রাত ৪:১৭, মঙ্গলবার, ১৬ই অক্টোবর, ২০১৭ ইং
/ রাজনীতি / ঘুরে দাঁড়াতে শুরু করেছে বিএনপি: ফখরুল
ঘুরে দাঁড়াতে শুরু করেছে বিএনপি: ফখরুল
মে ১৪, ২০১৭

জামায়াতসহ ২০ দলের জোট ‘আন্দোলনকেন্দ্রিক’ উল্লেখ করে এর সাথে আগামীতে রাষ্ট্র পরিচালনার কোনো সম্পর্ক নেই বলে মন্তব্য করেছেন বিএনপির মহাসচিব ও জোটের সমন্বয়কারী মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। এদিকে বিএনপির ভিশন-২০৩০ সম্পর্কে তিনি বলেন, চিন্তা ও কাজের ক্ষেত্রে বিএনপি যে ঘুরে দাঁড়াতে শুরু করেছে, এর বড় প্রমাণ দলের ‘ভিশন-২০৩০’।

রোববার দুপুরে জাতীয় প্রেসক্লাব মিলনায়তনে বিএনপির ভিশন-২০৩০ নিয়ে এক গোলটেবিল আলোচনায় এসব কথা বলেন ফখরুল। সেন্টার ফর ন্যাশনাল অ্যান্ড রিজিওনাল রিসার্চ স্টাডিজ নামের একটি সংগঠন এ আলোচনার আয়োজন করে। ভিশন-২০৩০ নিয়ে আওয়ামী লীগের বক্তব্যের সমালোচনা করে মির্জা ফখরুল বলেন, তারা বলছে- বিএনপির ‘ভিশন-২০৩০’ অন্তঃসারশূন্য। কেউ বলছেন, বিএনপি তাদের অনুকরণ করেছে। কিন্তু বিএনপির দর্শন অনুকরণ করে আওয়ামী লীগই তাদের রাজনৈতিক দর্শন, কর্মসূচি পরিবর্তন করেছে। ‘ভিশন-২০৩০’তে যুবক-যুবতীসহ মানবসম্পদ উন্নয়ন, কর্মসংস্থান, শ্রমিকদের মজুরি, ২০৩০ সালে দেশের মানুষের মাথাপিছু আয় ৫০০০ মার্কিন ডলারে নিয়ে যাওয়া, বার্ষিক প্রবৃদ্ধির হার ডবল ডিজিটে উন্নীত করা, তথ্য প্রযুক্তি, সন্ত্রাসবাদ-জঙ্গিবাদ-উগ্রবাদ দমন, মুক্তিযুদ্ধ ও মুক্তিযোদ্ধা, শিক্ষাখাত, অর্থনৈতিক সংস্কার প্রভৃতি বিষয়ে বিএনপির ভবিষ্যৎ ভাবনাগুলো ব্যাখ্যা করেন দলটির মহাসচিব। এ সময় আলোচনা-সমালোচনার ভিত্তিতে পরবর্তীতে এটাকে আরো সমৃদ্ধ করার চেষ্টা করা হবে বলেও জানান ফখরুল।

অনুষ্ঠানে নাগরিক ঐক্যের আহ্বায়ক মাহমুদুর রহমান মান্না বলেন, বিএনপির ভিশনে বলা হয়েছে- বিএনপি আগামী দিনে রাষ্ট্র পরিচালনায় গেলে জনগণের সরকার প্রতিষ্ঠা করা হবে এবং মুক্তিযুদ্ধের সঙ্গে সংশ্লিষ্ট যাবতীয় কর্মকান্ডকে যথাযথভাবে সম্মান ও গুরুত্ব দেওয়া হবে। তবে এতে প্রশ্ন থেকে যায়, বিএনপি যদি আগামী দিনে নির্বাচনের মাধ্যমে রাষ্ট্র পরিচালনার দায়িত্ব পায়, তখন জামায়াতে ইসলামী আপনাদের সাথেই থাকবে। জামায়াত যদি তখন একটা মামলা ঠুকে দেয়- যাদের যুদ্ধাপরাধীর নামে বিচার করা হয়েছে, তাদের পুনঃবিচার করতে হবে। কী করবেন আপনারা? খালেদা জিয়া এ বিষয়টি স্পষ্ট করেননি। তাই এই ভিশনে সত্যতা, সঠিকতা, আন্তরিকতা যেমন আছে, তেমনি আছে ভক্তিপ্রবণতা। তবে নানা সমালোচনা করলেও এ রকম একটা পরিকল্পনা দেয়ার জন্য খালেদা জিয়াকে ধন্যবাদও জানান তিনি। মান্নার এই বক্তব্যের জবাবে এবং বিএনপির ‘ভিশন-২০৩০’-তে জোটসঙ্গী জামায়াতের বিষয়ে কোনো বক্তব্য না থাকা প্রসঙ্গে মির্জা ফখরুল বলেন, বিএনপির সঙ্গে জামায়াতের জোট পুরোপুরি আন্দোলনকেন্দ্রিক। সুতরাং ২০৩০ সালে জামায়াতের সঙ্গে বিএনপির কী সম্পর্ক হবে, সেটা বোধহয় এখন বলার অবকাশ নেই। তাই ভিশনে জামায়াতের বিষয়টি উল্লেখ করার প্রয়োজন আছে বলে মনে হয় না। তিনি আরো বলেন, ২০ দলের ঘোষণাপত্রে পরিষ্কার করে বলা হয়েছিলো- এই ২০ দল গঠন করা হচ্ছে স্বৈরাচার-ফ্যাসিবাদী আওয়ামী লীগ সরকার, যারা জনগণের বিরুদ্ধে অবস্থান নিয়েছে, তাদেরকে পরাজিত করে দেশে জনগণের সরকার প্রতিষ্ঠা করবার জন্যে একটা আন্দোলন সৃষ্টি করা। সেটা কিন্তু এখনো বলবৎ আছে। সংগঠনের নির্বাহী পরিচালক ব্যারিস্টার পারভেজ আহমেদের সভাপতিত্বে এই মুক্ত আলোচনায় অর্থনীতিবিদ অধ্যাপক মাহবুবউল্লাহ, গণস্বাস্থ্য কেন্দ্রের ট্রাস্টি ডা. জাফরুল্লাহ চৌধুরী, কল্যাণ পার্টির চেয়ারম্যান সৈয়দ মুহাম্মদ ইবরাহিম বীরপ্রতীক, জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক দিলারা চৌধুরী, বিএনপি চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা ঈসমাইল জবিউল্লাহ প্রমুখ অংশ নেন।

 



লাইক দিয়ে সঙ্গে থাকুন :




Go Back Go Top