বগুড়া রোববার | ৬ বৈশাখ ১৪২২ | ২৯ জমাদিউস সানি | ১৪৩৬ হিজরি | ১৯ এপ্রিল ২০১৫
ব্রেকিং নিউজ
আর্কাইভ
দিন :
মাস :
সাল :
এই সংখ্যার পাঠক
১৫১২৩৯
সার্চ
একদিনেই ১৮ জনের মর্মান্তিক মৃত্যু
সড়ক দুর্ঘটনা বেড়েছে আশঙ্কাজনক হারে
করতোয়া ডেস্ক :
সারাদেশে আশঙ্কাজনক হারে সড়ক দুর্ঘটনা বেড়েই চলেছে। প্রতিদিনই সড়কে মৃত্যুর ঘটনা ঘটছে। গতকাল শনিবার পৃথক সড়ক দুর্ঘটনায় ঢাকার ধামরাইয়ে একই পরিবারের ৬ জনসহ ৮ জন, বগুড়ায় স্বামী-স্ত্রীসহ ৩ জন, সিরাজগঞ্জে শিশুসহ ৪ জন, টাঙ্গাইল, সিলেট, ময়মনসিংহ, চট্টগ্রাম এবং রাজধানীতে একজনসহ ২০ জনের মৃত্যু হয়েছে। অতি সম্প্রতি ফরিদপুরে গাছের সাথে ধাক্কা... বিস্তারিত
গতকাল সিরাজগঞ্জের বানিয়াগাঁতিতে দুর্ঘটনাকবলিত বাস -করতোয়া
নির্বাচিত সংবাদ
গোবিন্দগঞ্জ প্রেসক্লাব কমপ্লেক্স ভবন নির্মাণকাজের ভিত্তিফলক উন্মোচন
গাইবান্ধার গোবিন্দগঞ্জ প্রেসক্লাবের বহুতল ভবনের নির্মাণকাজের ভিত্তিফলক উন্মোচন করা হয়েছে। গতকাল শনিবার দুপুরে গাইবান্ধা-৪ আসনের জাতীয় সংসদ সদস্য অধ্যক্ষ আবুল কালাম আজাদ এই ফলক উন্মোচন করেন। অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি ছিলেন গোবিন্দগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী অফিসার মামুন-উল-হাসান, জেলা আওয়ামীলীগ সদস্য মোহাম্মদ হোসেন ফকু, উত্তরাঞ্চল ফেডারেল সাংবাদিক পরিষদের সভাপতি তৌহিদুর রহমান মনিক। গোবিন্দগঞ্জ প্রেসক্লাব সভাপতি কৃষ্ণ কুমার চাকীর সভাপতিত্বে এ উপলক্ষে অনুষ্ঠিত সভায় বক্তব্য রাখেন থানার অফিসার ইনচার্জ (তদন্ত) আমিনুল ইসলাম, উপজেলা আওয়ামী লীগ সভাপতি (ভারপ্রাপ্ত) কাজী সাদেক. সাধারণ সম্পাদক (ভারপ্রাপ্ত) প্রধান আতাউর রহমান বাবলু. সাংগঠানিক সম্পাদক প্রধান জাকারিয়া ইসলাম জুয়েল, প্রচার সম্পাদক নুরে আলম সিদ্দিকী, গোবিন্দগঞ্জ পৌরসভার কাউন্সিলর জাহাঙ্গীর আলম. প্রেসক্লাবের সাবেক সভাপতি গোপাল মোহন্ত, প্রেসক্লাবের সাধারণ সম্পাদক রবিউল কবির মনু, সহ সভাপতি যথাক্রমে রফিকুল ইসলাম মন্ডল, রফিকুল ইসলাম রফিক। অনুষ্ঠানে বিভিন্ন রাজনৈতিক দলের নেতৃবৃন্দ, সাংবাদিক, সুধীজন. ও গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গ উপস্থিত ছিলেন। প্রায় ৩০ লাখ টাকা ব্যয়ে ৪ তলা আধুনিক গোবিন্দগঞ্জ প্রেসক্লাব কমপ্লেক্স ভবন নির্মিত হচ্ছে।
সাকিব-মাশরাফিদের ছুটির দিন!
পাকিস্তানের বিপক্ষে ১৬ বছর পর জয় পেয়েছে বাংলাদেশ। কিন্তু এ নিয়ে দলের মধ্যে নেই কোন ধরণের বাড়তি উচ্ছ্বাস। তবে সিরিজের দ্বিতীয় ওয়ানডের আগে পুরো দলকেই ছুটি দেওয়া হয়েছে। ক্রিকেটারও সবাই কাটিয়েছেন ফুরফুরে মেজাজে। তবে অধিনায়ক মাশরাফি বিন মুর্তজা এসেছিল ম্যাচ পূর্ব রূটিন সংবাদ সম্মেলনে। এছাড়া অন্যান্যদের ক্রিকেটীয় ব্যস্ততা ছিল না। এই সুযোগে নাসির হোসেন এবং মুশফিকুর রহিমও হোটেল থেকে বেরিয়েছেন ব্যক্তিগত কাজ সারতে। এরমধ্যে নাসির হোসেনের কাছ দ্বিতীয় ওয়ানডের টিকেটের বায়না ধরলেন তারই পরিচিত একজন। এই সময় নাসিরের সঙ্গে কথা বলেই বোঝা গেল বেশ ভালো আছেন তিনি। কিছু কাজ সারতে বাইরে যাচ্ছেন বলে জানালেন নাসির সিরিজের মাঝখানে এমন ছুটি পাওয়াই ভালোঅ লাগছে ক্রিকেটারদের। এর কিছুক্ষণ পর মুশফিকুর রহিমও বেরিয়ে পড়লেন। তিনি জানালেন কিছুটা সময় নিজের মতই কাটাতে চান। সিরিজের প্রথম ম্যাচ জিতে নির্ভার হয়ে ছুটি কাটানোর ব্যাপারটার সঙ্গে খুব একটা পরিচয় ছিল না এদেশের ক্রিকেটারদের। কিন্তু এ যে পাল্টে যাওয়া বাংলাদেশ। এখনতো নির্ভার থাকারই সময়।
সড়ক দুর্ঘটনা বেড়েছে আশঙ্কাজনক হারে
সারাদেশে আশঙ্কাজনক হারে সড়ক দুর্ঘটনা বেড়েই চলেছে। প্রতিদিনই সড়কে মৃত্যুর ঘটনা ঘটছে। গতকাল শনিবার পৃথক সড়ক দুর্ঘটনায় ঢাকার ধামরাইয়ে একই পরিবারের ৬ জনসহ ৮ জন, বগুড়ায় স্বামী-স্ত্রীসহ ৩ জন, সিরাজগঞ্জে শিশুসহ ৪ জন, টাঙ্গাইল, সিলেট, ময়মনসিংহ, চট্টগ্রাম এবং রাজধানীতে একজনসহ ২০ জনের মৃত্যু হয়েছে। অতি সম্প্রতি ফরিদপুরে গাছের সাথে ধাক্কা লেগে বাসের ২৫ যাত্রীর মর্মান্তিক মৃত্যু হয়। এছাড়া বরিশালে ট্রাকচাপায় ছয়জনসহ ১১ জনের মৃত্যু হয় একদিনেই। গত ১৫ এপ্রিলও সড়ক দুর্ঘটনায় অন্তত ১৩ জনের মৃত্যু হয়। এভাবে বছরে হাজার হাজার মানুষের মৃত্যু হচ্ছে। এমন মর্মান্তিক ঘটনায় তদন্ত কমিটিও গঠন করা হয়। যদিও তার অধিকাংশ আলোর মুখ দেখতে পায় না। যে সব দুর্ঘটনার তদন্ত প্রতিবেদন প্রকাশিত হয় তার সুপারিশ অনুযায়ী ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয় না বলে অভিযোগ রয়েছে। ফলে দিনের পর দিন সড়কে অস্বাভাবিক মৃত্যুর সংখ্যা বেড়েই চলেছে আশঙ্কাজনক হারে। ধামরাই : ধামরাইয়ে দুটি যাত্রীবাহী বাসের সাথে একটি প্রাইভেটকারের ত্রিমুখী সংঘর্ষে আটজন নিহত হয়েছে। এদের মধ্যে রয়েছে শিশুসহ একই পরিবারের ছয়জন। গতকাল শনিবার দুপুর তিনটার দিকে ঢাকা-আরিচা মহাসড়কের বাথুলী বাসস্ট্যান্ড এলাকায় এ দুর্ঘটনা ঘটে। এ ঘটনায় আহত হয়েছে আরো ১০ জন। তাদের উদ্ধার করে মানিকগঞ্জ সদরসহ স্থানীয় বিভিন্ন হাসপতালে ভর্তি করা হয়েছে। নিহতরা হলেন- মনোয়ার হোসেন (৩২), স্ত্রী ফরিদা বেগম (২৬), তাদের তিন ছেলে মেয়ে তাওহিদ (২), তোহা (৪) ও দিলারা বেগম (৩০) ও তার মেয়ে অংকিতা (৪), একই পরিবারের সাম্মী আক্তার (৪) ও গাড়িচালক ফারুক (২৯)। প্রত্যক্ষদর্শী ও পুলিশ জানায়, দুপুরে সোহাগ পরিবহনের (ঢাকা মেট্রো জ ১১-০২৪২) একটি যাত্রীবাহী বাস ঢাকা থেকে আরিচার উদ্দেশ্যে রওনা দিয়ে ধামরাইয়ের বাথুলী বাসস্ট্যান্ড এলাকায় পৌঁছালে বিপরীত দিক থেকে ছেড়ে আসা