সকাল ৬:০২, মঙ্গলবার, ১৭ই অক্টোবর, ২০১৭ ইং
/ বিনোদন / আলমগীর, ঋতুপর্ণা ও শুভ’র সঙ্গে যুক্ত হলেন চম্পা
আলমগীর, ঋতুপর্ণা ও শুভ’র সঙ্গে যুক্ত হলেন চম্পা
সেপ্টেম্বর ১৬, ২০১৭

অভি মঈনুদ্দীন ঃ গেলো ৯ সেপ্টেম্বর শুরু হলো চিত্রনায়ক আলমগীরের নির্দেশনায় ‘একটি সিনেমার গল্প’ চলচ্চিত্রের শুটিং। গত ১৬ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত এই চলচ্চিত্রের শুটিং-এ আলমগীর, ঋতুপর্ণা ও আরিফিন শুভ প্রতিদিন অংশ নিলেও গতকাল থেকে এই চলচ্চিত্রের শুটিং-এ যুক্ত হলেন চিত্রনায়িকা চম্পা। পাঁচবার জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কারপ্রাপ্ত চম্পা দীর্ঘ ত্রিশ বছর পর আলমগীরের নির্দেশনায় কাজ করছেন। গতকাল দিনব্যাপী আলমগীরের নির্দেশনায় চম্পা, ঋতুপর্ণা ও আরিফিন শুভ শুটিং-এ অংশ নেন। এছাড়া আরো যারা শুটিং-এ অংশ নিয়েছেন তারা হলেন সাদেক বাচ্চু, ববি শাহ ও জ্যাকি আলমগীর।

দীর্ঘ ত্রিশ বছর পর আলমগীরের নির্দেশনায় কাজ করা প্রসঙ্গে চম্পা বলেন,‘ আমি বিগত কয়েকদিনও নতুন চলচ্চিত্রের শুটিং করেছি। কিন্তু আলমগীর ভাইয়ের চলচ্চিত্রে কাজ করতে এসে কেমন যেন একটা ঈদ ঈদ বিষয় কাজ করছে। তার নির্দেশনায় ত্রিশ বছরেরও বেশি সময় আগে আমি নিষ্পাপ চলচ্চিত্রে প্রথম একক নায়িকা হিসেবে অভিনয় করেছিলাম। দীর্ঘ ত্রিশ বছর পর আবারো তার নির্দেশনায় কাজ করছি, এটা যে আমার জন্য কতো আনন্দের, ভালোলাগার তা ভাষায় প্রকাশ করার মতো নয়। একজন অভিনেত্রী হিসেবে ভালো চরিত্রে কাজ করার আকাঙ্খা সবসময়ই থাকে। এই চলচ্চিত্রে মিতালী চরিত্রে অভিনয় করতে গিয়ে আমার সেই আকাঙ্খা বা মনোবাসনা পূর্ণ হতে যাচ্ছে।

 অন্যদিকে এবারই প্রথম ঋতুপর্ণার সঙ্গে কাজ করছি। এটাও ভালোলাগার বিষয়। আর আরিফিন শুভ এবং আমি এর আগে একটি চলচ্চিত্রে অভিনয় করলেও সেটা মুক্তি পায়নি। একটি সিনেমার গল্প’তেই আমাদের প্রথম দেখা যাবে একসঙ্গে। ’ চিত্রনায়ক আলমগীর বলেন, ‘  চম্পা খুবই সিরিয়াস একজন অভিনেত্রী। নিজের অভিনয় কীভাবে সুন্দর করা যায় সেই চেষ্টাটা তার এখনো আছে। অভিনয়ের প্রতি তার দুর্বলতা, একাগ্রতা, নিষ্ঠাই সাধারণত চোখে পড়ে না। আর এ কারণেই আমার চলচ্চিত্রে কাজ করার বিষয়ে চুড়ান্ত হবার পর থেকেই অভিনয়ের বিষয়ে নানান বিষয় নিয়েই আলোচনা করেছে।

