রধান বলেন, আমাদের ত্রাণ তৎপরতা বেগম খালেদা জিয়ার নির্দেশমতো অব্যাহত থাকবে এবং কোনো অপকৌশলে সরকার এই কার্যক্রম বন্ধ করতে পারবে না। মির্জা আব্বাস কেন্দ্রীয় ত্রাণ টিমের সঙ্গে কাজ করার অভিযোগে বিএনপির স্থানীয় ৬ নেতা-কর্মীকে গ্রেফতার ও তাদের ভ্রাম্যমাণ আদালতে সাজা দেওয়ার নিন্দাও জানান। সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন-দলের স্থায়ী কমিটির সদস্য নজরুল ইসলাম খান, চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা আতাউর রহমান ঢালী, কেন্দ্রীয় নেতা সৈয়দ এমরান সালেহ প্রিন্স, শহীদুল ইসলাম বাবুল, মুনির হোসেন প্রমুখ নেতৃবৃন্দ।

 



লাইক দিয়ে সঙ্গে থাকুন :




Go Back Go Top