পদ্মা পরিবহনের একটি যাত্রীবাহী বাসের সঙ্গে মুখোমুখি সংঘর্ষ হয়। একই সময়ে সোহাগ পরিবহনের পেছনে থাকা সাভার থেকে ছেড়ে আসা একটি প্রাইভেটকারের সংঘর্ষ হয়। এতে ঘটনাস্থলেই চারজন নিহত হয়। এছাড়াও হাসপাতালে নেয়ার পর আরো চারজনের মৃত্যু হয়। মানিকগঞ্জের গোলরা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মিজানুর রহমান দুর্ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, নিহতদের মরদেহ উদ্ধার করে থানায় নিয়ে আসা হয়েছে। বিয়ে বাড়িতে লাশের অপেক্ষা : শনিবার দুপুরে ভাতিজার বিয়ের বৌভাতের নিমন্ত্রণ খাওয়ার জন্যে গ্রামের বাড়ি মানিকগঞ্জ সদর উপজেলার অট্টিগ্রাম ইউনিয়নের নারকলি সরকারপাড়া আসার সময় ধামরাইয়ের বারবারিয়ায় বাসচাপায় নিহত হন মনোয়ার হোসেন মানু ও তার স্ত্রী ফরিদা বেগম (২৬), মেয়ে তোয়া আক্তার (৩) ও ছেলে মিসকাত হোসেন (২)। মানোয়ার হোসেনের গ্রামের বাড়িতে লাশগুলো শেষ বারের মতো দেখার অপেক্ষায় প্রহর গুণছে ওই গ্রামের শতশত নারী-পুরুষ। ব্যবসা-বাণিজ্যেকে কেন্দ্র করে সাভারের হেমায়েতপুরে বাড়ি করে সেখানেই থাকতেন মানোয়ার হোসেন। বড় ভাইয়ের বিদেশ ফেরত ছেলে আস্তাক হোসেনের বৌভাত অনুষ্ঠানে যোগ দিতে হেমায়েতপুর থেকে মানিকগঞ্জের গ্রামের বাড়ির উদ্দেশে প্রাইভেটকারে যাচ্ছিলেন। কিন্তু ভাতিজার বিয়ের বৌভাত অনুষ্ঠানে যোগ দেওয়ার আগেই ধামরাইয়ে মর্মান্তিক সড়ক দুর্ঘটনায় প্রাণ হারালেন সপরিবারে। এ প্রতিবেদন লেখা পর্যন্ত (রাত সাড়ে ৮টা) বাস চালককে আটক করা সম্ভব হয়নি বলে জানান গোলড়া হাইওয়ে থানা পুলিশের উপ-পরিদর্শক (এসআই) এনামুল হক। সিরাজগঞ্জ : সিরাজগঞ্জের বঙ্গবন্ধু সেতু পশ্চিম সংযোগ সড়কের বানিয়াগাঁতিতে বাস-ট্রাক সংঘর্ষে ৪ জন নিহত ও অন্তত ১০ জন আহত হয়েছে। দুর্ঘটনার খবর পেয়ে পুলিশ ও স্থানীয় এলাকাবাসী হতাহতদের উদ্ধার করে সিরাজগঞ্জ সদর হাসপাতালে পাঠায়। নিহতদের মধ্যে চায়না বেগম (২৫) কুড়িগ্রামের পাথরখাদা গ্রামের বেল্লাল হোসেনের স্ত্রী। অপর ৩ জনের পরিচয় জানা যায়নি। বঙ্গবন্ধু সেতু পশ্চিম থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা হেলাল উদ্দীন জানান, নীলফামারী জেলার জলঢাকা থেকে অনিক পরিবহনের একটি বাস ঢাকার যাচ্ছিল। গতকাল শনিবার ভোরে বাসটি বঙ্গবন্ধু সেতু পশ্চিম সংযোগ সড়কে পেঁৗছলে একই দিক থেকে আসা একটি ট্রাক দ্রুত গতিতে বাসটিকে ওভারটেক করার সময় উভয় যানের মধ্যে সংঘর্ষ হয়। এ সময় দুটি পরিবহনই নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে রাস্তার পাশে উল্টে যায়। এতে ঘটনাস্থলেই ২ জন নিহত এবং অন্তত ১০ জন যাত্রী আহত হয়। পরে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যায় ২ জন। দুর্ঘটনার পর মহাসড়কে যানজটের সৃষ্টি হলেও দুর্ঘটনাকবলিত যানবাহন সরিয়ে নিলে যান চলাচল স্বাভাবিক হয়। এ ব্যাপারে সিরাজগঞ্জ জেলা পুলিশ সুপার এস এম এমরান হোসেন জানান, দুর্ঘটনায় প্রাথমিকভাবে ৩ জন নিহত হবার তথ্য পাওয়া যায়। তবে হাটিকুমরুলে একটি বেসরকারি হাসপাতালে অপর একজন মারা যাবার খবর পাওয়া গেছে। বগুড়া : বগুড়ায় দ্রুতগামী বাসের চাকায় পিষ্ট হয়ে মোটরসাইকেল আরোহী এক যুবক নিহত হয়েছেন। তিনি বগুড়া শহরের কৈগাড়ী পূর্বপাড়ার লিটন মিয়ার ছেলে ওমর ফারুক রিফাত (২০)। প্রত্যক্ষদর্শীরা জানায়, নিহত মোটর সাইকেল আরোহী রিফাত শহরের ইয়াকুবিয়া বালিকা উচ্চবিদ্যালয়ে ছোট বোনকে নামিয়ে দিয়ে বাসায় ফেরার পথে দুর্ঘটনা কবলিত হন। সকাল পৌনে ৭টার দিকে গোহাইল রোডের মিশন হাসপাতালের সামনে রাজশাহীগামী একটি যাত্রীবাহী বাসকে ওভারটেক করে সামনে যাওয়ার চেষ্টা করলে সামনে থেকে একটি যাত্রীবাহী রিক্সার সাথে মুখোমুখি সংঘর্ষ হয়। এতে মোটর সাইকেল আরোহী ও রিক্সার যাত্রীরা রাস্তার দুই পাশে ছিটকে পড়ে। এসময় দ্রুতগামী বাসটি মোটর সাইকেল আরোহী রিফাতের ওপর দিয়ে চলে গেলে ঘটনাস্থলেই তার মৃত্যু হয়। রিক্সা চালক ইসাহাক আলী এবং রিক্সার দু\'জন যাত্রী সামান্য আহত হয়েছেন। ধুনট (বগুড়া) : বগুড়ার ধুনট উপজেলায় ইট বোঝাই ট্রাকের ধাক্কায় মোটারসাইকেল আরোহী এক দম্পতি ঘটনাস্থলেই মারা গেছেন। গতকাল শনিবার সকাল ৯টার দিকে ধুনট উপজেলার সোনাহাটা বাজারের তিন মাথা এলাকায় এই দুর্ঘটনা ঘটে। নিহতরা হলেনউপজেলার হটিয়ারপাড়া গ্রামের হযরত আলীর ছেলে মোমতাজ উদ্দিন (৪৫) ও তার স্ত্রী শেফালী খাতুন (৩৫)। স্থানীয়রা জানান, মোমতাজ উদ্দিন স্ত্রীকে সাথে নিয়ে শ্যালক ওবায়দুল হকের মোটরসাইকেলে চড়ে নিজ বাড়ি থেকে বগুড়ার উদ্দেশ্যে রওনা হন। পথিমধ্যে সোনাহাটা বাজারের তিন মাথা এলাকায় পৌছলে সামনের দিক থেকে আসা একটি ট্রাকের সঙ্গে মোটরসাইকেলের ধাক্কা লাগে। এতে ঘটনাস্থলেই তাদের মৃত্যু হয়। একই ঘটনায় ওবায়দুল হক (২৫) আহত হয়ে বগুড়া শহীদ জিয়াউর রহমান মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি হন। থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) জিয়াউর রহমান পিপিএম এ তথ্য নিশ্চিত করে জানান, সংবাদ পেয়ে ঘটনাস্থলে পুলিশ পাঠানো হয়। এ ঘটনায় কোন অভিযোগ না থাকায় মৃতদেহ নিহতের পরিবারের নিকট হস্তান্তর করা হয়। ঢাকা : রাজধানীর পশ্চিম তেজতুরী বাজার এলাকার হালিম কমিউনিটি সেন্টারের সামনে গত শুক্রবার দিনগত রাত ২টার দিকে আলতাফ হোসেন (৪০) নামের এক নিরাপত্তাকর্মী রাস্তা পারাপারের সময় নিহত হয়েছেন। তেজগাঁও থানার এসআই রাজিবুল ইসলাম জানান, \'আলতাফের লাশ উদ্ধার করে ঢাকা মে,ডিকেল কলেজ মর্গে পাঠান হয়েছে। তিনি ওই কমিউনিটি সেন্টারের নিরাপত্তাকর্মী। রাস্তা পারাপারের সময় গাড়িচাপায় ঘটনাস্থলেই তিনি মারা যান।