এটা একাগ্রতারই দৃষ্টান্ত। পাশাপাশি ঋতুপর্ণা অসাধারণ একজন ম্যাচিউরড আর্টিস্ট। কিছু কিছু দৃশ্যে আমার প্রত্যাশার বাইরে অনেক ভালো অভিনয় করছে। এতোটা ভালো অভিনয় করবে আমি ভাবতেও পারিনি। সবচেয়ে বড় চলচ্চিত্রটিতে ঋতু তার চরিত্রে টু হান্ড্রেপ পারসেন্ট এক হয়ে গেছে। চলচ্চিত্রটি ঋতু কবিতা চরিত্রে অভিনয় করছে। কিন্তু চরিত্রটিতে সে এতোটাই মিশে গেছে যে ঋতু আর ঋতু নাই, যেন কবিতাই হয়েগেছে। অনুরূপভাবে শুভ’র তার সর্বোচ্চ চেষ্টা দিয়ে তার চরিত্রটি ফুটিয়ে তোলার চেষ্টা করছে। সবার পারফর্ম্যান্সে আমি খুশি।’ ঋতুপর্ণা বলেন, ‘আলমগীর ভাই নিঃসন্দেহে একজন গুনী অভিনেতা।

 খুব ব্যক্তিত্ব সম্পন্ন একজন মানুষও বটে। তিনি আমাকে খুব ¯েœহ করেন, আদর করেন। প্রতিটি দৃশ্যের আগে আমাকে বেশ ভালোভাবে সবকিছু এতো সুন্দরভাবে বুঝিয়ে যে আমি আপন মনে কাজ করতে পারি। এককথায় আমার চরিত্রটি যথাযথভাবে ফুটিয়ে তুলতে আমাকে তিনি সর্বোচ্চ সহযোগিতা করছেন। শুধু আলমগীর ভাই-ই নন। পুরো ইউনিটই আসলে আমাকে খুউব সহযোগিতা করছে। যিনি আমার মায়ের চরিত্রে অভিনয় করছেন, সাবেরী আলম আপা-তিনিও আমাকে খুব ¯েœহ করেন। এই কয়েকদিনে যারা আমার সঙ্গে নতুন কাজ করছেন সবাই খুব আপন হয়েছেন। বেশ কয়েকবছর বিরতির পর বাংলাদেশের চলচ্চিত্রে কাজ করছি। তাই ভালোলাগাটা ভীষণ। এখানে মোটামুটি প্রায় সব নায়কের সঙ্গেই আমি কাজ করেছি।

 তবে আমি এখানে এমন আরো ভালো কিছু চলচ্চিত্রে কাজ করতে চাই যেন এখানকার দর্শক আমার নামটি শ্রদ্ধার সঙ্গে উচ্চারণ করেন। সেই চেষ্টা আর সেই সাধনাটা আমার মধ্যে থাকবে। কারণ বাংলাদেশের দর্শকের কাছে আমার বেশ ভালো একটা পরিচিতি আছে। সেই পরিচয়টা বেশ সম্মানের সাথে আমি ধরে রাখতে চাই। আর সেটা একমাত্র সম্ভব এখানে ভালো ভালো কিছু চলচ্চিত্রে কাজ করার মধ্যদিয়ে।’ শুভ বলেন,‘ একটি সিনেমার গল্প’র সাথে আমি সম্পৃক্ত আছি-এটাই আমার অনেক অনেক ভালোলাগার বিষয়। মনে হচ্ছে যেন একটি ইতিহাসের সাথে আমি সম্পৃক্ত হয়ে আছি।’ চলতি মাসের পুরোটা সময়ই ‘একটি সিনেমার গল্প’র শুটিং হবে বিএফডিসিতে। চলচ্চিত্রের কাহিনী, সংলাপ, চিত্রনাট্য রচনা করেছেন আলমগীর নিজেই। ছবি ঃ মোহসীন আহমেদ কাওছার

এই বিভাগের আরো খবর



লাইক দিয়ে সঙ্গে থাকুন :




Go Back Go Top