দুপুর ১২:১৮, মঙ্গলবার, ২১শে নভেম্বর, ২০১৭ ইং
/ জাতীয় / বিজিবিতে আরও ৯৭ নারী সৈনিক
বিজিবিতে আরও ৯৭ নারী সৈনিক
জুলাই ১৬, ২০১৭

ছয় মাসের প্রশিক্ষণ শেষে বাংলাদেশের সীমান্তরক্ষী বাহিনী বিজিবিতে যোগ দিলেন আরও ৯৭ জন নারী সৈনিক। চট্টগ্রামের সাতকানিয়ার বায়তুল ইজ্জত বর্ডার গার্ড ট্রেনিং সেন্টার অ্যান্ড স্কুল মাঠে রোববার সকালে তাদের প্রশিক্ষণ সমাপনী কুচকাওয়াজ হয়।

এ অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির ভাষণে ভারতের সীমান্তরক্ষী বাহিনীর (বিএসএফ) মহাপরিচালক  শ্রী কে কে শর্মা বিজিবির নবীন নারী সৈনিকদের উদ্দেশে বলেন, “আপনারা পুরুষ সৈনিকদের থেকে পিছিয়ে নেই। আপনারা যোগ দেওয়ায় এ বাহিনীর কার্যকারিতা আরও বাড়বে বলে আমি মনে করি।”

বিজিবির ৯০তম ব্যাচে ১০০ জন নারী সৈনিক প্রশিক্ষণ শুরু করলেও শেষ পর্যন্ত চূড়ান্তভাবে উত্তীর্ণ ৯৭ জন রোববার সমাপনী কুচকাওয়াজে অংশ নেন।

সেনা, নৌ, বিমানবাহিনী ও পুলিশের পর গতবছর সীমান্ত রক্ষার দায়িত্বে থাকা বর্ডার গার্ড বাংলাদেশেও নারী সৈনিকের যাত্রা শুরু হয়। প্রথমবার ৮৮ ব্যাচ থেকে ৯৭ জন নারী সদস্য বিজিবিতে যোগ দেন। পরের ব্যাচে তাদের সঙ্গে যোগ দেন আরও ৯৫ জন।

এবারের ৯৭ জনকে নিয়ে তিন ব্যাচে মোট ২৮৯ জন নারী সৈনিক এ বাহিনীতে যুক্ত হলেন।

৯০তম ব্যাচে নারী-পুরুষ মিলিয়ে মোট ৪৩৩ জন সৈনিক প্রশিক্ষণ পর্বে উত্তীর্ণ হয়েছেন। তাদের মধ্যে সব বিষয়ে সেরা হয়েছে নারী সৈনিক পাপিয়া আক্তার।

বিএসএফের মহাপরিচালক শ্রী কে কে শর্মা বলেন, “সবার চেয়ে সেরা হওয়ায় পাপিয়াকে আমার পক্ষ থেকে আন্তরিক অভিনন্দন।”

সীমান্তে শান্তি বজায় রাখতে একসঙ্গে কাজ করার অঙ্গীকার জানিয়ে তিনি বলেন, একটি বলিষ্ঠ ও দক্ষ বাহিনী গড়ে তোলার জন্য সবচেয়ে বেশি প্রয়োজন কঠোর প্রশিক্ষণ, মানসিক দৃঢ়তা, অধ্যাবসায় ও সঠিক নেতৃত্ব।

বর্ডার গার্ড ট্রেনিং সেন্টার অ্যান্ড কলেজের কমাডেন্ট ব্রিগেডিয়ার জেনারেল মো. সাজ্জাদ হোসেনও এ সময় উপস্থিত ছিলেন।

বিজিবির জনসংযোগ কর্মকর্তা মো. মহসিন রেজা বলেন, ২০১৫ সালে বিজিবি মহাপরিচালক বিএসএফের আমন্ত্রণে তাদের নবীন সদস্যদের কুচকাওয়াজে যোগ দিয়েছিলেন। তারই ধারাবাহিকতায় এবার বিএসএফের মহাপরিচালক এসেছেন।

 



লাইক দিয়ে সঙ্গে থাকুন :




Go Back Go Top