\' সিলেট : সিলেট-সুনামগঞ্জ সড়কের কুমারগাঁও বাসস্ট্যান্ড এলাকায় একটি পিকআপ ভ্যান ও সিএনজি অটোরিকশার মুখোমুখি সংঘর্ষ হয়েছে। এ সময় পিকাআপ ভ্যানের চাপায় এক অটোরিকশা যাত্রী নিহত হওয়ার খবর পাওয়া গেছে। গতকাল শনিবার বেলা ১১টায় দিকে কুমারগাঁও বাসস্ট্যান্ডে এ ঘটনা ঘটে। নিহতের নাম, সোনাফর আলী। সে সদর উপজেলার কালারুখা গ্রামের বাসিন্দা । টাঙ্গাইল : টাঙ্গাইলের মির্জাপুরে ট্রাক চাপায় নয়নবালা (৬০) নামে এক বৃদ্ধা নিহত হয়েছেন। এই ঘটনায় বিক্ষুদ্ধ এলাকাবাসী প্রায় আধাঘন্টা ঢাকা-টাঙ্গাইল মহাসড়ক অবরোধ করে রাখে। শনিবার সকাল ৯টার দিকে মহাসড়কের দেওহাটা এলাকায় এই ঘটনা ঘটে। দেওহাটা পুলিশ ফাঁড়ির সহকারী উপ-পরিদর্শক (এএসআই) ফখরুল ইসলাম জানান, ঢাকাগামী একটি বালু ভর্তি ট্রাক রাস্তপাড় হওয়ার সময় নয়নবালাকে চাপা দেয়। এতে ঘটনাস্থলেই সে মারা যায়। নয়নবালা দেওহাটা কচুয়াপাড়া গ্রামের অমূল্য পালের স্ত্রী। এই ঘটনায় বিক্ষুব্ধ এলাকাবাসী ও স্থানীয় বিভিন্ন শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের শিক্ষার্থীরা ওই স্থানে ফুট ওভারব্রিজ নির্মাণের দাবিতে আধাঘন্টা মহাসড়ক অবরোধ করে রাখে। এতে মহাসড়কের উভয় পাশে যানজটের সৃষ্টি হয়। পরে পুলিশ গিয়ে দাবি মেনে নেয়ার আশ্বাস দিলে এলাকাবাসী অবরোধ তুলে নেয়। এই ঘটনায় ঘাতক ট্রাকটি আটক করা হলেও এর চালক পলাতক রয়েছে। তাকে গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে। নিহতের লাশ আইনী প্রক্রিয়া শেষে পরিবারের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে। ময়মনসিংহ : সকাল ৬টার দিকে সদর উপজেলার মাইজবাড়ি মাদ্রাসার সামনে ট্রাক-পিকআপের মুখোমুখি সংঘর্ষে আজগর (৩৮) নামে পিকআপ চালক নিহত হয়। নিহত আজগর কিশোরগঞ্জের কটিয়াদী উপজেলার বাজাত কুতুবপুর এলাকার বাসিন্দা। ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেন কোতোয়ালি মডেল থানার উপপরিদর্শক (এসআই) নুরুল হুদা। চট্টগ্রাম : চট্টগ্রাম মহানগরীতে দ্রুতগামী একটি টমটমের ধাক্কায় এক শিশু নিহত হয়েছে। গত শনিবার সকাল সাড়ে ১০টার দিকে পতেঙ্গা থানার সমদ্র সৈকত এলাকায় সুমাইয়া বেগম (৮) নামে ওই শিশু নিহত হয়। জানা গেছে, সমদ্র সৈকত সিএনজি ফিলিং স্টেশনের সামনে রাস্তা পার হওয়ার সময় টমটমের ধাক্কায় গুরুতর আহত হয় সুমাইয়া। পরে স্থানীয়রা উদ্ধার করে চট্টগ্রাম মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন। নিহত সুমাইয়া পতেঙ্গা নাজির পাড়ার নাছির উদ্দিনের মেয়ে বলে পতেঙ্গা থানার উপ পরিদর্শক শাহাদাত হোসেন জানান।
ঠাকুরগাঁওয়ে প্রতিবন্ধীরা এখনও অবহেলিত ও সুবিধাবঞ্চিত
ঠাকুরগাঁওয়ে প্রতিবন্ধী শিশুরাই সবচেয়ে বেশি অবহেলিত ও সুবিধা বঞ্চিত। শিক্ষা কার্যক্রমের আওতায় বাইরে এখনও অধিকাংশ প্রতিবন্ধী শিশু আর সরকারি সুযোগ সুবিধাও প্রয়োজনের তুলনায় অপ্রতুল। শিক্ষা কার্যক্রমের মূল স্রোতধারায় আনতে না পরলে প্রতিবন্ধীরা সমাজের বোঝা হয়ে দাঁড়াবে আশংকা অনেকেরই। সবার আগে পরিবার থেকেই অবহেলিত আর সুবিধাবঞ্চিত হচ্ছে প্রতিবন্ধী শিশুরা। শখ পূরণতো দূরের কথা, ভাল খাবারও জোটে না বেশিরভাগ শিশুর কপালে। নেই বিনোদন আর অন্যান্য সুবিধাও। দরিদ্রতা ও অসচেতনতায় অনেক প্রতিবন্ধী শিশুদের রাখা হচ্ছে শিক্ষা কার্যক্রমের আওতার বাইরে। ঠাকুরগাঁও সদর উপজেলার বরুনাগাঁও মাদ্রাসা পাড়ার আব্দুর রশিদ জানান, পরিবারের সদস্য ৫ জন। এর মধ্যে স্ত্রী ও দুই ছেলে শামীম ও রুপম দৃষ্টি প্রতিবন্ধী। সংসারের এক হাতের উপার্জন দিয়ে সংসার চলে কোনমতে। লেখাপাড়া করাব কি করে। দু-বেলা দুমুঠো ভাত খেয়ে কোন মতে দিন কাটে। আব্দুর রশিদ আরও বলেন, অনেকে এসে নাম লিখে নিয়ে যায় কিন্তু প্রতিবন্ধীদের ভাতা জোটে না আমার কপালে। একই গ্রামের দুলু মোহাম্মদ অভিযোগ করে বলেন, প্রতিবন্ধী মেয়ের ভাতার জন্য দালালকে ৫শ টাকা দিয়েছি। কিন্তু সেই ভাতা দেখা পাইনি। প্রাথমিক বিদ্যালয় থেকে কলেজ পর্যায় পর্যন্ত প্রতিবন্ধীদের লেখাপড়ার সুযোগ সুবিধার কথা বলা হলেও নেই তাদের জন্য প্রশিক্ষ প্রাপ্ত শিক্ষক, শিক্ষা উপকরণ। সাধারণ শিক্ষার্থীরা লোখাপড়ায় এগিয়ে গেলেও প্রতিবন্ধী শিক্ষার্থী ও শিক্ষক একে অন্যের ভাষা বুঝতে না পারায় পিছিয়ে পড়ছে তারা। এতে স্কুল থেকে ঝরে পড়ছে বেশির ভাগই প্রতিবন্ধী শিক্ষার্থী। ঠাকুরগাঁও শহরের হাজীপাড়া উচ্চ বিদ্যালয়ের ৮ম শ্রেণীর ছাত্রী ইতি আক্তার ইশারা ভাষায় জানান, বিদ্যালয়ের শিক্ষকদের ভাষা বুঝতে সময় লাগে এবং কষ্ট হয়। আমানত উল্লাহ বিদ্যালয়ের ৬ষ্ঠ শ্রেণীর ছাত্র রিমন হাসান জানান, প্রতিবন্ধীদের জন্য প্রশিক্ষণ প্রাপ্ত শিক্ষক ও শিক্ষা উপকরণ থাকলে আমরা বুঝতে পারতাম ভাল। এতে আমরাও অন্যান্য শিক্ষার্থীদের মতো ভাল রেজাল্ট করতাম। সদরের কাশিডাঙ্গী সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক স্মৃতি বসুনিয়া বলেন, বিদ্যালয়টিতে ওঠার জন্য সিড়ির ব্যবস্থা আছে। কিন্তু তাদের বোঝানোর জন্য প্রশিক্ষিত শিক্ষক ও শিক্ষা উপকরণ নেই। এতে বিদ্যালয় গুলোতে প্রতিবন্ধীরা ভর্তি হলেও পরবর্তীতে ঝরে পড়ে যায়। প্রতিবন্ধীরা বঞ্চিত হওয়ার পেছনে সচেতনতার অভাব আর অভিভাবকদেরই দায়ী করলেন সমাজ সেবা কর্মকর্তা। তিনি তাদের সমাজের বোঝা না ভেবে সুশিক্ষা আর যোগ্য নাগরিক হিসেবে গড়ে তুলতে সর্বস্তরের মানুষকে এগিয়ে আসার আহবান শিক্ষাবিদদের। ঠাকুরগাঁও সরকারি কলেজ অধ্যক্ষ প্রফেসর ড. গোলাম কিবরিয়া