রাত ১০:৩৮, বৃহস্পতিবার, ১৯শে অক্টোবর, ২০১৭ ইং
/ রংপুর / রায় শোনার পর বিজয় চিহ্ন দেখায় জেএমবি সদস্যরা
রায় শোনার পর বিজয় চিহ্ন দেখায় জেএমবি সদস্যরা
ফেব্রুয়ারি ২৮, ২০১৭

রংপুর প্রতিনিধি : তখন সকাল সাড়ে আটটা। রংপুর আদালত চত্বর ও আশপাশ এলাকায় নিরাপত্তার চাদরে ঢেকে রেখেছে পুলিশ। ওই পথে যে কেউ প্রবেশ করলে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্যরা তল্লাশি চালায়। সকাল নয়টা ছুঁই ছুঁই। কড়া পুলিশ পাহারায় আদালত চত্বরে আনা হয় জেএমবি রংপুর বিভাগীয় প্রধান মাসুদ রানাসহ পাঁচ জেএমবি সদস্যকে। এরপর বিচারক এজলাসে ওঠেন সকাল সাড়ে নয়টায়। তার আগে জেএমবি মাসুদ রানা, এসহাক আলী, লিটন মিয়া, সাখাওয়াত হোসেন ও আবু সাঈদকে কাটগড়ায় নেয়া হয়।

এজলাস কক্ষে উভয় পক্ষের আইনজীবী ও সংবাদ কর্মীদের উপস্থিতিতে বিচারক নরেশ চন্দ্র সরকার রায় পড়া শুরু করেন। শেষ করেন বেলা ১১টা ১৫ মিনিটে। এর কিছুক্ষণ পরেই এজলাস থেকে বিচারক নরেশ চন্দ্র সরকার নেমে গেলে আইনইনজীবী ও সাংবাদিকরা বের হয়ে যান আদালত কক্ষ থেকে। পরে পুলিশ আসামিদের গাড়িতে তোলেন। এ সময় জেএমবির সদস্যরা সবাই ভি চিহ্ন অর্থাৎ বিজয় চিহ্ন দেখায়। এ সময় তারা বলেন, বিজয় হবে আমাদের, এ দেশ বসবাসের যোগ্য নয়, এ রায় তেমন কিছু নয়।

কাঠগড়ায় দাঁড়িয়ে থাকা ৫ জেএমবি সদস্যরা সার্বক্ষণিক বিচারকের দিকে তাকিয়ে ছিল। তাদের চোখে মুখে কোন ধরনের বিচলিত হবার মত কোন দৃশ্য দেখা যায়নি। তবে কাঠগড়ায় দাঁড়িয়ে থাকা মাসুদ রানাকে দোয়া পড়তে দেখা গেছে। এ মামলায় রায়ে জনমনে স্বস্তি এসেছে। সাধারণ মানুষ বলছে এ রায়ে তারা সন্তুষ্ট। দ্রুত রায় কার্যকর করার দাবি তাদের।



লাইক দিয়ে সঙ্গে থাকুন :




Go Back Go Top