রাত ৪:০২, বৃহস্পতিবার, ১৮ই অক্টোবর, ২০১৭ ইং
/ রাজনীতি / জাতীয় ঐক্য সৃষ্টি করতে না পারা সরকারের ব্যর্থতা : ফখরুল
জাতীয় ঐক্য সৃষ্টি করতে না পারা সরকারের ব্যর্থতা : ফখরুল
সেপ্টেম্বর ২৩, ২০১৭

রোহিঙ্গা সঙ্কট মোকাবিলায় বিএনপির জাতীয় ঐক্যের আহ্বানে ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগের সাড়া না দেওয়ার বিষয়টিকে ‘সরকারের ব্যর্থতা’ হিসেবে দেখছেন দলটির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। তিনি বলেছেন, ‘বশংবদ’ রাজনীতির কারণেই এই সমস্যা মোকাবিলায় সরকার জাতীয় ঐক্য করতে ভয় পাচ্ছে। আশা করি, আমরা জনগণের সঙ্গে ঐক্য করেই এই সঙ্কট মোকাবেলা করতে সমর্থ হবো।

শনিবার বিকেলে রাজধানীর ডিপ্লোমা ইঞ্জিনিয়ার্স ইনস্টিটিউশন মিলনায়তনে জাতীয় পার্টি (জাফর) আয়োজিত এক আলোচনা সভায় নিউইয়র্কে জাতীয় ঐক্যের বিষয়ে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার দেয়া বক্তব্যের প্রতিক্রিয়ায় এসব কথা বলেন ফখরুল। দলটির চেয়ারম্যান প্রয়াত কাজী জাফর আহমদের দ্বিতীয় মৃত্যুবার্ষিকী উপলক্ষে এই সভা হয়। ক্ষমতাসীনদের সমালোচনা করে মির্জা ফখরুল বলেন, আপনারা (সরকার) এখন পর্যন্ত মিয়ানমারের রাখাইনে যা হচ্ছে তাকে গণহত্যা বলতে পারলেন না, মিয়ানমার সরকারের প্রতিও কোনো নিন্দা করেননি। এই বিষয়গুলো থেকে বুঝা যায়- এখনো আপনারা সেই বংশবদ রাজনীতির মধ্যেই রয়েছেন। এখনো আপনারা (সরকার) ভয় পান, মিয়ানমারকে যারা সমর্থন দিচ্ছে তারা যদি আপনাদের প্রতি বিরাগভাজন হয়ে যান। সেজন্য আপনারা এ কথা (জাতীয় ঐক্য না করার) বলছেন। এখানেই পার্থক্যটা, সেজন্য আপনারা আমাদের (বিএনপি) সাথে ঐক্য করতে চাইবেন না। বিএনপির সঙ্গে ঐক্য হবে কী করে, কারণ বিএনপি তো সত্যিকার অর্থে একটি জনপ্রিয় ও দেশপ্রেমিক রাজনৈতিক দল। কোনো কিছুর বিনিময়ে বিএনপি নিজের দেশের স্বার্বভৌমত্ব বিকিয়ে দেবে না।  সরকারের উদ্দেশে তিনি বলেন, রোহিঙ্গা ইস্যুতে আমরা জনগণের ঐক্য তৈরি করতে বলেছি। আমি বলব- এই সংকীর্ণতা, এই আমিত্ব বাদ দিয়ে আসুন সমগ্র জনগণকে সঙ্গে নিয়ে এই চ্যালেঞ্জের মোকাবিলা করুন। ইনশাল্লাহ জনগণের ঐক্য তৈরি করেই আমরা এই চ্যালেঞ্জের মোকাবিলা করতে সক্ষম হবো।

রোহিঙ্গা সঙ্কটের বিষয়টি জাতিসংঘের নিরাপত্তা পরিষদে তোলার জন্য সংস্থার মহাসচিবকে ধন্যবাদ জানান ফখরুল। অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক উপাচার্য অধ্যাপক এমাজউদ্দীন আহমদ বলেন, রোহিঙ্গা সমস্যাটা ক্ষমতাসীন দলের সমস্যা না, এটা একটি জাতীয় সমস্যা। তাই সমগ্র জাতিকে ঐক্যবদ্ধভাবে এই সমস্যার সমাধান করতে হবে, অন্য কেউ না। জাতীয় পার্টির (জাফর) ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান ফজলে রাব্বি চৌধুরীর সভাপতিত্বে এবং যুগ্ম-মহাসচিব এএসএম শামীমের পরিচালনায় এতে আরো বক্তব্য দেন-জাতীয় পার্টির মহাসচিব মোস্তফা জামাল হায়দার, প্রেসিডিয়াম সদস্য আহসান হাবিব লিংকন, অর্থনীতিবিদ অধ্যাপক মাহবুবউল্লাহ, জাগপার রেহানা প্রধান, বিএনপির হাবিব-উন-নবী খান সোহেল, প্রয়াত কাজী জাফরের মেয়ে কাজী জয়া প্রমুখ নেতৃবৃন্দ।


 
 
 
 

 

 



লাইক দিয়ে সঙ্গে থাকুন :




Go Back Go Top