বলেন, প্রতিবন্ধীদের সুপ্ত মেধা কাজে লাগাতে হবে। এজন্য সবাইকে এগিয়ে আসতে হবে, সহযোগিতার হাত বাড়িয়ে দিতে হবে। নইলে প্রতিবন্ধীরা পরিবার, সমাজ ও দেশে বোঝা হয়ে দাঁড়াবে। ঠাকুরগাঁও সমাজ সেবা অধিদপ্তর উপ-পরিচালক এসএম রফিকুল ইসলাম বলেন, প্রতিবন্ধীরা সবচেয়ে বেশি অবহেলিত হয় পরিবারে। অনেক পরিবার কর্তারা প্রতিবন্ধী শিশুদের লুকিয়ে রাখে। প্রকাশ করতে চায় না। ঠাকুরগাঁও সমাজ সেবা অধিদপ্তরের হিসাব অনুযায়ী জেলায় ২৩ হাজার ২৫০জন প্রতিবন্ধী রয়েছে। এরমধ্যে প্রতিবন্ধী ভাতা ভোগী ৪ হাজার জন আর শিক্ষা উপ-বৃত্তি পাচ্ছে ৭শ জন আর প্রতিবন্ধীদের শিক্ষা প্রতিষ্ঠান রয়েছে ৭টি। ঠাকুরগাঁওয়ের এই ৭টি প্রতিষ্ঠান হলো : শহরের আর্টগ্যালারী মোড়ে ফাররিচিং ইকোনোমিক্যাল এন্ড ইনভায়ারমেন্ট (ফ্রিড), হাজীপাড়া বরুনাগাঁওয়ে অন্বেষা প্রতিবন্ধী রক্ষণাবেক্ষণ ও পুনর্বাসন কেন্দ্র, ভেলাজানে চামেলী প্রতিবন্ধী উন্নয়ন সংস্থা, আরাজী ঝাঁড়গাঁও গ্রামে একতা প্রতিবন্ধী উন্নয়ন সংস্থা, ভুলী বাজারে হিমালয় একশন ফর নিডি পিপলস, সুইড বাংলাদেশ, সমন্বিত দৃষ্টি প্রতিবন্ধী শিক্ষা কার্যক্রম। তবে এ বিদ্যালয়গুলোর মধ্যে দু\'একটিতে ভাল পরিবেশ দেখা গেলেও অধিকাংশ প্রতিষ্ঠানে নেই মানসম্পন্ন শিক্ষক, বসার ব্রেঞ্চ, চেয়ার টেবিল, শিক্ষা উপকরণ। এ কারণে প্রতিষ্ঠানগুলোতে প্রতিবন্ধী শিক্ষার্থীরা এলেও কাঙ্ক্ষিত লক্ষ্যে পেঁৗছতে পারছে না। বেশির ভাগ প্রতিষ্ঠানগুলোতে বিনা বেতনে পরিশ্রম করছে শিক্ষক কর্মচারীরা। বেতন ভাতা না পাওয়ায় অনেক শিক্ষক মুখ ফিরিয়ে নিচ্ছে প্রতিষ্ঠানগুলো থেকে। অন্বেষা প্রতিবন্ধী রক্ষণাবেক্ষণ ও পুনর্বাসন কেন্দ্রের প্রধান মনিরা খাতুন জানান, সরকারিভাবে আর্থিক সহযোগিতা কম পেলেও প্রতিবন্ধীদের নিয়ে কাজ করছি দীর্ঘদিন ধরে। অর্থের অভাবে প্রতিবন্ধীদের আবাসন ব্যবস্থা ও পুনর্বাসন করা যাচ্ছে না। তিনি আরো বলেন, এ প্রতিষ্ঠানগুলোতে প্রতিবন্ধী শিক্ষার্থীরা ভাল ফলাফল করছে কিন্তু উচ্চ শিক্ষার জন্য গিয়ে ঝরে পড়ে যাচ্ছে। ফাররিচিং ইকোনোমিক্যাল এন্ড ইনভায়ারমেন্ট (ফ্রিড) এর সভাপতি তহমিনা আখতার মোল্লা জানান, ২০১১ সালে ৩৫জন প্রতিবন্ধী শিক্ষার্থী নিয়ে প্রতিষ্ঠানটির যাত্রা শুরু হয়। বর্তমানে ১৬২জন শিক্ষার্থী রয়েছে। এ প্রতিষ্ঠানে সাধারণ লেখাপড়ার পাশাপাশি শিশুদের বিনোদনের ব্যবস্থাও আছে। তাদের লেখাপাড়ার পাশাপানি নাচ ও গানও শেখানো হয়। এ কারণে শিক্ষার্থীরা লেখাপাড়ায় মনোযোগী। সরকারি সহযোগিতা পেলে এ প্রতিষ্ঠানটি অনেক বড় হবে বলে আশা প্রকাশ করেন তিনি।
তাবিথের পক্ষে খালেদা জিয়ার প্রচারণা
ঢাকা উত্তরে বিএনপি সমর্থিত মেয়ার প্রার্থী তাবিথ আউয়ালের লিফলেট দিয়ে ভোট চাইলেন দলের চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়া। আর আওয়ামী লীগ সমর্থিত প্রার্থী আনিসুল হক ও বিকল্পধারার মাহী বি চৌধুরী ভোটের জন্য ঝাড়ু হাতে রাস্তা পরিস্কার করলেন। ঢাকা দক্ষিণে আওয়ামী লীগ সমর্থিত মেয়র প্রার্থী সাঈদ খোকনের পক্ষে মাঠে নেমেছেন হাজী মো. সেলিম, বিএনপি সমর্থিত প্রার্থী মির্জা আব্বাসের পক্ষে নেমেছেন সাংস্কৃতিককর্মীরা। বসে নেই চরমোনাই পীরও। এছাড়া অন্যান্য প্রার্থীরাও প্রচার-প্রচারণায় ব্যস্ত সময় পারকরছেন। খালেদা জিয়ার হাতে তাবিথের লিফলেট : ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশন নির্বাচনে বিএনপি সমর্থিত মেয়র প্রার্থী তাবিথ আউয়ালের পক্ষে নির্বাচনী প্রচারণায় নেমেছেন দলের চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়া। গতকাল শনিবার বিকালে গুলশানের বাড়ি থেকে বেরিয়ে প্রথমে গুলশান এক নম্বর গোল চত্বরে পিংক সিটিতে যান তিনি। এরপর ডিসিসি মার্কেট ও নাভানা টাওয়ারে প্রচার চালান খালেদা জিয়া। খালেদা জিয়া এ সব মার্কেটের বিভিন্ন দোকানে ঢুকে তাবিথের প্রচারপত্র বিলি করেন। নাভানা টাওয়ার থেকে বেরিয়ে গাড়িতে ওঠেন খালেদা জিয়া। প্রায় ১০টি গাড়ির বহর নিয়ে লিংক রোড হয়ে বাড্ডায় যান তিনি। শ\' খানেক নেতা-কর্মী বেষ্টিত হয়ে যাওয়ার পথে পথে তাবিথের প্রচারপত্র বিলি করা হয়। এসময় খালেদা জিয়া বলেন, আপনারা বাস প্রতীকে ভোট দিয়ে তাবিথ আউয়ালকে জয়যুক্ত করবেন। খালেদা জিয়ার সাথে ছিলেন বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান সেলিমা রহমানসহ বিপুল সংখ্যক নেতাকর্মী। খালেদা জিয়া গণসংযোগে নেমেছেন এমন সংবাদ পেয়ে আশপাশের এলাকা থেকে নেতাকর্মীরা আসতে শুরু করেন। এ সময় নেতাকর্মীদের স্লোগানে স্লোগানে পুরো এলাকা মুখরিত হয়ে ওঠে। তারা খালেদা জিয়ার নামে এবং বাস প্রতীকের পক্ষে স্লোগান দেন। বিধি-নিষেধের বেড়াজালে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ও বিরোধীদলীয় নেতা রওশন এরশাদের স্থানীয় সরকারের এই নির্বাচনে প্রচার চালানোর সুযোগ না থাকলেও খালেদা জিয়া তা পাচ্ছেন। এদিকে রাজধানীর গাবতলী এলাকায় গণসংযোগকালে তাবিথ আউয়াল বলেন, আমাদের নেতাকর্মী প্রতিনিয়ত গুম-খুন হচ্ছেন, মামলায় গ্রেফতার হচ্ছেন। এখনো গুম-হত্যার শঙ্কা কাটেনি। এ অবস্থায় আমি নেতাকর্মীদের গুম হওয়ার আশঙ্কা প্রকাশ করছি। তিনি আরও বলেন, নেতাকর্মীরা ঠিকভাবে নির্বাচনী প্রচারণা চালাতে পারছেন না। সব জায়গাতেই দলীয় লোকেরা বাধা দিচ্ছে। সেনাবাহিনী মোতায়েন প্রসঙ্গে সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের উত্তরে তাবিথ বলেন, অবাধ-সুষ্ঠু নির্বাচনের জন্য সবার সহযোগিতা চাইছি। এ সময় তিনি ৮, ৯, ১০, ১১ নম্বর ওয়ার্ডে প্রচারণা চালান। ভোটের জন্য রাস্তা ঝাড়ু দিলেন আনিসুল-মাহী: ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশন নির্বাচনে আওয়ামী লীগ সমর্থিত মেয়র প্রার্থী আনিসুল হক ও বিকল্পধারার প্রার্থী মাহি বি চৌধুরী রাস্তা পরিষ্কার করতে ঝাড়ু হাতে নেমেছেন রাজপথে। গতকাল রাজধানীর পৃথক দুটি স্থানে রাস্তা ঝাড়ু দেয়ার মাধ্যমে গণসংযোগ করেন তারা। সংস্কৃতি অঙ্গনের ব্যক্তিদের সঙ্গে নিয়ে গুলশান ১ নম্বর পার্ক-সংলগ্ন রাস্তা ঝাড়ু দিয়ে পরিষ্কার করেন রাস্তা ঝাড়ু দেন আনিসুল হক। এ সময় অভিনেতা এ টি এম শামসুজ্জামান, সংসদ সদস্য তারানা হালিম, ড. ইনামুল হক, রামেন্দু মজুমদার, শংকর সাওজাল, অরুণা বিশ্বাস ও আনিসুল হকের স্ত্রী রুবানা হকসহ অন্যান্য অভিনয় শিল্পী ও সাংস্কৃতিক ব্যক্তিত্ব উপস্থিত ছিলেন। এর আগে গুলশান পার্কে অনুষ্ঠিত এক সংক্ষিপ্ত সভায় সচেতন শিল্পী সমাজের পক্ষে অভিনেতা এ টি এম শামসুজ্জামান বলেন, আনিসুল হক একজন আপাদমস্তক ভদ্রলোক। তিনি কাউকে কখনো অসম্মান করে কথা বলেননি। এমন ভদ্র লোককে আমরা মেয়র হিসেবে চাই। তিনি ব্যর্থ হলে তার ব্যাখ্যা দেবেন না, বরং লজ্জিত হবেন। আনিসুল হক বলেন, আমার জীবন শুরু হয়েছিল একজন সাংস্কৃতিক কর্মী হিসেবে। আমাকে মেয়র হিসেবে আপনারা সুযোগ দেন। আমি পাঁচ বছর আপনাদের এমনভাবে সেবা করতে চাই, যাতে রাজধানীতে সুষ্ঠু সাংস্কৃতিক চর্চার সুযোগ তৈরি হয়। এদিকে গতকাল উত্তরার রাজলক্ষ্মী মোড় ঝাড়ু দিয়ে নির্বাচনী প্রচারণা শুরু করেন বিকল্পধারা বাংলাদেশ সমর্থিত মেয়র প্রার্থী মাহী বদরুদ্দোজা চৌধুরী। রাজলক্ষ্মী মোড়ে নিজ হাতে ঝাড়ু নিয়ে পরিচ্ছন্নতা অভিযান শুরু করেন তিনি। এরপর উত্তরা এলাকায় গণসংযোগ করেন মাহী। তিনি রবীন্দ্রস্মরণী হয়ে উত্তরা ৩, ১২ ও ১৩ নম্বর সেক্টর এবং বেড়িবাঁধ হয়ে হাউজ বিল্ডিং ও নিকুঞ্জ আবাসিক এলাকার বিভিন্ন স্থানে পথসভায় বক্তৃতা এবং গণসংযোগ করেন। বিকল্প ধারার যুগ্ম মহাসচিব মাহী বি চৌধুরী এ সব স্থানে বিভিন্ন স্তরের মানুষের সঙ্গে কুশল বিনিময় করেন এবং ঈগল প্রতীকে ভোট দেওয়ার আহ্বান জানান। ক্বাফী রতনের অবস্থান: পহেলা বৈশাখ ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের টিএসসির সামনে নারীদের ওপর নিপীড়নকারীদের গ্রেফতার দাবিতে ডিএমপি কমিশনারের কার্যালয়ের সামনে গতকাল অবস্থান কর্মসূচি পালন করেছেন ঢাকা উত্তর সিটি কর্পোরেশনে সিপিবি-বাসদ সমর্থিত মেয়র প্রার্থী আবদুল্লাহ আল ক্বাফী রতন। সকালে মিছিল নিয়ে ডিএমপি কমিশনারের কার্যালয়ের দিকে অগ্রসর হতে থাকলে পুলিশ ভিকারুন্নেসা নুন স্কুলের সামনে মিছিলটি আটকে দেয়। সেখানেই হাতী মার্কার প্রার্থী ক্বাফী রতন নেতা-কর্মীদের নিয়ে অবস্থান কর্মসূচি পালন করেন। আবদুল্লাহ আল ক্বাফীর নেতৃত্বে ৭ সদস্যের একটি প্রতিনিধি দল ডিএমপি কমিশনারের সাথে সাক্ষাৎ করেন। প্রতিনিধি দলে আরও ছিলেন সিপিবি-বাসদ সমর্থিত ঢাকা দক্ষিণের মেয়র প্রার্থী বজলুর রশীদ ফিরোজ, কাউন্সিলর প্রার্থী প্রকৌশলী শম্পা বসু, শ্রমিকনেতা আসলাম খান, সিপিবি নেতা জলি তালুকদার, যুবনেতা ত্রিদিব সাহা, ছাত্র ইউনিয়নের সাধারণ সম্পাদক লাকি আক্তার। সাঈদ খোকনের সাথে হাজী সেলিম: ঢাকা দক্ষিণে আওয়ামী লীগ সমর্থিত মেয়র প্রার্থী সাঈদ খোকনের সাথে গতকাল নির্বাচনী প্রচারণায় নেমেছেন মহানগর আওয়ামী লীগের যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক হাজী সেলিম। হাজারীবাগ এলাকার ৫৫, ৫৬ ও ৫৭ নং ওয়ার্ড ও কামরাঙ্গীরচর এলাকায় ঢাকা-৭ আসনের সংসদ সদস্য হাজী সেলিম সাঈদ খোকনের সঙ্গে গণসংযোগ করেন। হাজী সেলিমও ঢাকা সিটি করপোরেশন দক্ষিণ থেকে মেয়র পদে আওয়ামী লীগের সমর্থন চেয়েছিলেন। পরে কেন্দ্রের সিদ্ধান্তে নির্বাচন থেকে সরে দাঁড়ান হাজী সেলিম। এরপর লালবাগের শাহী মসজিদে ১০ ফেব্রুয়ারি হাজী সেলিম ও সাঈদ খোকন একসঙ্গে নামাজ আদায় করেন। এ সময় স্থানীয় ওয়ার্ড কাউন্সিলর প্রার্থী ও আওয়ামী লীগের ঢাকা মহানগর নেতারা সাঈদ খোকনের সঙ্গে ছিলেন। সন্ধ্যায় সাঈদ খোকন গে ারিয়ায় গণসংযোগ করবেন। হাজী সেলিম বলেন, আমি তো শুরু থেকেই সাঈদের সঙ্গে আছি। নির্বাচনের আগ মুহূর্তে তার পক্ষে প্রচারণা চালিয়ে যাব। সাঈদ খোকন বলেন, সেলিম চাচা শুরু থেকেই আছেন। এখনো আমরা এক সঙ্গেই আছি। আব্বাসের পক্ষে সংস্কৃতি কর্মীরা: ঢাকা দক্ষিণে বিএনপি সমর্থিত মেয়র প্রার্থী মির্জা আব্বাসের পক্ষে প্রচারণা করেছেন বিএনপি সমর্থিত সংস্কৃতি কর্মীরা। গতকাল দুপুর ১২টা থেকে শুরু করে বেলা ৩টা পর্যন্ত তারা রাজধানীর বিভিন্ন এলাকায় প্রচারণা চালান। প্রচারকারীরা রাজধানীর হাটখোলা, সায়েদাবাদ এলাকার রাজধানী সুপার মার্কেট, মৌছাক আনারকলি মার্কেট, মগবাজার এলাকার দোকানপাঠসহ বিভিন্ন মার্কেটে মগ মার্কায় ভোট চান। এসময় তারা মির্জা আব্বাসের ছবি সম্বলিত পোস্টারও বিলি করেন। প্রচারণায় ছিলেন- বিএনপির সাংস্কৃতিক বিষয়ক সম্পাদক গাজী মাজহারুল আনোয়ার, জাসাস সভাপতি এম এ মালেক, অভিনেতা বাবুল আহমেদ, আশরাফ উদ্দিন উজ্জ্বল, সংস্কৃতি জোটের রফিকুল ইসলাম, কণ্ঠশিল্পী মনির খান, ছড়াকার আবু সালেহ, নাট্য ব্যক্তিত্ব রাহিজা খানম ঝুনু, অভিনেত্রী কেয়া চৌধুরী, সায়লা, সোহানাসহ প্রায় অর্ধশতাধিক শিল্পীরা প্রচারণায় অংশ নেন। এদিকে মির্জা আব্বাসের পক্ষে গতকাল পুরান ঢাকার গোপীবাগ থেকে গণসংযোগ করেন তার স্ত্রী আফরোজা আব্বাস। এসময় তার সঙ্গে ছাত্রদল, যুবদল ও মহিলা দলের স্থানীয় নেতাকর্মীরা উপস্থিত রয়েছেন। আদর্শ ঢাকা আন্দোলনের ব্যানারে মির্জা আব্বাসের \'মগ\' প্রতীকের প্রচারণাকালে আফরোজা আব্বাস বিভিন্ন দোকানের মালিক-কর্মচারী, পথচারী ও বাসাবাড়িতে গিয়ে ভোটারদের মাঝে লিফলেট বিতরণ করে ভোট চান। দিনের মধ্যাহ্ন পর্যন্ত আফরোজা আব্বাস পুরান ঢাকার গোপীবাগ, টিকাটুলী, স্বামীবাগ, ওয়ারী, দয়াগঞ্জ, সূত্রাপুর, গে ারিয়া, ফরিদাবাদ ও নারিন্দায় মগ মার্কার জন্য প্রচার ও গণসংযোগ করেন আফরোজা। বসে নেই চরমোনাই পীর: ঢাকা উত্তর ও দক্ষিণ সিটি করপোরেশন নির্বাচনে ইসলামী আন্দোলন সমর্থিত মেয়র প্রার্থীদের পক্ষে প্রচারণা শুরু করেছেন দলটির আমীর চরমোনাই পীর মুফতী সৈয়দ মুহাম্মদ রেজাউল করীম। গতকাল বিকেলে রাজধানীর পুরানা পল্টনে ইসলামী আন্দোলনের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের সামনে থেকে ঢাকা দক্ষিণের মেয়র প্রার্থী আব্দুর রহমানের ফ্লাস্ক প্রতীকের সমর্থনে তিনি প্রচারণা শুরু করেন। ঢাকা উত্তরে দল সমর্থিত অপর মেয়র প্রার্থী হলেন শেখ ফজলে বারী মাসউদ। তার প্রতীক কমলালেবু। বিকেলে ট্রাকের উপর নির্মিত অস্থায়ী মঞ্চ থেকে চরমোনাইপীর ইসলামী আন্দোলনের মেয়র প্রার্থীদের সৎ ও যোগ্য প্রার্থী হিসেবে অভিহিত করে দুর্নীতিমুক্ত ঢাকা সিটি গড়তে তাদের ভোট ও প্রার্থনার আহ্বান জানান। এসময় ইসলামী আন্দোলনের মহাসচিব হাফেজ ইউনুছ আহমাদ, ঢাকা মহানগর সভাপতি এ টি এম হেমায়েত উদ্দিনসহ শতাধিক নেতাকর্মী উপস্থিত ছিলেন।
স্বপ্নের মঙ্গল ফানুস উড়িয়ে শেষ হলো বগুড়া থিয়েটারের বৈশাখী মেলা
রুদ্র বৈশাখের দহনের আগুনে অন্তরের কালিমাকে পুড়িয়ে, অশুভকে বিদায় জানিয়ে পৌর পার্কে পাঁচদিন ধরে বগুড়া থিয়েটারের আয়োজনে যে বৈশাখি মিলনমেলা শুরু হয়েছিল, গতকাল তার সমাপ্তি ঘটেছে। বৈশাখের প্রথম দিন থেকেই মানুষ মেতেছিল প্রাণের উৎসবে, আবেগের উচ্ছ্বাসে বাঙালির অসাম্প্রদায়িক চেতনার সবচেয়ে বড় এই আয়োজনে। বগুড়ায় গত পাঁচ দিনে সব পথের মিলনস্থল যেনো হয়ে উঠেছিল পৌর পার্কের বৈশাখি মেলা প্রাঙ্গণ। নতুন বৈশাখের প্রথম রবিকে আহবান জানানো হয়েছিল প্রত্যাশার বেলুন উড়িয়ে, মেলার শেষদিনের রবিকে বিদায় জানানো হয় \'স্বপ্নের মঙ্গল ফানুস উড়িয়ে\'। লোকজ বিনোদনের হারিয়ে যাওয়া ঐতিহ্যকে আবারো নাগরিক সমাজে ফিরিয়ে আনতে গতকাল বিকেলে মেলা মঞ্চে অনুষ্ঠিত হয় \'মোরগ লড়াই\'। সন্ধ্যায় বগুড়া থিয়েটারের সভাপতি এএইচ আজম খানের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত হয় আলোচনা সভা। সভায় প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন সংসদ সদস্য ও বিরোধী দলীয় হুইপ নূরুল ইসলাম ওমর। বিশেষ অতিথি ছিলেন জেলা পুলিশ সুপার মোজাম্মেল হক পিপিএম, ওয়ান ফার্মার ব্যবস্থাপনা পরিচালক কৃষিবিদ মোস্তাফিজুর রহমান, বগুড়া পৌরসভার প্যানেল মেয়র আমিনুল ফরিদ, বৃহত্তর বগুড়া সমিতির সভাপতি মাছুদুর রহমান রন্টু, বিআইআইটি\'র অধ্যক্ষ প্রকৌশলী সাহাবুদ্দীন সৈকত, বগুড়া মিউজিক এ্যাসোসিয়েশনের সভাপতি আতিকুর রহমান মিঠু। স্বাগত বক্তব্য রাখেন মেলা কমিটির সদস্য সচিব তৌফিক হাসান ময়না। আলোচনা সভা শেষে সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান পরিবেশন করে সাংস্কৃতিক সংগঠন দোলনচাঁপা, দৃষ্টি, সপ্তস্বর শিল্পী গোষ্ঠী, চাঁপাইনবাবগঞ্জ থেকে আগত বিখ্যাত \'গম্ভীরা\' দল। এছাড়া সকালে অনুষ্ঠিত হয় আবৃত্তি ও একক অভিনয় প্রতিযোগিতা।
গোদাগাড়ীতে ছাগল উন্নয়ন খামারে বস্নাক বেঙ্গলের উৎপাদন বেড়েছে
১৯৯০ সালে রাজশাহীর গোদাগাড়ী উপজেলার রাজাবাড়ীতে ২০ একর জমির উপর ছাগল উন্নয়ন খামার গড়ে তোলা হয়। কিন্তু সরকারি এই ছাগল উন্নয়ন খামারে বিভিন্ন সমস্যার কারণে ছাগল উৎপাদন কমে গিয়ে বিলুপ্তি হতে চলেছিল। স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, ২০১০ সালে প্রাণী সম্পদ অধিদফতর খামারটির উপর নজর দিলে ব্লাক বেঙ্গল হিসেবে পরিচিত ছাগলের উৎপাদন বেড়ে যায়। আর খামারে উৎপাদিত ব্লাক বেঙ্গল ছাগল ও পাঠা উত্তরাঞ্চলের বিভিন্ন এলাকায় সরবরাহ করা হচ্ছে। ছাগল উন্নয়ন খামার সূত্রে জানা যায়, বর্তমানে খামারে ৪৩০টি ছাগল রয়েছে। এর মধ্যে প্রজননের জন্য রয়েছে ১০৬টি ব্লাক বেঙ্গল পাঠা। আঞ্চলিক ছাগল উন্নয়ন খামারের প্রাণী সম্পদ কর্মকর্তা সিরাজুল ইসলাম বলেন, খামারে উৎপাদিত একটি ব্লাক বেঙ্গল পাঠার নির্ধারিত মূল্য ১ হাজার ২০০ টাকা এবং একটি ব্লাক বেঙ্গল ছাগলের মূল্য ১ হাজার ৮০০ টাকা। দারিদ্র্য বিমোচনের জন্য কম মূল্যে সরকার ব্লাক বেঙ্গল পাঠা ও ছাগল সরবরাহ করছে। উত্তরাঞ্চলের একমাত্র ছাগল উন্নয়ন খামার থেকে বিভিন্ন জেলা ও উপজেলা প্রাণী সম্পদ কর্মকর্তাদের মাধ্যমে দরিদ্র মানুষকে কম মূল্যে ব্লাক বেঙ্গল পাঠা ও ছাগল দেয়া হয়। ২০১৪ সালে ছাগল উন্নয়ন খামারে উৎপাদিত ব্লাক বেঙ্গল পাঠা ৪৮টি ও ২২টি ছাগল উত্তরাঞ্চলের বিভিন্ন উপজেলায় দরিদ্র মানুষের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে। এসব ছাগল ও পাঠা নিয়ে প্রায় শতাধিক ব্যক্তি ব্লাক বেঙ্গল ছাগলের উন্নয়ন ঘটিয়েছে। এ ছাড়াও ব্লাক বেঙ্গল ছাগলের খামার স্থাপনে এবং ছোট ছোট করে ছাগল পালনকারীদেরকে ছাগল উন্নয়নে খামারের কর্মকর্তারা পরামর্শ দিচ্ছে। আঞ্চলিক ছাগল উন্নয়ন খামারে নেই প্রশিক্ষণের ব্যবস্থা ও গবেষণাগার। প্রশিক্ষণ ও গবেষণার জন্য ভবন নির্মাণের প্রয়োজন হয়ে পড়েছে খামারটিতে। আঞ্চলিক ছাগল উন্নয়ন খামারে একজন প্রাণিসম্পদ কর্মকর্তাসহ ১৩টি পদ রয়েছে। বর্তমান প্রাণিসম্পদ কর্মকর্তাসহ মাত্র ৬জন কর্মকর্তা ও কর্মচারী কর্মরত রয়েছে। এতে করে ছাগল ও পাঠার পরিচর্যা ও খাবার হিসেবে ঘাস চাষ করতে হিমশিম খাচ্ছে কর্মরত কর্মকর্তা ও কর্মচারীরা। প্রাণিসম্পদ কর্মকর্তা সিরাজুল ইসলাম আরো বলেন, খামারটিতে জনবল বৃদ্ধিসহ অবকাঠামোভাবে উন্নয়ন ঘটানো গেলে বেশি বেশি ছাগল ও পাঁঠা উৎপাদন করা সম্ভব হবে। আর কম মূল্যে ছাগল ও পাঠা উত্তরাঞ্চলে ব্লাক বেঙ্গল ছাগলের উন্নয়নের মাধ্যমে দারিদ্র্য বিমোচন করা সম্ভব হবে। এদিকে আঞ্চলিক ছাগল উন্নয়ন খামারে ছাগল ও পাঠার বিষ্ঠা জৈব সার হিসেবে ব্যবহার হচ্ছে। খামারের ভিতরে ঘাস চাষে ছাগলের বিষ্ঠা ব্যবহার করা হয়। উদ্বৃত্ত বিষ্ঠা জৈবসার হিসেবে ক্রয় করছে কৃষকরা। উপজেলার রাজাবাড়ীর কৃষক হেলাল উদ্দীন বলেন, গত কয়েক বছর ধরে ছাগল উন্নয়ন খামার থেকে ছাগলের বিষ্টা সংগ্রহ করে শাক-সবজিসহ বিভিন্ন ফসলি জমিতে জৈবসার হিসেবে ব্যবহার করে ভালো ফলাফল পেয়েছে। রাসায়নিক সারের তেমন প্রয়োজন হয় না বলে ছাগলের বিষ্ঠা জৈবসার কৃষকদের কাছে চাহিদা রয়েছে। ছাগল উন্নয়ন কর্তৃপক্ষ ছাগলের বিষ্ঠা প্রকাশ্যে নিলামের মাধ্যমে বিক্রি করে রাজস্ব আয় করছে।
সামাজিক দায়বদ্ধতা থেকে এক্সিম ব্যাংক মানুষের কল্যাণে কাজে লাগতে চায়
এক্সপোর্ট ইমপোর্ট ব্যাংক লিমিটেড (এক্সিম ব্যাংক) এর বৃত্তি প্রকল্পের আওতায় রাজশাহী অঞ্চলের মেধাবী ছাত্র-ছাত্রীদের মাঝে বৃত্তি প্রদান অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে এক্সিম ব্যাংকের ভাইস চেয়ারম্যান আব্দুল মান্নান এমপি বলেন, এক্সিম ব্যাংকের মূল লক্ষ্য মুনাফা অর্জন নয়। সামাজিক দায়বদ্ধতা থেকে মানুষের কল্যাণে কাজে লাগতে চায়। ব্যাংক বলতে আমানত রাখা ও ঋণ (৬ পৃঃ ১ কঃ দ্রঃ) সামাজিক দায়বদ্ধতা থেকে এক্সিম ব্যাংক মানুষের কল্যাণে (৩ এর পাতার পর) গ্রহণ করা বোঝায়। কিন্তু এর বাইরে যে ব্যাংকের অনেক কাজ আছে তা অনেকের জানা ছিল না। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ব্যংকিংএর পাশা-পাশি সামাজিক কাজ করার জন্য এক্সিম ব্যাংকের অনুমোদন দিয়েছেন। আজ এখানে যে সকল শিক্ষার্থীকে বৃত্তি প্রদান করা হচ্ছে এতে কারো প্রভাব নেই। একটি শিক্ষিত জাতি ছাড়া দেশের অর্থনৈতিক উন্নয়ন সম্ভব নয়। ২৭০ জন ছাত্র-ছাত্রীর মধ্যে শুধু রাজশাহী অঞ্চলের ১৯৮ জনকে বৃত্তি প্রদান করা হচ্ছে। মেধাবী শিক্ষার্থীদের লেখা -পড়া শেষ না হওয়া পর্যন্ত এই বৃত্তি অব্যাহত থাকবে। ব্যাংকের ব্যবস্থাপনা পরিচালক ড. মোহাম্মদ হায়দার আলী মিয়ার সভাপতিত্বে গতকাল বগুড়া হোটেল নাজ গার্ডেনে অনুষ্ঠিত এই অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন এক্সিম ব্যাংকের উপ-ব্যবস্থাপনা পরিচালক এম সিরাজুল ইসলাম, সিরাজুল হক মিয়া, খন্দকার রুমী, এহসানুল হক। এছাড়া সেখানে অনুষ্ঠিত এক্সিম ব্যাংকের রাজশাহী রিজিওনের বাৎসরিক ব্যবসা উন্নয়ন সম্মেলনে ব্যাংকের রাজশাহী রিজিওনের ৭টি শাখার ব্যবস্থাপকগণসহ প্রধান কার্যালয় ও আঞ্চলিক অফিসের নির্বাহীগণ অংশগ্রহণ করেন। বৃত্তি প্রদান অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি আব্দুল মান্নান এমপি আরও বলেন, মানুষ হত্যা করে মানুষের কল্যাণ করা যায় না। মানুষ হত্যা করে রাষ্ট্রীয় ক্ষমতায় যাওয়া যায় না। দীর্ঘ ৩ মাস আন্দোলনের নামে বিএনপি নেত্রী মানুষ হত্যা করে কি পেয়েছেন? জামায়াতের শক্তির কাছে আত্মসমর্পণ করে এবং যুদ্ধাপরাধীদের বাঁচাবার জন্য বিএনপি ৫ জানুয়ারির জাতীয় নির্বাচনে অংশ নেয়নি। জামায়াতের শক্তিই তাদের মূল শক্তি। তিনি বলেন, এ সরকারের শিক্ষানীতির মূল লক্ষ্য হলো আধুনিক শিক্ষায় সন্তানদের শিক্ষিত করা। আধুনিক শিক্ষার সাথে ধর্মীয় শিক্ষাকে সম্পৃক্ত করা। যাতে সে সব জায়গায় কর্মংসংস্থান করতে পারে। সরকার প্রাথমিক শিক্ষাকে শতভাগে উন্নীত করতে পেরেছে। তবু ৫ম শ্রেণীর পর থেকে ১০ম শ্রেণী পর্যন্ত ৪১ শতাংশ শিক্ষার্থী ঝরে পড়ছে। তাদের ঝরে পড়া বন্ধ করতে সরকার কাজ করছে। এ সরকার বিদ্যুৎ ব্যবস্থার উন্নয়ন করতে সক্ষম হয়েছে। খাদ্য ঘাটতি দেশকে খাদ্য রফতানির দেশ হিসাবে পরিচিত করেছে। স্বাস্থ্য সেবার উন্নয়ন ঘটেছে। সরকার ২০২১ সালের মধ্যে এই দেশকে মধ্যম আয়ের দেশে বিশ্বের বুকে পরিচিতি লাভ করাতে চায়। অবশ্য ২০১৯ সালের মধ্যে সেই স্বপ্ন্ পূরণ হবে। দেশ এগিয়ে যাচ্ছে । কেউ দেশের অগ্রযাত্রকে রোধ করতে পারবে না। বিশ্ব মন্দার মধ্যেও দেশের প্রবৃদ্ধি ৬ শতাংশের উপরে ছিল। এ জন্য বিদেশে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা প্রশংসিত ও পুরস্কৃত হয়েছেন। তার এই অর্জন বাংলার বুকে চির অমস্নান হয়ে থাকবে। অনুষ্ঠানের দ্বিতীয় পর্বে ব্যাংকের ভাইস চেয়ারম্যান আব্দুল মান্নান এমপি কাঙ্খিত ফলাফল অর্জনের জন্য সবাইকে অভিনন্দন জানান এবং শাখা ব্যবস্থাপকদের নিষ্ঠা ও সততার সাথে কাজ করার আহ্বান জানান। ব্যাংকের ব্যবস্থাপনা পরিচালক ড. মোহাম্মদ হায়দার আলী মিয়া ২০১৫ সালের ব্যবসায়িক সম্ভাবনা ও প্রতিকুলতা নিয়ে আলোচনা করেন এবং এই সকল প্রতিকুলতা অতিক্রম করে নতুন বছরে কাঙ্খিত ফলাফল অর্জনের জন্য গঠনমূলক ও সুস্পষ্ট দিক নির্দেশনা প্রদান করেন।
সাঁথিয়ার ঐতিহাসিক ডাববাগান দিবস আজ
আজ ১৯ এপ্রিল। ঐতিহাসিক পাবনার সাঁথিয়ার ডাববাগান দিবস। একাত্তরের ১৯ এপ্রিলের ডাববাগানের যুদ্ধ আজও ইতিহাসের পাতায় স্থান পায়নি। নগরবাড়ীঘাট ছেড়ে পশ্চিম দিকে কাশিনাথপুর পেরিয়ে বগুড়া-নগরবাড়ী মহাসড়কের পাবনার সাঁথিয়া উপজেলার পাইকরহাটি গ্রামের (বর্তমান নাম শাহীদনগর) ডাববাগান নামক স্থানে একাত্তরের ১৯ এপ্রিল পাক হানাদার বাহিনী মুক্তিযোদ্ধাদের সাথে সম্মুখ প্রতিরোধের সম্মুখীন হয়। মুক্তিসেনাদের পক্ষে এই যুদ্ধে নেতৃত্ব দেন ইপিআর সুবেদার গাজী আলী আকবর। (বাড়ি কুষ্টিয়া জেলার শান্তিডাঙ্গা গ্রামে)। যুদ্ধে প্রায় ৫০ জন পাকসেনা নিহত হয়। এদিকে সম্মুখ যুদ্ধে শহীদ হন ইপিআর হাবিলদার মমতাজ আলী, হাবিলদার আঃ রাজ্জাক, নায়েক হাবিবুর রহমান, সিপাহী এমদাদুল হক, সিপাহী ঈমান আলী, সিপাহী রমজান আলীসহ আরও অনেক ইপিআর সদস্য। পাক বাহিনী ওই সকল শহীদ ইপিআর সদস্যদের দেহ এসিড ঢেলে পুড়িয়ে দেয়। তারা একে একে পুড়িয়ে দেয় ডাববাগানের পার্শ্ববর্তী রামভদ্রবাটি,ু কোড়িয়াল, বড়গ্রাম, সাটিয়াকোলা প্রভৃতি গ্রাম। পাখির মতো গুলি করে হত্যা করে শ শ গ্রামবাসীকে। একাত্তরের ১৯ এপ্রিলের সেই ভয়াল রাতের কথায় শহীদনগরবাসী ফিরে যায় সেদিনের স্মৃতিতে। খুঁজে পেতে চায় সে সব শহীদ ভাইদের যাদের তাজা রক্তে ভিজে গেছে গ্রামের মেঠো পথ। শহীদ নগরে রয়েছে ইপিআরদের \'গণকবর\'। শহীদ মুক্তিযোদ্ধাদের স্মৃতিকে স্মরণীয় করার জন্য বিগত আওয়ামী লীগ সরকারের আমলে এখানে বীর বাঙালি নামে একটি স্মৃতি সৌধ গড়ে তোলা হয়েছে। প্রতিবছরের ন্যায় এবারও সাঁথিয়া উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা সংসদের পক্ষ থেকে দিবসটি পালনের জন্য দিনব্যাপী কর্মসূচির গ্রহণ করা হয়েছে।
সড়ক দুর্ঘটনায় প্রতিবছর ১২ হাজার মানুষ মারা যায়
সারাদেশে সড়ক দুর্ঘটনায় প্রতিবছর ১২ হাজার মানুষ নিহত এবং অন্তত ৩৫ হাজার লোক আহত হয়ে পঙ্গুত্ববরণ করে। গতকাল শনিবার নাটোরে \'গাড়ি চালকদের দক্ষতা ও সচেতনতা বৃদ্ধিমূলক\' দিনব্যাপী প্রশিক্ষণ কর্মশালায় এই তথ্য জানানো হয়।স্থানীয় একটি চায়নিজ রেস্তোরায় জেলা প্রশাসক মশিউর রহমানের সভাপতিত্বে কর্মশালায় প্রধান অতিথি ছিলেন \'নিরাপদ সড়ক চাই\' সংগঠনের চেয়ারম্যান চিত্রনায়ক ইলিয়াস কাঞ্চন। এসময় অন্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন পুলিশ সুপার বাসুদেব বণিক, এলজিইডি\'র রাজশাহী বিভাগের তত্বাবধায়ক প্রকৌশলী আলী আহমেদ, সংগঠনের জেলা সভাপতি গোলাম মোস্তফা। কর্মশালায় প্রায় দু\'শতাধিক চালক অংশ নেয়। এর আগে সড়ক দুর্ঘটনা রোধে জনসচেতনা বৃদ্ধির লক্ষ্যে চিত্রনায়ক ইলিয়াস কাঞ্চনের নেতৃত্বে শহরে একটি র‌্যালি বের করা হয়। কানাইখালী স্টেডিয়াম মাঠ থেকে বের হওয়া র‌্যালিটি শহরের গুরুত্বপূর্ণ সড়ক প্রদক্ষিণ করে কানাইখালী এলাকায় সাহারা পাজা চত্বরে গিয়ে শেষ হয়। এসময় চিত্রনায়ক ইলিয়াস কাঞ্চন সড়ক দুর্ঘটনা রোধে সকলকে সচেতন হওয়ার আহ্বান জানান।
 
 
 
পাকিস্তানের সাথে আজই সিরিজ নিষ্পত্তি চায় বাংলাদেশ
স্পোর্টস রিপোর্টার :
১৬ বছর পর সিরিজের প্রথম ওয়ানডেতে পাকিস্তানকে হারিয়ে দীর্ঘ প্রতিক্ষার অবসান ঘটিয়েছে বাংলাদেশ। তাই এক ম্যাচ হাতে রেখে তিন ম্যাচের সিরিজ জয়ের দারুণ সুযোগ এখন বাংলাদেশের সামনে। পাকিস্তানের বিপক্ষে দ্বিতীয় ওয়ানডে জিতেই সিরিজ নিষ্পত্তি করতে চায় টাইগাররা। দ্বিতীয় ম্যাচের আগে এমনটাই জানালেন বাংলাদেশ অধিনায়ক মাশরাফি... বিস্তারিত
 
খিলগাঁওয়ে যৌথ অভিযান : প্রার্থীর প্রতিনিধি আটক
স্টাফ রিপোর্টার, ঢাকা অফিস :
রাজধানীর খিলগাঁও থানা এলাকায় যৌথ অভিযান চালিয়েছে র‌্যাব, বিজিবি ও পুলিশ। নির্বাচনী তৎপরতার অংশ হিসাবে গতকাল শনিবার বিকাল থেকে এ অভিযান চালানো হয়। এ সময় গোড়ান এলাকা থেকে ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের (ডিএসসিসি) ২, ৩ ও ৪ নম্বর ওয়ার্ডের সংরক্ষিত মহিলা কাউন্সিলর প্রার্থী শামীমা আক্তারের... বিস্তারিত
 
জাফরউল্লাহর পথসভায় গুলি ওসিসহ আহত ৭
ভাঙ্গা (ফরিদপুর) প্রতিনিধি :
ফরিদপুরের ভাঙ্গা উপজেলার কাওলীবেড়া ইউনিয়নের মুন্সীবাড়ি কুমপাড় বাজারে আওয়ামী লীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য কাজী জাফরউল্লা পথসভায় গতকাল শনিবার সকাল ৯টায় তারই আস্থাভাজন এক নেতার শটগানের গুলিতে ওসিসহ ৭ জন আহত হয়েছে। আহতদের ভাঙ্গা হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। আহতদের অবস্থার অবনতি হলে পরে ৬ জনকে ফরিদপুর মেডিকেল... বিস্তারিত
 
উপাচার্যের সাথে অসৌজন্যমূলক আচরণ
রাবিতে নিন্দা প্রতিবাদ বিক্ষোভ অব্যাহত
রাবি প্রতিনিধি :
রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের (রাবি) উপাচার্য অধ্যাপক মুহম্মদ মিজানউদ্দিনকে সরকার দলীয় এমপির শাসানো ও উপাচার্য দপ্তরে মহানগর আওয়ামী লীগ নেতাদের দ্বারা কয়েকজন শিক্ষক লাঞ্ছিতের ঘটনার তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়ে ক্যাম্পাসে বিক্ষোভ মিছিল করেছে প্রগতিশীল ছাত্রজোট। এ ছাড়াও বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রাধ্যক্ষ পরিষদ ও সভাপতি পরিষদ পৃথক বিৃবতির মাধ্যমে... বিস্তারিত
 
 
 
ভিডিও
রাশিচক্র আজ ঢাকায় আজ বগুড়ায়
 
অনলাইন জরিপ
আজকের প্রশ্ন
দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চলের চরমপন্থিরা আত্মসমর্পণের আহ্বানে সাড়া দেবে বলে মনে করেন কি?
হ্যাঁ
উত্তর নেই
না
 
 
 
আজকের ভিউ
নামাজের সময়সূচী
ওয়াক্ত
সময়
ফজর
03:50
জোহর
12:7
আছর
04:42
মাগরিব
06:54
এশা
08:20
 
 

সম্পাদকঃ মোজাম্মেল হক, সম্পাদক কর্তৃক ন্যাশনাল প্রিন্টিং প্রেস, শিল্পনগরী বিসিক বগুড়া এবং ১৬৭ ইনার সার্কুলার রোড, (আরামবাগ) ইডেন কমপ্লেক্স, মতিঝিল, ঢাকা-১০০০ থেকে মুদ্রিত ও চকযাদু রোড, বগুড়া হতে প্রকাশিত।
ফোন ৬৩৬৬০,৬৫০৮০, সার্কুলেশন বিভাগঃ ০১৭১৩২২৮৪৬৬, বিজ্ঞাপন বিভাগঃ ৬৩৩৯০, ফ্যাক্সঃ ৬০৪২২। ঢাকা অফিসঃ স্বজন টাওয়ার, ৪ সেগুন বাগিচা। ফোনঃ ৭১৬১৪০৬, ৯৫৬০৬৬৯, ৯৫৬৮৮৪৬, ফ্যাক্সঃ ৯৫৬৮৫২২ E-mail : dkaratoa@yahoo.com . . . .

Powered By:
close